রান্নাঘরের অল্পস্বল্প আইডিয়া!

নিত্যদিনে রান্নাঘরে দিনের বিরাট একটা সময় কাটান আপনি। এটা , সেটা কত কাজ! দৈনন্দিন এসব কাজে নানান ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় আপনাকে। এসব ক্ষুদ্র কিছু সমস্যার সহজ কিছু সমাধান দেখে নিন আজ।

১: সিঙ্কের জ্যাম :

সিঙ্কে জ্যাম লেগে যাওয়া কি যে সমস্যার সৃষ্টি করে তা শুধু আপনিই জানেন! এই সমস্যার সমাধান হচ্ছে ভিনেগারবেকিং সোডা! দু কাপ গরম পানিতে এক ক্যাপ ভিনেগার ও এক কাপ বেকিং সোডা ছেড়ে সিঙ্কে ঢেলে দিন। বিশ্বাস করুন। মাত্র দু মিনিটেই সিঙ্কের জ্যাম খুলে যাবে। বেকিং সোডা দিয়ে সিঙ্ক ধুতেও পারেন চকচক করবে!

২: দুধ সংরক্ষন :

অনেকেরই ভুল ধারনা যে দুধ সংরক্ষনের কোন উপায় নেই যাতে দুধ এক-দু মাস ভালো থাকে। আমরা দুধের ডেট শেষ হওয়ার সাথে সাথেই তা ফেলে দিতে ব্যাস্ত হয়ে যাই। আসলে ফ্রিজে দুধ এক থেকে দু মাস পর্যন্ত ভালো থাকে। আইস করে রেখে দিন।

৩: চিজ সংরক্ষন :

চিজ, যেকোন স্ন্যাকস তৈরীতে সবচেয়ে প্রয়োজনীয় জিনিস। ফ্রিজে খুব বেশি দিন চিজ ভালো রাখতে এ্যালুমিনিয়ামের ফয়েল প্যাকে মুড়ে রাখুন। অনেক দিন পর্যন্ত ভালো থাকবে।

৪: দুর্গন্ধ দুর করতে :

রান্নাঘরে নানান কারণে দূর্গন্ধ হতে পারে। ডাস্টবিনের ময়লা বা খাবারের গন্ধ নাকে লাগলে কখনোই ভালো লাগার কথা নয়। এই দুর্গন্ধ দুর করতে এক টুকরো লেবু রান্নাঘরের এক কোণায় রেখে দিন। অথবা এক ক্যাপ ভিনেগার এক কোণায় রেখে দিন। আরো দারুণ এক আইডিয়া আছে। সামান্য গরম পানিতে দু তিন ফোঁটা ভেনিলা এসেন্স আর সামান্য দারচিনি জ্বাল দিন। আপনার পুরো ঘরে বেকারির মতো সুঘ্রাণ করবে।

৫: ফ্রাইপ্যানের কঠিন দাগ দুর করতে :

ফ্রাইপ্যানের কঠিন দাগ তুলতে সামান্য ভিনেগার ও পানি একসাথে মিশিয়ে জ্বাল দিন। সহজে দাগ উঠে যাবে। থবা সামান্য লবন ও পানি একসাথে জ্বাল দিলেও কাজ হবে।

৬: স্মুদি বানাতে দই সংরক্ষন :

ফ্রিজের আইস ট্রেতে দই বরফ করে রাখুন। খুব গরমে বাইরে থেকে ফিরে বা সকালের নাস্তায় ফলের রসের সাথে এই কিউবগুলো যোগ করলেই হয়ে যাবে মজাদার স্মুদি!

