Browsing Category

রূপসজ্জা

রূপসজ্জা
শীতে ত্বকের যত্নে ময়শ্চারাইজিং স্ক্রাব

শীতে ত্বকের যত্নে ময়শ্চারাইজিং স্ক্রাব

আমাদের দেশে ডিসেম্বর আর জানুয়ারি মাসে সব থেকে বেশি ঠান্ডা পড়ে। আর এই সময় ত্বক হয়ে পড়ে সব থেকে নাজুক। আবহাওয়ার শুষ্কতা আমাদের ত্বককেও স্পর্শ করে। ত্বক হয়ে পড়ে রুক্ষ, শুষ্ক, প্রাণহীন আর নিষ্প্রাণ। আর দিনে দিনে নিষ্প্রাণ ত্বকে আরো বেশি ময়লা, আবর্জনা আর জীবাণু জমতে থাকে। আর এই জীবাণু আর ময়লা জমতে জমতে এক সময় ত্বকের উপর বেশ পুরু একটা স্তর জ্জমে যায়। আর সেই সাথে ত্বকের মরা কোষও বাড়তে থাকে। ফলে ত্বক দিনে

শীতে কোমল ও উজ্জ্বল ত্বকের জন্য মধু ও দুধের ফেস প্যাক

শীতে কোমল ও উজ্জ্বল ত্বকের জন্য মধু ও দুধের ফেস প্যাক

শীতকালে ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখাটা কিন্তু খুব কষ্টকর হয়ে যায়। কারণ এই সময়ে এমনিতেই আবহাওয়া খুব শুষ্ক আর রুক্ষ থাকে। শুষ্ক আবহাওয়ার কারণে আমাদের ত্বক এমনিতেই এর স্বাভাবিক আর্দ্রতা হারিয়ে ফেলে। ফলে ত্বক হয়ে পরে রুক্ষ। শুধু তাই নয়। ত্বকের স্বাভাবিক আর্দ্রতা কমে যাবার ফলে ত্বক আস্তে আস্তে নিস্তেজ হয়ে পড়ে এবং আস্তে আস্তে এর স্বাভাবিক উজ্জ্বলতাও কমতে শুরু করে। ফলে আমাদের অতি যত্নের প্রিয় ত্বক দেখতে একদমই প্রাণহীন লাগে। আর এই ত্বকের প্রাণহীনতা দূর

শীতে ত্বকের যত্নে দারুণ একটি ফেস প্যাক

শীতে ত্বকের যত্নে দারুণ একটি ফেস প্যাক

ডিসেম্বর মাস তো এসে গেছে। সেই সাথে ঠান্ডা ঠান্ডা হিম হিম শীতের বাতাসও কিন্তু আমাদের স্পর্শ করছে। সারা বছরের কাঠ ফাটা গরমের পর এই ঠান্ডা আবহাওয়া যদিও অনেকেই বেশ উপভোগ করে থাকেন। তবে এই আভাওয়াটা আমাদের ত্বকের জন্য কিন্তু বেশ ক্ষতিকরই বটে। যদিও যাদের ত্বক অতিরিক্ত তৈলাক্ত তারা এই সময়টাতে একটু আরামেই থাকেন। কিন্তু যাদের ত্বক একটু শুষ্ক ধরণের তাদের জন্য এই শীতের শুষ্ক আবহাওয়া যথেষ্ঠ বিরম্বনা বয়ে আনে। এই সময়ে শুষ্ক ত্বক এর আর্দ্রতা

ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখা এতোটাই সহজ…

যৌবন ধরে রাখতে কে না চাই! কিন্তু বয়সের সাথে সাথে চলে আসা ত্বকের পরিবর্তন ও বার্ধক্যের ছাপ আটকে রাখা মোটেও সহজ না। তবে এটা অসম্ভব কোন বিষয়ও না।  আপনি চাইলে ধরে রাখতে পারেন আপনার ত্বকের বার্ধক্যের ছাপ।তাহলে ৪০ বছর বয়সেও আপনার ত্বক থাকবে আঁটসাঁট ও সতেজ। তবে এই কন্য আপনাকে শুধু কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে। আসুন… জেনে নেই, নিয়মগুলো কি-   ১। যৌবন ধরে রাখার মূল মন্ত্রই হল সুস্থ, নির্মেদ শরীর। আর এর জন্য হাঁটার

ঘরোয়া স্ক্রাবে হোক রূপচর্চা

ত্বকের মৃত কোশ ও ধুলোময়লা দূর করতে স্ক্রাবিং-এর গুরুত্ব অপরিসীম। কিন্তু কেনা  স্ক্রাবারগুলো ত্বকের ময়লা দূর করলেও ত্বকের বেশ ক্ষতি সাধন করে।   কারণ এতে থাকে ক্ষতিকর রাসায়নিক। যার ফলে কেনা স্ক্রাবারের নিয়মিত ব্যবহার ত্বককে করে তোলে রুক্ষ ও প্রাণহীন। কারো কারো চর্মরোগও হয়ে থাকে। তাই আমাদের উচিত বাসায় স্ক্রাবার তৈরি করে নির্ভেজাল উপাদান ত্বক ব্যবহার করে। চলুন তাহলে জেনে নেই, কীভাবে বাসায় নির্ভেজাল স্ক্রাবার তৈরি করবেন-   মধু ও কমলালেবুর স্ক্রাবঃ কমলালেবুর খোসা শুকিয়ে গুঁড়ো

