নিত্যদিনকার বিউটি টিপস।

আমাদের সবার কাছে সৌন্দর্য্য ব্যাপারটা খুব গুরত্বপূর্ণ। তবে প্রতিদিন তেমন করে নিজের প্রতি যত্ন নেওয়া হয়ে উঠে না। অতটা সময় হয়তো আমাদের নেই। তাই এক কাজ করুন,নিজের দৈনিক ব্যস্ততার মাঝেই কিছু অভ্যাস গড়ে তুলুন যা, আপনাকে সর্বদা রাখবে তরুণ ও সুন্দর।

চলুন যেনে নেওয়া যাক এমনই কিছু সহজ অভ্যাস:

👉 সকালের শুরুটা চা দিয়ে নয় বরং তাজা ফলের রস দিয়েই শুর হোক। ভাজাপোড়ায় আগ্রহ কিছুটা কমান। তবে অলিভ অয়েল দিয়ে ডিম ওমলেট করে খেতে পারেন।

👉 দশ মিনিটের যোগ ব্যয়াম আপনাকে সারাদিন রাখবে সতেজ ও তরতাজা। যোগ ব্যয়ামের জন্য সেরা সময় হল, সকাল অথবা সন্ধ্যে বেলা।

👉 যোগ ব্যয়াম করা সম্ভব না হলেও প্রতিদিন অন্তত পনেরো থেকে বিশ মিনিট খুব জোড়ে হাঁটুন। আস্তে আস্তে হাঁটলে ত্রিশ মিনিট সেরা সময় ।

👉 দুপুরের খাবার বা রাতের খাবারে বেশি করে সবজী রাখুন। তৈলাক্ত খাবার একদম পরিহার করুন।

👉 রাতে যতটা সম্ভব তাড়াতাড়ি ঘুমানোর চেষ্টা করুন। সকালে যত জলদি উঠবেন আপনি তত ফ্রেশ ফিল করবেন। প্রতিদিন আট ঘন্টা ঘুম অবশ্যই নিশ্চিত করুন।

👉 লেবুর রস ও চিনি দিয়ে প্রতিদিন ফেস স্ক্রাব করতে পারেন। এতে ত্বকে জমে থাকা ময়লা বের হয়ে যাবে।

👉 অনেকেই প্রতিদিন নিয়ম করে চুল আচড়াতে ভুুলেে যান। তবে অবশ্যই এই কাজটি কখনো করবেন না। চুলে রক্ত চলাচল স্বাভাবিক রাখতে অবশ্যই প্রতিদিন চুল আঁচড়াতেই হবে। নয়তো চুল পড়ার সমস্যা বেড়ে যেতে পারে।

👉 সৌন্দর্য্য রক্ষায় বেশ বড় অবদান রাখতে পারে লেবু ও মধু পানীয়। প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে লেবুর রস ও মধু একসাথে মিশিয়ে পান করুন।আপনার জন্য দুধ খাওয়া ক্ষতিকর না হলে দুধের সাথেও মধু মিশিয়ে খেতে পারেন।

👉রাতে ঘুমাতে যাওয়ার সময় আমরা তো ক্রিম বা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করে থাকি তাই না ? এখন থেকে ক্রিম বা ময়েশ্চারাইজারের বদলে প্রতিদিন মুখে এলোভেরার জেল লাগিয়ে ঘুমোতে যান। ত্বকের জন্য আর ভাবতে হবে না !

👉 রাতের খাবার যতটা সম্ভব তাড়াতাড়ি খেতে চেষ্টা করুন। অন্তত খাবার ও ঘুমের মাঝে অন্তত দু ঘন্টা সময় ব্যবধান রাখুন।

ব্যস এই ছিলো আপনাদের জন্য আমাদের স্বল্প কিছু টিপস। আশা করি অবশ্যই আপনাদের কাজে দেবে।

মন্তব্যসমূহ

বর্তমানে শিক্ষার্থী এছাড়া আর কিছু করছি না। সিলেটে থাকি। লেখালেখি আমার পুরাতন শখ। আর কখনোই এই শখ বাদ দিতে চাই না। এছাড়া বলার মতো আর কিছু আপাতত খুঁজে পাচ্ছি না।

মন্তব্য করুন