ঝটপট চাইনিজ রেসিপি

চাইনিজ আমাদের অনেকের ই খুব প্রিয় একটা খাবার। সাধারণত চাইনিজ খেতে হলে আমাদের কে সচরাচর চাইনিজ রেস্টুরেন্ট এর দিকেই যেতে হয়। কিন্তু সব সময় তো আর রেস্টুরেন্ট এ যাওয়া সম্ভব নয়। কখনো ভেবে দেখেছেন মজাদার এই খাবার টি যদি ঘরে থেকেই বানিয়ে খাওয়া যায় তাহলে কত ভালোই না হয়! তাই রেসিপি জেনে নিয়ে আপনিও বাসায় বসেই চাইনিজ রেস্টুরেন্ট এর স্বাদ নিতে পারবেন।
তাহলে চলুন জেনে নেই মজাদার চাইনিজ এর তিনটি রেসিপি একসাথে-

০১। চাইনিজ ভেজিটেবল এর পারফেক্ট রেসিপি :

উপকরণ:

  • ১. ব্রোকলি অর্ধেক টা লম্বা লম্বা করে (বেশি ছোট হবে না)
  • ২. বরবটি ২৫০ গ্রাম (লম্বা, বাঁকা করে কাটা)
  • ৩. গাজর মধ্যম সাইজ (৫-৬ টা, এটাও বাঁকা করে কেটে নিতে হবে)
  • ৪. পেপে মধ্যম সাইজ ১ টা (গাজর এর মত বাঁকা করে)
  • ৫. বাঁধাকপি ৪ ভাগের এক ভাগ।
  • ৫. ক্যাপসিকাম ১ টা লম্বা চিকন করে কাটা।
  • ৬. কালো গোলমরিচের গুঁড়া ১ টেবিল চামচ
  • ৭. সয়াসস (কালো টা) ১ টেবিল চামচ
  • ৮. কর্ণ ফ্লাওআর ২ টেবিল চামচ ১/২ কাপ পানিতে গুলে নিতে হবে
  • ৯. চিনি ১ টেবিল চামচ
  • ১০. চিকেন বুকের মাংস লম্বা টুকরা করে কাটা।
  • ১১. গরম পানি ২ কাপ
  • ১২. কর্ণ ফ্লাওয়ার ১/২ কাপ সিদ্ধ করার জন্য
  • ১৩. আদা ও রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ করে
  • ১৪. পেঁয়াজ (৪ ভাগ করে ছাড়িয়ে নিতে হবে।)

প্রণালি :

০১। ক্যাপসিকাম বাদে সব সবজি আলাদা ভাবে সেদ্ধ করতে হবে। সেদ্ধ করার সময়ে একটু লবণ ও কর্ণ ফ্লাওয়ার মিক্স করে নিলে সবজির রঙ ঠিক থাকবে। (যে সবজির যে রঙ সেটা আরও গাড় হবে)। অল্প চিনিও দিতে পারেন।
০২।সবজি গুলো আধাসিদ্ধ এর একটু বেশি হবে। খেয়াল রাখতে হবে যাতে গলে না যায়।
০৩। সবজিগুলো থেকে পানি ছেঁকে নিতে হবে।
০৪। এবার একটা ফ্রাইংপ্যান এ তেল নিয়ে আদা ও রসুন হালকা সোনালি না হওয়া পর্যন্ত ভাজতে হবে।
০৫। হয়ে গেলে মুরগি দিয়ে ভাজতে হবে।
০৬।সাথে একটু লবণ, গোলমরিচ গুঁড়া ও সয়সস দিয়ে আর ৫ মিনিট ভাজা ভাজা করতে হবে
০৭। এবার ক্যাপসিকাম ও পেঁয়াজ দিয়ে আর ২-৩ মিনিট নেড়ে চেড়ে সব সবজি দিয়ে ৫ মিনিট ভালো করে নাড়তে হবে।
০৮। এবার ২ কাপ গরম পানি দিয়ে ঢেকে রাখুন। পানি যখন একটু কমে যাবে বা ৫ মিনিট পর ঢাকনা খুলে কর্ণ ফ্লাওআর গোলানো পানি দিয়ে (এই সময় একটুতাড়াতাড়ি নাড়তে হবে) আর ২-৩ মিনিট রান্না করুন।
০৯।এবার চিনি ও লেবুর রস দিয়ে নামিয়ে নিন।

