রান্নাঘরের স্পন্জকে ব্যবহার করুন অন্যক্ষেত্রে।

হাতের কাছে এমন অনেক জিনিস আছে যা আপনি একাধিক ভাবে কাজে লাগাতে পারেন। কিন্তু প্রয়োজন একটু আইডিয়ার। এমনই এক উপাদান হলো রান্নাঘরের স্পন্জ যা ব্যবহার করতে পারেন নানান উপায়ে।

১ : বরফ প্যাক হিসেবে : হঠাৎ আঘাত পেলে তাৎক্ষনিক বরফ প্রয়োজন। এক্ষেত্রে কাজে আসতে পারে একটি স্পন্জ। একটি স্পন্জ ভিজিয়ে ফ্রিজে রেখে দিন। এরপর এটি বরফ হিসেবে ব্যবহার করুন। দেখবেন এই বরফ সহজে গলবে না ! বড় এই বরফ গরমের দিনে রুমে রেখে দিলে রুম ও ঠান্ডা থাকবে।

২: বাচ্চাদের রঙের প্যাড হিসেবে : বাচ্চারা সৃজনশীলতা পছন্দ করে। তাদের জন্য এই স্পন্জগুলো একটু অন্য ভাবে কাজে আসতে পারে। একটি সুন্দর স্পন্জকে ইচ্ছেমতো শেপে কেটে নিন। যেমন : চাঁদ, তারা , ফুল ইত্যাদি। এরপর লিকুইড রঙে প্যাডগুলো চুবিয়ে সাদা কাগজে বিভিন্ন নকশা করে দিন। আপনারা সন্তানরা দারুণ খুশি হবে।

৩: কাঁচের জিনিসপত্র নিরাপদ রাখতে : শখের কাঁচের গ্লাস বা প্লেট খুব যত্ন করে রাখতে চাইছেন। তবে বাসনগুলো একটি বাক্সে ভরে চারপাশে স্পন্জ রেখে দিন। বাসনগুলো নিরাপদ থাকবে।

৪ : বডি স্ক্রাবার হিসেবে : বাজার থেকে বডি স্ক্রাবার কেনার কথা ভাবছেন ? বাসন ধোওয়ার স্পন্জই করতে পারে বডি স্ক্রাবারের কাজ। সানন্দেই বেছে নিতে পারেন ভালো মানের স্পন্জ।

৫: ওয়াল পরিষ্কার করতে : আপনার ঘরের প্লাস্টিক পেইন্ট করা দেয়াল পরিষ্কার করতে ব্যবহার করতে পারেন স্পন্জের সফট সাইড। দেয়ালের যেকোন দাগ সহজেই উঠে আসবে। আর দেয়ালের দাগগুলো কাপড় দিয়ে ঘষে তুলা কঠিন, ব্রাশ দিয়ে ঘষলে দেয়ালের আস্তরন উঠে আসতে পারে। এক্ষেত্রে সেরা সমাধান হলো স্পন্জ।

৬: শখের গাছগুলো পরিষ্কার করতে : নিজের বাগানে রাখা প্রিয় ফুলগাছ গুলোর পাতা পরিষ্কার করতে ব্যবহার করতে পারেন স্পন্জ। আলতো করে স্পন্জ দিয়ে গাছের পাতাগুলো মুছে দিন ব্যাস ! কাজ শেষ !

৭: মেক আপ ফোম হিসেবে : মুখে মেক আপ দিতে ফোম বা ব্রাশের প্রয়োজন পড়ে। কমপ্যাক্ট পাউডার বা ফেইজ মেক আপ মুখে ভালো করে ব্লেন্ড করতে ফেসিয়াল ফোমই উত্তম। ঘরে ফোম না থাকলে এক কাজ করুন। পছন্দসই একটি স্পনওজকে ছোট করে কেটে নিন। পরবর্তিতে এটিকে মেক আপের সময় ব্যবহার করতে পারেন।

৮ : ইলেকট্রিনক্সের স্ক্রিন পরিষ্কার করতে : আপনার এল.সি ডি টিভির স্ক্রিনে দুনিয়ার ধূলো জমে আছে। কিন্তু স্ক্রিনে হাত দিতে নিষেধ ! এক কাজ করতে পারেন। খুব নরম দেখে একটি ভালো ফোম নিন। অবশ্যই ফোমটি শুকনো থাকতে হবে। এবার ফোমের নরম পাশ দিয়ে টিভির স্ক্রিন মুছে নিন। স্পন্জ দিয়ে পরিষ্কার করলে স্ক্রিনে প্রেশারও পড়বে না। আর ধূলোগুলোও খুব সহজেই উঠে আসবে।