৭: ডিম সংরক্ষন :

আইস ট্রেথে করতে পারেন ডিম সংরক্ষন! কাজের সময় আলাদা করে ডিম ভাঙতে না চাইলে এক কাজ করুন। আইসট্রেতে একসাথে কয়োকটা ডিম ভেঙ্গে বরফ করে রেখে দিন। কাজের সময় ঝটপট বের করে নিতে পারবেন।কাজ সহজ হবে।

৮: চপিং বোর্ড সামলাতে :

আপনার ব্যবহৃত চপিং বোর্ড অনেক সময় পিচ্ছিল হয়ে যেতে পারে। এ থেকে ঘটতে পারে নানান ধরনের দূর্ঘটনা। তাই কিছু কাটার সময় হাত কাটার ভয় এড়াতে চপিং বোর্ডের নিচে একটি টাওয়াল বা কিছু রেখে দিন। চপিং বোর্ড পিছলাবে না। এছাড়া চপিং বোর্ডের উপরের অংশে লেবু ও বেকিং সোডা এক সাথে মিশিয়ে ঘষলে উপরের অংশের পিচ্ছিল ভাব দুর হবে।সাথে চপিং বোর্ড ঝকঝকেও হবে।

৯: লবণাক্ত ভাব কমাতে :

খাবারে খুব বেশী লবন দিয়ে দিয়েছেন? কি করাা যায় এখন! চিন্তা নেই, ঘরে আলু আছে না? একটা আলু ছিলে তরকারী, বা স্যূপে দিয়ে দিন। আলু সব বাড়তি লবন শুষে নেবে। ফেলে তরকারীর অতিকরিক্ত লবন ভাব মুখে লাগবে না।

১০: তরকারীতে তেল কমাতে :

অতিরিক্ত তেল খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। তবে ভুল তো হতে পারেই ! কোন কারণে তরকারীতে বেশি তেল দিয়ে দিয়েছেন? এক কাজ করুন। দু তিনটা বরফ তরকারীতে ছেড়ে দিন।বরফের গায়ে সব তেল উঠে আসলে ঝটপট বরফ তুলে নিন। বরফ সব বাড়তি তেল শুষে নেবে।

মাঝে মাঝে রান্না করার সময় এই সমস্যা গুলোর মুখোমুখি হতে হয়। বা রান্নাঘরেও অনেক সময় বাড়তি কিছু আইডিয়ার প্রয়োজন হয় যা আপনার কাজ সহজ করবে। আশা করি এই টিপসগুলো আপনাদের কিছুটা হলেও কাজে আসবে।

মন্তব্যসমূহ

বর্তমানে শিক্ষার্থী এছাড়া আর কিছু করছি না। সিলেটে থাকি। লেখালেখি আমার পুরাতন শখ। আর কখনোই এই শখ বাদ দিতে চাই না। এছাড়া বলার মতো আর কিছু আপাতত খুঁজে পাচ্ছি না।

২ টি মন্তব্য
  1. Reply মেয়োনিজের ব্যবহার - ১ বোতল মেয়োনিজ এর কত কেরামতি!! | চটপট - এসো নিজে করি অক্টোবর ১১, ২০১৭ তারিখে ৮:৪৫ অপরাহ্ন

    […] বিভিন্ন জায়গার বিশেষ করে রান্নাঘরে তৈলাক্ত ময়লা হয়, যা অনেক ঘষাঘষিতেও […]

  2. Reply হেয়ার কন্ডিশনার এর ভিন্ন কিছু ব্যবহার | চটপট - এসো নিজে করি এপ্রিল ১৪, ২০১৮ তারিখে ১০:৩১ অপরাহ্ন

    […] রান্নাঘরে কাজ করতে গিয়ে কিংবা অন্য যেকোন ভাবে হাতপা কেটে গেলে আমরা ব্যান্ডেজের ব্যবহার করি। ব্যাণ্ডেজ খোলার সময় তা খুব একটা সহজে উঠে আসে না, আর তখন টেনে খুলতে গিয়ে যে প্রচন্ড ব্যথা লাগে তা বলা বাহুল্য! ব্যাণ্ডেজ খোলার সময় চারপাশে যদি কন্ডিশনার লাগিয়ে নিতে পারেন তবে ব্যথা না পেয়েই ব্যাণ্ডেজ খোলে নিতে পারবেন। […]

মন্তব্য করুন