টিপস-

১.সবজির রঙ ঠিক রাখার জন্য আলাদা আলাদা সেদ্ধ করে নিলে ভালো।
২. অবশ্যই সেদ্ধ করার সময়ই কর্ণ ফ্লাওয়ার ও লবণ দিয়ে দেবেন। এটা সবজির রঙ ঠিক রাখে।
৩. স্বাদ বাড়াতে ইচ্ছা করলে টেস্টিং সল্ট দিতে পারেন

চাইনিজ ফ্রাইড রাইস রেসিপি :

উপকরণঃ

  • ০১। পোলাউ চাল ৭৫০ গ্রাম (মোটামুটি ৫-৬ জন খেতে পারবে এমন)
  • ০২। মিক্স ভেজিটেবল, পরিমান মত (এখানে তিন রকম নিয়েছি, বরবটি, মটরশুঁটি ও গাঁজর)
  • ০৩। আধা কাপ মুরগীর গোসত (হাড় ছাড়া) বড় চিংড়ী ছোট করে টুকরা করা হাফ কাপ
  • ০৪। তিনটি ডিম
  • ০৫। পেয়াজ কুচি আধা কাপ
  • ০৬। কাচা মরিচ ৫-৬ টি
  • ০৭। আদা বাটা বা ছেঁচা , ১ টেবিল চামচ
  • ০৮। পরিমানমত লবণ
  • ০৯। তেল এক কাপের চেয়ে কম
  • ১০। এক চামচ ঘি (ঐচ্ছিক )
  • ১১। সয়াসস, ৫ টেবিল চামচ
  • ১২। ওয়েষ্টার সস, ৫ টেবিল চামচ
  • ১৩। টমেটো সস, ৫ টেবিল চামচ
  • ১৪। চিনি, এক চা চামচ
  • ১৫। পরিমানমত পানি

প্রণালি :

০১। সয়াসস, ৫ টেবিল চামচ, ওয়েষ্টার সস, ৫ টেবিল চামচ, টেমেটো সস, ৫ টেবিল চামচ এবং চিনি, এক চা চামচ মিশিয়ে এক বাটিতে মিক্স সস বানিয়ে নিন। সয়া সসে লবণ থাকে সেজন্য পরবর্তিতে লবণ ব্যবহারে একটু সর্তক থাকবেন।

০২। মুরগীর গোসত জুলিয়ান কাট কাটুন। পরিষ্কার করে ধুয়ে একটি বাটিতে কয়েক চামচ মিক্স সসে মাখিয়ে রাখুন। ডিম ভেঙ্গে ফাটিয়ে নিন। কাঁচা মরিচ লম্বালম্বি করে কাটুন।

০৩। গাজরগুলো সিদ্ধ করে নরম করে নিন। অন্য সবজি সিদ্ধ করার দরকার নেই। এভাবে সব কিছু হাতের কাছেই তৈরি করে রাখুন।

০৪। এবার চাল পানিতে সামান্য লবণ দিয়ে সিদ্ধ করে ফুটিয়ে নিন। চাল ৯০% সিদ্ধ হবে অর্থাৎ বেশি নরমও নয়, আবার বেশী সিদ্ধ ও নয়!