৯: হাত বাঁচাতে : খুব প্রিয় কোন ফ্রাইপ্যানের হাতল নষ্ট হয়ে গেছে ? এ্যালুনিয়ামের ধারালো ভাব আপনার হাতের ক্ষতি করতে পারে। অথবা অসাবধানতা বশত হাতও কেটে যেতে পারে । তাই এক কাজ করুন হাতলে একটি পুরাতন ফোম স্কচটেপ দিয়ে আটকে দিন। আরামসেই নষ্ট জিনিস ব্যবহার করা যাবে !

১০ : ভেজা ফুলদানি মুছতে ; ড্রয়িংরুমের সুন্দর সাজানো ফুলদানি ধোয়া পর তা শুকাতে ব্যবহার করতে পারেন স্পন্জ। স্পন্জের পানি শোষন ক্ষমতা বেশি। খুব সহজেই ফুলদানি মুছতে পারবেন। ফুলদানিতে কোন স্ক্রেচও পড়বে না।

১১ : সাবান দীর্ঘস্থায়ী করতে : আপনার ব্যবহৃত সাবানগুলো কি একটু বেশি দ্রুত গলে যাচ্ছে ? এক কাজ করতে পারেন সাবান কেসের উপর একটি স্পন্জ রেখে এর উপর সাবান রেখে দিন। সাবানের অতিরিক্ত পানি স্পন্জ শুষে নেবে। ফলে সাবান সহজে গলবে না। এছাড়া চাইলে একটি স্পন্জ সাবান কেসের আদলে কেটে নিতে পারেন।

১২: আয়না চকচকে করতে : কাঁচের আয়না পরিষ্কার করতে সহজ সমাধান হচ্ছে স্পন্জ। সামান্য লিকুইড আর একটি স্পন্জ ব্যাস ! আর আয়না চকচকে ! লিকুইড ফোমে নিয়ে আয়না মুছে নিতে পারেন।

১৩ : ফ্রিজের দূর্গন্ধ দুর করতে : আপনার ফ্রিজের বাজে গন্ধ দুরে রাখতে কাজে আসবে স্পন্জ ! নিশ্চয় একটু অবাক হলেন ! জি হ্যা , একটি স্পন্জে সামান্য সোডা ছড়িয়ে ফ্রিজের ভেতর রেখে দিন। স্পন্জ ফ্রিজের বাজে গন্ধ শুষে নেবে। একই পদ্ধতি ওভেনের বেলায় ও কার্যকর।

 

১৪ : ফার্নিচারের নিচে সাপোর্ট হিসেবে : ফার্নিচার ব্যালেন্স করে রাখতে , ফার্নিচারের পায়ার নিচে ব্যবহার করুন স্পন্জ। এছাড়া স্পন্জ আপনার মেঝেকেও ফার্নিচারের ধকল থেকে রক্ষা করবে। কেননা অনেক সময় ভারী ফার্নিচার টানার কারণে টাইলসের শাইন চলে যায় বা অনেক সময় ফেটেও যেতে পারে।

১৫: সোয়েটার নতুনের মতো করতে : আপনার উলের সোয়েটার বা পুরাতন জাম্পারে কি সূতা উঠে উঠে আরো বেশি পুরাতন মনে হচ্ছে ! আর এমনিতেই সূতা উঠা দেখতে দৃষ্টিকটু লাগাটাই স্বাভাবিক। এক কাজ করুন।হাতে স্পন্জ নিয়ে স্পন্জের খসখসে সাইড দিয়ে জাম্পারে সার্কুলার মোশনে হালকা ভাবে ঘষুন। দেখবেন লোম লোম ভাবটা কেটে গেছে আর জাম্পার একদম পলিশ ও নতুন মনে হচ্ছে।

 

১৬: নিজের যত্নে স্পন্জের ব্যবহার : আপনার নখের হলদেটে দাগ তুলবেন ? বা হাঁটুর চামড়া পরিষ্কার করতে ব্যবহার করুন স্পন্জ।

১৭ : টাইলস ক্লিনিং এর জন্য : টাইলসের ময়লা পরিষ্কার করতে ব্যবহার করতে পারেন স্পন্জ ময়লাগুলো সহজেই উঠে আসবে। আর টাইলসের কোন ক্ষতিও হবে না।

