যেসকল কারণে আপনার আজ থেকেই ইয়োগা শুরু করা উচিত

যেসকল কারণে আপনার আজ থেকেই ইয়োগা শুরু করা উচিত

ইদানিং কালে ইয়োগা বা যোগাসন শব্দটা খুব বেশি শোনা গেলেও ইয়োগা আসলে অনেক প্রাচীণ একটি ব্যায়াম। প্রাচীণ সাধু সন্নাসীরা বহুকাল আগে থেকেই নিজেদের স্বাস্থ্যসুরক্ষায় যোগাসন করে আসছেন। এর বহুবিধ উপকারের জন্য বর্তমান সময়ের ফিটনেস ট্রেইনাররা সকল বয়সী মানুষকেই ইয়োগার জন্য উতসাহ দিচ্ছেন। চলুন আজ ইয়োগার কিছু সাধারণ উপকারিতা জেনে নেই।

ইয়োগা সব বয়সে শুরু করা যায়

আমার মতে ইয়োগার সবথেকে বড় সুবিধা হল এটি যেকোন বয়সেই শুরু করা যায়। ছোট বাচ্চা থেকে শুরু করে বয়স্ক দাদু যেকেউ নিজের দেহের ক্ষমতা বুঝে ইয়োগা শুরু করতে পারেন।

ইয়োগা শরীরের ফ্লেক্সিবিলিটি বৃদ্ধি করে

ইয়োগা অন্য যেকোন ধরণের ব্যায়ামের থেকে দ্রুত দেহের ফ্লেক্সিবিলিটি বৃদ্ধি করে। আপনি হয়তো শুরুতে পায়ের বুড়ো আঙ্গুল তো দূরের কথা, পায়ের পাতাও স্পর্শ করতে পারবেন না। কিন্তু প্রত্যেকদিনের প্রাকটিসের সাথে ধীরে ধীরে আপনার শরীরের জড়তা কেটে যাবে এবং আপনার ফ্লেক্সিবিলিটি বহুগুণ বেড়ে যাবে।

পেশী শক্তি বৃদ্ধি করে

ইয়গা শুধু যে আমাদের ফ্লেক্সিবিলিটি বাড়ায় তা নয়। এটি আমাদের পেশী শক্তিও বৃদ্ধি করে। তাই আপনি যদি বডি বিল্ডিং এর চিন্তা করে থাকেন তবে নিজের ব্যায়ামের রুটিনে ইয়োগা যোগ করতে ভুলবেন না।

দেহের পশ্চার সঠিক করে

আমাদের হাটা, চলা, শোয়া, বসা, দাড়ানো সবকিছুর জন্যই সঠিক পশ্চার আছে। এই পশ্চার মেনে চলাফেরা করা হয় না বলেই বেশিরভাগ মানুষ বৃদ্ধ বয়সে নানারকম শারীরিক ব্যাথায় কষ্ট পান। কিন্তু অল্প বয়স থেকে ইয়োগা করলে আমাদের হাটা চলা সহ সবকিছুর পশ্চার সঠিক হয় এবং বয়সকালে বিভিন্ন ব্যাথার ঝুকি অনেক কমে যায়।

ওজন কমাতে ইয়োগা

ওজন কমাতে ইয়োগার জুড়ি নেই। সুর্যপ্রাণায়াম বা কাপালভাতির মত অসংখ্য ইয়োগা আছে যা আমাদের শরীর থেকে বাড়তি মেদ ঝড়িয়ে ফেলতে সাহায্য করে। সেই সাথে বাড়তি পাওনা হচ্ছে নিয়মিত ইয়োগা আমাদের দেহে রোগব্যধির বিস্তার ব্যহত করে।

মনের শান্তি বৃদ্ধিতে ইয়োগা

এখনকার প্রতিযোগিতার দুনিয়ায় দিন দিন মানুষের মাঝে স্ট্রেস বেড়েই চলেছে। ফলাফল ঘুম কমে যাচ্ছে, নিজস্ব সময় কমে যাচ্ছে আর জীবন থেকে মানসিক শান্তি হারিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু তাই বলে কি জীবনের যুদ্ধে আপনি পিছিয়ে পড়বেন? মোটেও না। বরং ইয়োগাকে আপনার জীবনের একটা অংশ বানিয়ে ফেলুন। নিয়মিত ইয়োগা যেমন দেহকে সুস্থ্য রাখে, তেমনি নিয়মিত প্রাণায়াম আপনার মনের নানা অস্থিরতাকে দূর করে আপনার মানসিক শান্তি ফিড়িয়ে আনতে সাহায্য করে।

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

২ টি মন্তব্য
  1. Reply সুহা অক্টোবর ১৭, ২০১৭ তারিখে ৬:৪৬ অপরাহ্ন

    ধন্যবাদ
    ভালো লিখেছেন

  2. Reply স্বাস্থ্যরক্ষায় হাটার উপকারিতা | চটপট - এসো নিজে করি নভেম্বর ১৬, ২০১৭ তারিখে ৮:০৬ অপরাহ্ন

    […] ওজন কমাতে হাটার ভুমিকা অনস্বীকার্য। সকালে অথবা বিকালে ৪৫মিনিট থেকে এক ঘন্টা হাটলে আমাদের ওজন যথেষ্ঠ দ্রুত কমতে শুরু করবে। তাছাড়া বয়স্ক মানুষের জন্য সব রকম ব্যায়াম ঝুকিমুক্ত নয়। ইচ্ছা করলেই তারা ওজন কমানোর জন্য কঠিন কঠিন ব্যায়ামগুলো করতে পারবেন না। সেক্ষেত্রে হাটা হচ্ছে সবচেয়ে ঝুকিমুক্ত ব্যায়াম যা যেকোন বয়সেই শুরু করা যায়। […]

মন্তব্য করুন