একটি মগই করবে অনেক কাজ!

আপনার ঘরের অতিপ্রয়োজনীয় এক জিনিস হলো মগ। কিন্তু কিচেনের বাইরে ও কি মগ অন্যভাবে ব্যবহার করতে পারবেন ? অবশ্যই পারবেন। মগকে ভিন্ন ভাবে বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজে লাগান নিজের মতো করে।

১: মোমবাতি হোল্ডার হিসেবে :মোমবাতি হোল্ডার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন মগ। আপনার জিনিসপত্র বা ফ্লোরকে মোমবাতির ফোঁটা থেকে রক্ষা করবে একটি মগ।

২: পোষা পাখির খাবার পাত্র হিসেবে : পোষা পাখির বা বিড়ালের খাবারের পাত্র হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন পুরাতন মগ।

৩: টব হিসেবে : ছোট ছোট সাইজের গাছগুলো মগের ভেতর রাখতে পারেন। জি, একদম টবের কাজ করবে ভাঙ্গা পুরাতন মগ। ধনে পাতা, মরিচ, ইত্যাদি ভালোই ফলবে মগ টবের ভেতর !

 

৪: কাপ কেকের পাত্র হিসেবে : কাপ কেক তৈরী করবেন ? অথবা মাফিন ? এজন্য এখন আর আলাদা করে মাফিন ট্রে কেনার দরকার পড়বে না। পুরাতন কাঁচের মগগুলো দিয়েই তৈরী করতে পারবেন দারুণ শেপের কাপ কেক বা মাফিন !

 

৫: পরিমাপক হিসেবে : রান্নাঘরে সব জিনিস সঠিক পরিমানে ব্যবহার করা চাই। মাপে একটু উলট পালট হলেই রেসিপি নষ্ট ! এক কাজ করতে পারেন, পরিমাপক কাপ হিসেবেই ব্যবহার করুন মগ। পরিমাপে ভুল হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে না।

৬: বৃত্ত আঁকতে: কোন কিছুতে বৃত্ত আঁকবেন ? মগের নিচ সাইডকে বৃত্ত আকতে ব্যবহার করতে পারেন।

৭: মাইক্রোওয়েভ এর পাত্র হিসেবে : একসাথে দু তিনটা আইটেম অল্প করে গরম করতে দু তিনটা মগ ব্যবহার করতে পারেন। মগগুলো একসাথে ওভেনের ভেতর সুন্দর ভাবে ফিট হয়ে যাবে ফলে সময়ও বাঁচবে।

৮: লাউড স্পিকার হিসেবে : শুনে একটু অবাকই হতে পারেন। একটি কাঁচের মগের ভেতর আপনার মোবাইল ফোন ঢুকিয়ে নিন। মিডিয়াম সাউন্ডে ফোনে গান ছেড়ে দিন। দেখুন মগের মাধ্যমে কেমন ভিন্ন একটা সাউন্ড বের হয় গানগুলোর। পুরো রুম জুড়েই অন্যরকম একটা মিউজিক্যাল আবহ তৈরী হবে।

৯: কাটার হিসেবে : বিভন্ন ধরনের কুকি, বিস্কুট, পিঠা বা ফুচকা কাটতে মগের গোল অংশ ব্যবহার করতে পারেন। সুন্দরই শেপ পাবেন।

১০: কলমদানি হিসেবে : পড়ার টেবিলের চারপাশে ছড়ানো কলম, পেন্সিল ইত্যাদি। একটি মগ এক্ষেত্রে সমাধান হিসেবে কাজে আসতে পারে। মগের ভেতর সুন্দর করে আপনার কলমগুলো রেখে দিন। পেন হোল্ডার না থাকলেও চলবে, মগই করবে পেনহোল্ডারের কাজ।

১১: চুড়ির বাক্স হিসেবে : এক এক রঙের কাঁচের চুড়ি এক একটি মগের ভেতর রেখে দিতে পারেন। খঁজে পেতে সমস্যা হবে না। আর চুড়ি গুলোও যত্নে থাকবে। ভাঙ্গার সম্ভাবনা থাকবে না।

ব্যাস এই ছিলো পুরাতন বা নতুন মগের কিছু ব্যবহার। আপনার জানা থাকতে পারে ব্যাপারগুলো তবু নতুন করে বলে ফেললাম, যাতে আইডিয়াগুলো মিস না হয় !

মন্তব্যসমূহ

বর্তমানে শিক্ষার্থী এছাড়া আর কিছু করছি না। সিলেটে থাকি। লেখালেখি আমার পুরাতন শখ। আর কখনোই এই শখ বাদ দিতে চাই না। এছাড়া বলার মতো আর কিছু আপাতত খুঁজে পাচ্ছি না।

মন্তব্য করুন