পার্লারের মত চুল কালার করুন নিজেই

চুল কালার করতে কম/বেশি আমরা সকলেই পছন্দ করি। কিন্তু বারবার পার্লারে যেতে পছন্দ করি না অনেকেই। কারণ অনেক পার্লার রাফ কেমিক্যাল ব্যবহার করে যা চুলের জন্য ক্ষতিকর। আবার কোন পার্লার ভেজাল পণ্যও ব্যবহার করে থাকে তাই অনেকেই পার্লারে যেতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে না। তাদের জন্য আজকের এই লেখাটা।   কালার করার আগে চুল ভালো করে ধুয়ে নিনঃ চুলে রঙ করার ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা আগে চুলকে ভালো করে ধুয়ে নিন। তাহলে আপনার স্ক্যাল্পও পরিষ্কার হবে আর

কালার করা চুলের যত্ন

অনেকেই এখন চুল কালার বা হাইলাইট করে থাকেন। শুধু পাকা চুলকে কালো করতে নয়, অনেকেই কালো চুলকে সাজিয়ে তোলেন বিভিন্ন রঙ দিয়ে। তবে চুল কালার করার জন্য যেসব উপাদান ব্যবহার করা হয় সেগুলো সবই কেমিক্যাল। ফলে এগুলো  চুলের ক্ষতি করে থাকে। অনেক সময় চুল হয়ে পড়ে রুক্ষ ও নিষ্প্রাণ।  তাই কালার করা চুলের জন্য চাই বিশেষ যত্ন। জেনে নিন কালার করা চুলের যত্ন নেয়ার ব্যাপারে কিছু টিপস- ১। চুল কালার করানোর আগে থেকেই চুল যতটা

চুল রিবল্ডিং করার খুঁটিনাটি

নিত্য নতুন ফ্যাশানের ট্রেন্ড পরিবর্তনের সাথে সাথে অনেক কিছুরই পরিবর্তন হয়। আর এরই সাথে তাল মিলিয়ে চলতে গিয়ে অনেকেই নিজের ঢেউ খেলানো কিংবা কোঁকড়া চুলগুলো রিবন্ডিং করে স্ট্রেইট করে ফেলেন। স্ট্রেইট চুল বর্তমানের ফ্যাশনে অনেক বেশি চলছে। এর সুবিধা হলো খুব সামান্যতেই চুল গুছিয়ে রাখা যায় এবং দেখতেও বেশ ভালো লাগে। চুল রিবন্ডিং আপাত দৃষ্টিতে বেশ ভালো মনে হলেও এটি হতে পারে চুলের মারাত্মক ক্ষতির কারণ। চুল রিবন্ডিং করার পর চুলের বেশ ভালো যত্ন না

মুখের ত্বক পরিষ্কার করার সঠিক নিয়ম…

সহজে যেন মুখের ত্বক নষ্ট না হয় এবং অসময়ে বয়সের ছাপ না পড়ে তাই সঠিক নিয়মে ও পরিষ্কারভাবে মুখ ধোয়া জরুরি। তবে বেশির ভাগ লোকই একে তাদের সৌন্দর্যের রুটিনের একটি ক্ষুদ্র অংশ মনে করে। দুর্ভাগ্যবশত অনেকেই ভুলভাবে মুখ ধুয়ে থাকেন। ভুলভাবে মুখ ধোয়া ত্বকের সমস্যা তৈরি করে, যেমন—শুষ্কতা, প্রদাহ, তেলতেলে ভাব, ব্রণ, বলিরেখা এসব সমস্যা কিন্তু ভুলভাবে মুখ ধোয়ার কারণেই হয়। সঠিকভাবে মুখ ধোয়া ত্বককে ভালো রাখে; তারুণ্যদীপ্ত রাখে। স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট টপটেন হোম রেমিডি জানিয়েছে

অসময়ে চেহারায় বয়সের ছাপ কেন পড়ে

বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে আমাদের মুখের ত্বকও পরিবর্তন হতে থাকে এবং ত্বকে বয়সের ছাপ ধীরে ধীরে ত্বকে বয়সের ছাপ দেখ দেয়। কিন্তু কিছু মানুষ আছে সাথে মুখের ত্বক ভিন্ন। তাই  অল্প বয়স থেকেই তাদের ত্বকে বয়সের ছাপ দেখা দেয়। বয়সের ছাপ কি? মুখের ত্বক কুঁচকে যাওয়া, ঝুলে যাওয়া, ঠোঁট ও চোখের পাশে বলিরেখা দেখা দেওয়া ইত্যাদি মুখের ত্বকে বয়সের ছাপ পড়ার চিহ্ন।   বয়সের ছাপ কেন পড়ে? অল্প বয়সে মুখের ত্বকে বয়সের ছাপ দেখা দেওয়ার