Browsing Tag

হেলথ টিপস

দেহের প্রয়োজনে প্রোটিন।

প্রোটিন সম্পর্কে আমরা কতটুকু জানি? শরীরের যত্নে প্রোটিনের গুরুত্বের কথা সবারই জানা উচিত কারন প্রোটিন ছাড়া আমাদের দেহ বলতে গেলে অচল। তাই আমাদের প্রোটিন কি এবং কোন কোন খাবারে প্রোটিন পাওয়া যায় এবং আমাদের দেহের জন্য প্রোটিনের গুরুত্ব কত খানি এ সব ই আমাদের জানা উচিত। তাহলে চলুন আজকে প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার গুলো সম্পর্কে ধারনা নেয়া যাক এবং শরীরের প্রয়োজনে প্রোটিন কিভাবে কাজ করে থাকে। প্রোটিন কি? মাছ, মাংস, দুুুধ, ডিম, ঘন ডাল—এইসব ছাড়া আমাদের

তারুন্য ধরে রাখার ৫ টি খাবার

এই পৃথিবীর প্রতিটা মানুষ ই চায় আজীবন যৌবন ধরে রাখতে এবং চির তরুন থাকতে। কিন্তু সেটা কি কখনো কারো পক্ষে সম্ভব ? না, কিন্তু মানুষ চাইলে বহুদিন পর্যন্ত নিজেকে তরুন দেখাতে পারে। ৩০ – ৪০ বছর এর পর থেকে চেহারার তরুন ভাব টা যেন  দিন দিন কিছুটা কমে যেতে শুরু করে। এর  কারন হলো আমাদের প্রতিদিনের ছোট ছোট কয়েক টা বদঅভ্যাস যা এই প্রক্রিয়াকে আরও ত্বরান্বিত করে।  আমাদের একটু সচেতনতা এবং ভালো কিছু অভ্যাস বা ইচ্চ্ছা  চেহারায়

থাইরয়েড সমস্যায় করনীয়

থাইরয়েড খুব কমন একটি সমস্যা। পুরো পৃথিবী জুড়ে প্রায় ৩০ কোটির মত মানুষ থাইরয়েড হরমোনের সমস্যায় ভুগছেন। আর এদের মধ্যে বেশির ভাগই নারী। তার কারন হলো, মহিলা দের থাইরয়েড হরমোন সম্পর্কিত  সমস্যা পুরুষদের চাইতে প্রায় ১০ গুণ অধিক। থাইরয়েড হরমোনের কম বেশি হওয়া একজন  নারীর শারীরিক এবং প্রজনন স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে প্রচুর  প্রভাব ফেলে। পিরিয়ড এর নানান জটিলতা, বন্ধ্যাত্ব জনিত সমস্যা, গর্ভপাত  হওয়া এবং গর্ভকালীন বিভিন্ন  জটিলতার কারণ হলো এই থাইরয়েডের সমস্যা। বিভিন্ন  সময় এই  সমস্যা গুলো প্রথম  থেকে বুঝতে পারা

ছারপোকার ক্ষতিকর দিকসমূহ এবং প্রতিকারের উপায়

যাদের বাসায় ছারপোকার উপদ্রব আছে শুধু তারাই জানেন এর যন্ত্রনা কত ভয়াবহ। এটি  সিমিসিড গোত্রের এক ধরনের ক্ষুদ্র পরজীবী পতঙ্গ বিশেষ। ছারপোকা  মানুষ এবং অন্য উষ্ণ রক্ত বিশিষ্ট কিছু প্রাণীর রক্ত চুষে খেয়ে জীবন ধারন করে ও বেঁচে থাকে। এই পোকাটি বিছানায় বেশি দেখা যায় কিন্তু ছারপোকার সবচেয়ে পছন্দ হলো তোষক বা ম্যাট্রেস, সোফা ও অন্যান্য আসবাবপত্রের কোণায় থাকতে পছন্দ করে এরা। সাধারণত অপরিষ্কার ও স্যাঁতসেঁতে  বিছানা এবং আসবাবপত্রের জন্যই ছারপোকার উপদ্রব ঘটতে দেখা যায়।

মাত্র ১ সপ্তাহে পেটের মেদ  কমান

পেটের মেদ নিয়ে অনেকেরই চিন্তার কোন শেষ নেই। পেটের জমে থাকা অতিরিক্ত মেদ   বা চর্বি আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অনেক অনেক ক্ষতিকর । আর তাই এই মেদ কমাতে প্রতিদিন আমরা কত কিছুই না করছি। মেনে চলতে হচ্ছে খুব কঠিন নিয়ম-কানুন, ব্যায়াম, ডায়েট আরো কত কি। অনেকেই আছেন যাদের ফিগার, বডি ফিটনেস ভালো। কিন্তু পেটে মেদ জমে গেছে, তাই শাড়ি বা শার্ট যাই পরা হোক না কেন দেখতে খারাপ দেখা যায়। তাদেরও এই মেদ কমানো নিয়ে চিন্তার শেষ নেই। কিন্তু এইভাবে আর কত দিন চলে বলুন,