১৮ : ফ্রিজের শাক সবজী তরতাজা রাখতে : জি হ্যা অবাক হওয়াটাই স্বাভাবিক ! ভাবছেন নিশ্চয় যে স্পন্জ কিভাবে আপনার শাকসবজি তরতাজা রাখবে ! ফ্রিজের ভেজিটেবিল ড্রয়ারে একটি শুকনো স্পন্জ রেখে দিন। স্পন্জ বাড়তি ময়েশ্চারাইজার শুষে নেবে ফলে শাক সবজী দীর্ঘদিন ভালো থাকবে।

১৯: জুতো পরিষ্কার করতে : আপনার ময়লা জুতো পরিষ্কার করতে সাহায্য করবে স্পন্জ । ডিটারজেন্ট পাউডার দিয়ে স্পন্জ দিয়ে ঘষে জুতো পরিষ্কার করতে পারেন।

২০ : বড় জুতো পড়তে : আপনার জুতো কি পা থেকে বেশি বড় হয়ে গেছে ? এক কাজ করুন পায়ের সামনের অংশে একটি ফোম কেটে জুতোর ভেতর রেখে দিন। খুব সহজেই জুতো পায়ে ফিট হবে।

২১: কাগজে গম লাগাতে : যেকোন ধরনের খাম বা কাগজে গম লাগাতে ব্যবহার করতে পারেন একটি স্পন্জ আপনার কাজ সহজ হবে আর গম হাতেও লাগবে না।

২২: বেবি ওয়াইপ হিসেবে : আপনার নবজাতক সন্তানকে প্রতিদিন গোসল করানো সম্ভব না। তাদের শরীর মোছার জন্য ব্যবহার করতে পারেন স্পন্জ। স্পন্জের নরম পাশ দিয়ে হালকা করে আপনার সোনামনির শরীর মুছে নিন।

২৩: পেইন্ট প্যাড হিসেবে : দেয়াল রঙ করবেন ? খুব বড় অংশ না হলে এক কাজ করুন। রঙ করতে ঝকটি স্পন্জ ব্যবহার করুন। খুব সহজেই দেয়াল রঙ করতে পারবেন। আর রঙ পলিশও হবে। স্পন্জের সফট পাশ রঙে চুবিয়ে নিন। একটু চাপ দিয়ে বাড়তি রঙ উঠিয়ে নিন।

২৪ : বাচ্চাদের খেলনা হিসেবে : বাচ্চাদের খেলনা হিসেবে দারুণ কাজে আসতে পারে বাসন ধোওয়ার স্পন্জ। ইচ্ছেমতো সাইজে টুকরো করে নিন। বাচ্চাদের পুতুলের বালিশ , বিছানা সব কিছু তৈরীতে ব্যবহার করতে পারেন স্পন্জ ! এছাড়া লোগোর শেপ করেও কেটে নিতে পারেন স্পন্জ।

২৫ :কার্পেট ক্লিনার হিসেবে : কার্পেট ক্লিনার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন স্পন্জ। শুকনো স্পন্জের খসখসে পাশ দিয়ে কার্পেট ঘষে ঘষে পরিষ্কার করতে পারেন ময়লা উঠে আসবে ।

২৬: ফার্নিচার পলিশ করতে : পুরাতন ফার্নিচার রঙ করার আগে এক ধরনের কাগজ দিযে ঘষে ঘষে পরিষ্কার হয়। এই কাগজের পরিবর্তে ব্যবহার করতে পারেন স্পন্জের খসখসে সাইড।

 

স্পন্জ শুধু বাসন ধোওয়ার কাজেই নয় আরো নানান কাজে আসতে পারে। তাই বাড়তি কিছু স্পন্জ স্টকে রেখে দিতে পারেন অন্য রকম ব্যবহারের জন্য। আপনার অনেক কাজ সহজ করবে কাজের জিনিস স্পন্জ !

মন্তব্যসমূহ

বর্তমানে শিক্ষার্থী এছাড়া আর কিছু করছি না। সিলেটে থাকি। লেখালেখি আমার পুরাতন শখ। আর কখনোই এই শখ বাদ দিতে চাই না। এছাড়া বলার মতো আর কিছু আপাতত খুঁজে পাচ্ছি না।

১ টি মন্তব্য
  1. Reply রান্নায় কত কৌশল | চটপট - এসো নিজে করি মে ৩, ২০১৮ তারিখে ২:০৮ অপরাহ্ন

    […] সহজ পদ্ধতি জানা না থাকলে রান্নাঘরে সেরা রাঁধুনিকেও পড়তে হয় নানা […]

মন্তব্য করুন