Browsing Category

ক্লিনিং টিপস / ঝকঝকে তকতকে

গরমে ত্বকের যত্নে করনীয়

গরমে ত্বকের যত্নে করনীয়

এসেছে তীব্র গরম। আর নিয়ে এসেছে ত্বকের জন্য নানা জটিলতর সমস্যা। গরমের এই তীব্রতা ও দূষিত বাতাস আপনার ত্বককে করে তোলে শুষ্ক ও নিস্তেজ। আর্দ্রতা ধরে রাখার পাশাপাশি, সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মী ও ঘাম থেকে রক্ষা এবং সতেজভাব ধরে রাখা বেশ কঠিন কাজ। গরমের কারণে ত্বকের নানা ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। এই সমস্যাগুলো থেকে সুরক্ষিত থাকতে গরমে চাই ত্বকের বাড়তি কিছু যত্ন। চলুন তাহলে জেনে নেয়া যাক এই গরমে কীভাবে ত্বক সতেজ ও সুন্দর রাখা যায়-

রান্না ঘরের জন্য অল পারপাস ক্লিনার রেসিপি

রান্না ঘরের জন্য অল পারপাস ক্লিনার রেসিপি

রান্না ঘরকে অনেকেই হার্ট অফ দ্যা হোম বলে থাকেন। আর বলবেনই বা না কেন? আমাদের সুস্বাস্থ্য অনেকটাই নির্ভর করে এই রান্না ঘরে কি রান্না করা হচ্ছে আর কিভাবে ও কতটা পরিস্কার করে রান্না করা হচ্ছে তার উপর। আর আমাদের গৃহিণীদের দিনের বেশির ভাগ সময় তো রান্না ঘরেই কেটে যায়। তাই বাসায় যে রান্না বান্না করে তার সুস্বাস্থ্যর জন্যও কিন্তু রান্না ঘর সঠিক ভাবে পরিস্কার করে রাখাটা অনেক জরুরী। কিন্তু রান্না ঘর পরিস্কার করে রাখা কিন্তু

আলমারিতে নতুন কাপড়ের জায়গা তৈরি করবেন যেভাবে – ০২

গতদিন বলেছিলাম আলমারিতে নতুন কাপড়ের জায়গা কীভাবে করা যায় তার প্রাথমিক উপায়। কিন্তু আপনার যদি বাদ দেওয়ার মত কাপড় বেশি না থাকে তাহলে কি করবেন! কীভাবে আলমারিতে আপনার নতুন কাপড়ের জায়গা করবেন! এত দুশ্চিন্তা করার প্রয়োজন নেই, আমি বলছি। এবারে আলমারির জিনিসগুলো বের করি এবং ধরণ অনুযায়ী তিনটা আলাদা জায়গায় রাখতে হবে। সেটা হতে পারে বাক্স, ঝুড়ি, চেয়ার অথবা বিছানায় বা মেঝেতে। এক ভাগে থাকবে বাদ দেওয়ার (আগের লেখায় যে ধরণের কাপড়ের কথা উল্লেখ করেছি)

আলমারিতে নতুন কাপড়ের জায়গা তৈরি করবেন যেভাবে – ০১

শীতের পোশাক তুলে রাখতে শুরু করে দিয়েছেন অনেকেই। অনেকেই প্রতি বছর নতুন নতুন পোশাক যোগ হয় শীতের পোশাকের তালিকায়। আপনার আলমারিতে এমনিতেই জায়গা নেই; আবার বাসার সকলের নতুন শীতের পোশাক যোগ হয়েছে! এখন কি করবেন! আপাতত শীতের কাপড় এভাবেই ফেলে রাখবেন কারণ আপনি এখন আলমারি গুছাতে ভয় পাচ্ছেন? পুরো আলমারির কাপড় নামিয়ে আবার তোলা খুব কষ্টকর কাজ তাই ভয় পাওয়া খুবই স্বাভাবিক। কিন্তু আপনি মোটেও এই কাজ করবেন না, পুরো আলমারির কাপড় নামিয়ে আবার নতুন

সুরভিত ও সতেজ ঘর

সুরভিত ও সতেজ ঘর

ঘর সুরভিত বা সুগন্ধে সতেজ থাকুক তা আমরা কে না চাই! এলো শীত। শীতে বাহিরের অতিরিক্ত ঠান্ডা থেকে বাচিয়ে ঘরকে উষ্ণ রাখতে আমরা দিনের বেশিরভাগ সময়টাই দরজা জানালা বন্ধ করে ঘরে বাইরের আলো বাতাস চলাচল বন্ধ রাখি। এতে ঘরের ভেতরটায় এক গুমোট ব্যাপার বিরাজ করে। আর এতে সতেজ গন্ধটাও অনুভূত হয়না। অথচ আমরা চাই ঘর থাকুক উষ্ণ এবং সুরভিত। এছাড়াও বিভিন্ন কারণে আমাদের ঘরে দুর্গন্ধ অনুভূত হয়ে থাকে। ঘরের এই দুর্গন্ধ পরিবারের মানুষজনের জন্যে যেমন

গোসলখানার ভ্যাপসা গন্ধ দূর করবেন কিভাবে?

গোসলখানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি জায়গা। শরীর মনকে সুস্থ রাখতে এই ঘরের পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা খুবই জরুরি।অল্প সময় হলেও সেখানে যদি দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়। স্বাস্থ্যগত বিষয় বিবেচনা করেই এটি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা দরকার। এই দুর্গন্ধকে বিদায় জানানো কঠিন। সেক্ষেত্রে জেনে নিন সহজ কিছু উপায়, যা দুর্গন্ধ দূর করে গোসলখানাকে রাখবে ঝকঝকে তকতকে। বাতাস চলাচলের ব্যবস্থাঃ গোসলখানার ভেতরের পরিবেশ স্বাস্থ্যের অনুকূলে রাখতে ও দুর্গন্ধ তাড়ানো জরুরি। সঠিকভাবে বায়ু চলাচল ব্যবস্থা থাকা বাঞ্ছনীয়। গোসলখানায় যদি ছোট জানালা থাকে, সেটি খুলে দিন

যেভাবে যত্নে থাকবে গোলাপ গাছ

ফুল সৌন্দর্য ও ভালোবাসার প্রতীক। কিন্তু ভালোবাসা ও সৌন্দর্যের কথা বললেই প্রথমে মাথায় আসে, গোলাপ ফুলের নাম। আমার কি মনে হয়, জানেন? গোলাপ ফুলটা না থাকলে ভালোবাসার এত ইতিহাস তৈরি হয় না, গোলাপের কাঁটায় ক্ষত হত না কোন প্রেমিক। তবে এটাও অস্বীকার করা যাবে না, গোলাপ গাছ না থাকলে সফল হত না এত এত প্রেম। যাক গে, প্রেমিক-প্রেমিকার ভালোবাসার বাহিরেও গোলাপ ফুল ভালোবাসা বহন ও লালন করে মানুষের মনে। সেই ভালবাসাটা জন্ম হয় স্বয়ং গোলাপ

শিশুর ঘর গুছিয়ে রাখবেন যেভাবে

শিশুদের ঘর গুছিয়ে রাখা মোটেও সহজ কাজ না। আমার মনে হয়, বাসার কাজগুলোর মধ্যে এইটা সবচেয়ে কঠিন কাজ কারণ খেলনা, বই-খাতা এসব জিনিস ছড়িয়ে ছিটিয়ে রাখে বাচ্চারা। নিজেরা যেমন গুছিয়ে রাখতে পারে না, তেমনই মা-বাবারাও কাজ সামলে ওদের ঘর গুছিয়ে দেওয়ার সময় পান না। অগোছালো ঘরে বড় হতে থাকলে কিন্তু বাচ্চা বড় হয়েও ঘর অগোছালো রাখবে। বাচ্চাকে ছোট থেকেই ঘর গুছিয়ে রাখতে শেখালে বড় হয়ে নিজেরাই গুছিয়ে রাখবে। জেনে নিন কী ভাবে ওদের ঘর গুছিয়ে

ঘরের টুকটাক কাজের আরও কিছু টিপস

  এর আগেও আমি আপনাদের সাথে টুকটাক ঘরোয়া কাজের কিছু টিপস শেয়ার করেছি। আশা করি সেগুলো আপনাদের কাজে এসেছে। আসুন, আজ ঘরের কাজের আরও কিছু টিপস জেনে নেই।   বাসায় বা ঘরে পাখি বাসা দূর করতে করনীয়ঃ অনেকেই কাছেই শুনেছি, বাসার কার্নিশের ফাঁকে চড়ুই পাখি বাসা বাঁধছে। তাদের কিচির মিচিরে রাতের ঘুম নষ্ট হয় এবং বাসাও নোংরা হয় কিন্তু এ থেকে পরিত্রাণের উপায় খুঁজে পাচ্ছে না বিধায় পাখিদের উৎপাত সহ্য করে যাচ্ছে। আজ তাদের এই

বাসার টুকটাক কাজের সহজ উপায়

  বাড়িঘর গুছিয়ে, রান্নাঘর সামলায়ে, আসবাবপত্রের যত্ন করে, নিজের খেয়াল রাখাটা আমাদের বেশ কষ্টকর হয়ে পড়ে আমাদের জন্য। আমিও বেশ হয়রান হয়েছি এসকল কাজ গুছিয়ে উঠতে। কিন্তু আপনাদের হয়রান হতে হবে না, কোন ঝামেলাও পোহাতে হবে না কারণ আপনাদের হয়রানি কমানোর জন্য আমি আপনাদের কিছু সহজ ও ছোটখাটো ট্রিকস শেখাবো যা আমি খুঁজে পেয়েছি। চলুন শুনে নেওয়া যাক। হাত থেকে পেয়াজ ও রসুনের গন্ধ দূর করতে করণীয়ঃ পেয়াজ ও রসুন কাটার পর হাতে গন্ধ থেকে