আনারসের অজানা কথা

­আনারস ফলটি সবার পরিচিত । এটি আমাদের দেশের খুবই সহজলভ্য এবং সুলভমূল্যে পাওয়া যায় এমন একটা ফল। এটি এক ধরনের গুচ্ছ ফল। আনারসের প্রথম চাষ হয় দক্ষিণ আমেরিকায়। তবে বর্তমানে এই ফলটি প্রায় সব দেশেই ব্যাপকভাবে চাষ করা হচ্ছে এর স্বাদ এবং পুষ্টিগুণ এর জন্য। এই ফলটিতে আছে বিভিন্ন পুষ্টিকর  উপাদান, যেমন – ভিটামিন, মিনারেলস, খাদ্যআশ ইত্যাদি।  এই ফলটি খেতে খুবই রসালো, টক – মিষ্টি এবং এতে থাকা পানি শরীরে তৃপ্তিকর অনুভূতি দান করে। আনারসে  অধিক  পরিমাণ ভিটামিন এ, সি, ফসফরাস, ক্যালসিয়াম এবং পটাশিয়াম বিদ্যমান । এসব ছাড়াও আনারসে অধিক পরিমানে ক্যালোরী বিদ্যমান। এই ফলটি কোলেস্টেরল ফ্রি এবং চর্বিমুক্ত। স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য এ ফলের জুড়ি মেলা দায়। এখন আনারসের মৌসুম চলছে। আর তাই এই গরমে আপনার প্রতিদিনের খাবার তালিকায় আনারস রাখুন। এবার তাহলে চলুন দেখা নেয়া যাক এই ফলটির বিভিন্ন  গুণাগুণ  গুলো – আনারসের পুষ্টিগুণ : শরীরে পুষ্টির যোগান দেয় : আনারসে রয়েছে শরীরে পুষ্টির যোগান দেয়ার খুব বড় একটি অংশ । এই ফলটিতে আছে খুব বেশি পরিমানে ভিটামিন

কালোজিরা কথন

কালোজিরা আমাদের সকলের পরিচিত। প্রায় প্রতিটি রান্নাঘরেই কালোজিরা থাকে। কালোজিরা আয়ুর্বেদীয় , ইউনানী, কবিরাজী চিকিৎসায় ব্যবহার হয়। মশলা হিসাবেও ব্যাপক ব্যবহার হয়ে থাকে। সাথে একটি হাদিসজড়িত আছে। হাদিসটি হলো— ‘..আয়েশা রাদিয়াল্লাহু ‘আনহা থেকে বর্ণিত , তিনি বলেন, আমি নবী সাল্লাল্লাহু‘আলাইহিওয়াসাল্লামকে বলতে শুনেছি: “এ কালোজিরা সাম ব্যতীত সমস্ত রোগের নিরাময় । আমি বললাম: সাম কি? তিনি বললেন: মৃত্যু !” আমাদের আধুনিক ডাক্তারিশাস্ত্র আর ধর্মীয় অনুভূতি যাই বলি না কেন কালোজিরা সবখানে স্বমহিমায় উজ্জ্বল। চলুন জেনে নেওয়া

অনিদ্রা কারণ, প্রভাব ও সমাধান।

ঘুম, জগতের সব শান্তি যেনো ঘুমের মাঝেই লুকিয়ে আছে। ব্যস্ত দিন শেষে নরম বালিশে মাথা এলিয়ে দেওয়ার মজা আর কোনভাবেই পাওয়া সম্ভব না। কিন্তু বিপত্তি ঘটে যখন আপনার এই শান্তির ঘুম সহজে আপনাকে ধরা দিতে চায় না। তখন কি যে খারাপ লাগে তা  নিশ্চয় বলে বোঝানো সম্ভব না। হ্যা, বলছি অনিদ্রা রোগের কথা। আজ জেনে নিবো এই সমস্যার কারণ, এবং এর খারাপ প্রভাব সম্পর্কিত কিছু তথ্য। সাধারণত অনিচ্ছাকৃত ভাবে রাত জাগার প্রবণতাকেই অনিদ্রা রোগ বলা

টনসিলের ব্যাথা থেকে মুক্তি পাওয়ার উপায়।

টনসিলের সমস্যা, খুবই স্বাভাবিক একটা সমস্যা, কিন্তু মাঝে মাঝে এই সমস্যা অসহনীয় হয়ে উঠে। অপারেশনের আগে এমনকি টনসিল অপারেশনের পরও মাঝে মাঝে টনসিলের ব্যাথা হতে পারে। টনসিলের সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়ার সহজ ও কার্যকর কিছু কৌশল জেনে রাখুন, 👉 টনসিলের ব্যাথা হলে খুব কম কথা বলুন। গলার উপর বেশি চাপ দেবেন না। এতে হিতে বিপরীত ঘটনা ঘটতে পারে। যতটা সম্ভব রেস্ট নেওয়ার চেষ্টা করুন। 👉 গরম পানি, চা কফি ও এই ব্যাথা থেকে সাময়িক রেহাই

সময় এখন বসন্ত রোগের।

প্রকৃতিতে চলছে খেলা, এই খুব গরম তো হঠাৎ ঝুম বৃষ্টি। এমন সময় বিভিন্ন ধরনের ভাইরাস জনিত রোগে ভোগতে পারেন আপনি। এর মধ্যে বসন্ত অন্যতম। বসন্ত রোগ জীবনে একবারই হয়। কোন কোন ক্ষেত্রে দুইবার ও হতে পারে। কিন্তু, এমন সম্ভাবনা খুবই কম। আপনার পরিবাররের সদস্যদের ও নিজেকে এই রোগ থেকে সেরে উঠার কৌশল জেনে রাখতে পারেন, আশা করি কিছুটা হলেও কাজে দেবে। এক: বসন্ত রোগের উপর কারো কোন হাত নেই জীবনে একবার না একবার এই রোগ