হাতের যত্নে সেরা দুটি স্ক্রাব

হাতের যত্নে সেরা দুটি স্ক্রাব।

মুখের ত্বকের ব্যাপারে আমরা সবাই বেশ সচেতন। কিন্তু হাতের যত্নে আমাদের অবহেলা! সাধারনত হাতের যত্নে আমরা খুব একটা যত্নশীল না। তবে হাতের ও কিন্তু মুখের মতোই যত্নের প্রয়োজন।আজ  হাতের যত্নে দারুণ কাজের দুটি স্ক্রাব সম্পর্কে জেনে নিবো। যে দুটি স্ক্রাবের উপর ছেড়ে দিতে পারেন আপনার হাতের যত্নের দায়িত্ব।

 

স্ক্রাব ১: 

যা যা লাগবে :
লেবুর রস এক টেবিল চামচ।
মধু আধা চা চামচ।
গুড়া দুধ এক টেবিল চামচ।

ব্যবহারবিধি :

লেবুর রস, মধু ও গুড়া দুধ একসাথে খুব ভালো করে মিশিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রণ ভালো করে হাতে ম্যাসেজ করুন ৪-৫ মিনিটের মতো। এরপর হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে হাত ধুয়ে নিন।
এই স্ক্রাব আপনার হাতের কালচে ভাব দূর করবে। হাতের খসখসে ভাব দূর করতে এই স্ক্রাব খুব ভালো কাজ করে। তবে হাতে কাটাছেড়া থাকলে এই স্ক্রাব ব্যবহার না করাই ভালো কারণ এতে আছে লেবুর রস। লেবুর রসের এসিডিক উপাদানের জন্য হাতে জ্বালাপাড়া করতে পারে।

স্ক্রাব ২:
যা যা লাগবে :

দই এক টেবিল চামচ।

গ্লিসারিন৩-৪ ফোটা

কমলালেবুরর শুকনো খোসা সামান্য (ব্লেন্ড করা)

ব্যবহারবিধি :

তিনটি উপাদান একসাথে মিশিয়ে পুরো হাতে মেখে নিন। ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন। স্ক্রাব শুকিয়ে আসলে একটা ভেজা তুলার সাহায্যে স্ক্রাব তুলে আনুন। হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। যেকোনো ভালো ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন।
এই স্ক্রাব ব্যবহারের ফলে আপনার হাতের চামড়া নরম থাকবে। হাতের যেকোন দাগ তুলে হাতকে ফর্সা করবে এই স্ক্রাব।
এছাড়াও আপেলের খোসা কিন্তু হাতের ত্বকের জন্য খুব ভালো ক্লিনজার,ময়েশ্চারাইজার ও স্ক্রাবার।

আশা করি এই দুটি স্ক্রাব আপনারা হাতের জন্য ব্যবহার করবেন।

মন্তব্যসমূহ

বর্তমানে শিক্ষার্থী এছাড়া আর কিছু করছি না। সিলেটে থাকি। লেখালেখি আমার পুরাতন শখ। আর কখনোই এই শখ বাদ দিতে চাই না। এছাড়া বলার মতো আর কিছু আপাতত খুঁজে পাচ্ছি না।

মন্তব্য করুন