০৫। ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে চাল গুলো ঝরঝরে করে ফেলুন এবং চালনিতে নিয়ে পানি ঝরিয়ে রেখে দিন।

০৬।তেল গরম করার পর কয়েকটা কাঁচা মরিচ দিয়ে ডিম গুলোর ঝুড়ি বানিয়ে ফেলুন। খুন্তি দিয়ে গুড়া গুড়া করে ফেলবেন। লক্ষ্য রাখবেন যেন ঝর ঝরে হয়ে যায়।

০৭। এবার মেইন ডিশ রান্নার জন্য কড়াইতে তেল গরম করুন, এক চামচ ঘি দিতে পারেন। প্রথমে তেল গরম হয়ে গেলে এক চিমটি লবন দিয়ে পেয়াজ কুচি ও আদা বাটা ভাজুন এবং চিকেন ও চিংড়ী গুলো দিয়েও ভেজে নিন। কয়েকটা কাঁচা মরিচ দিয়ে দিতে পারেন। চিকেন সিদ্ধ হয়ে চমৎকার রং হয়ে যাবে।

০৮। এবার এতে আস্তে আস্তে সবজি দিতে থাকুন এবং ভাজুন। সব সবজি দিয়ে দিন।

০৯। সবজি গুলো সিদ্ধ হয়ে সুন্দর  রং ধরে যাবে। ঝাল দেখে নিন। চাইলে আরো কাঁচা মরিচ দিতে পারেন।

১০।এবার পানি ঝরিয়ে রাখা চাল অর্ধেক দিয়ে দিন। মিক্স করতে থাকুন। বাটিতে থাকা কয়েক চামচ মিক্স সস দিন এবং নাড়ুন।

১১।আবারো কিছু চাল দিন। বাকী মিক্স সস দিয়ে দিন। এভাবে অর্ধেক করে চাল এবং সস দেয়ার কারন হচ্ছে যাতে সব ভাল করে মিক্স হয়।

১২। খুন্তি দিয়ে নাড়িয়ে ভালো করে সস মিক্স করে নিন। চাল দেখে নিন। এবার ডিমের ঝুরি যা আগে করে রাখা হয়েছিল তা দিয়ে দিন। এবং নাড়ুন।

১৩। লবণ দেখে নিন।সব ঠিক থাকলে নামিয়ে নিন । হয়ে গেল সুস্বাদু মজাদার মিক্সড ফ্রাইড রাইস রেসিপি।

# পারফেক্ট চাইনিজ ফ্রাইড চিকেন রেসিপি:

উপকরণ:

  • ০১। হাড় চামড়া সহ মুরগি – ১ কেজি
  • ০২। টেস্টিং সল্ট – ১ চা চামচ
  • ০৩। বেকিং সোডা – ১ চা চামচ
  • ০৪। ওয়েস্টার সস – ১ চা চামচ
  • ০৫। কাল গোল মরিচ গুঁড়া – ১ চা চামচ
  • ০৬। চিলি সস – ২ টেবিল চামচ
  • ০৭। কর্ণ ফ্লাওয়ার – ২ টেবিল চামচ
  • ০৮। লবন – ১/৪ চা চামচ

চিকেন বড় বড় টুকরা করে সব উপকরণ দিয়ে মেরিনেট করে রাখুন ১০-১২ ঘন্টা ।

ব্যাটার :

  • ০১। লাল গুঁড়া মরিচ – ১ চাচামচ
  • ০২। সাদা গোল মরিচ গুঁড়া – ১ চা চামচ
  • ০৩। চিলি সস – ১ টেবিল চামচ
  • ০৪।  আটা বা ময়দা – ১/২ কাপ
  • ০৫। কর্ণ ফ্লাওয়ার – ২ টেবিল চামচ
  • ০৬। বেকিং পাউডার – ১ চা চামচ
  • ০৭। লবন স্বাদ অনুযায়ী
  • ০৮। টেস্টিং সল্ট – ১ চা চামচ
  • ০৯। অল্প পরিমান পানি

( সব উপকরণ একসাথে মিশান এবং পরিমাণ মতো পানি দিয়ে ঘন ব্যাটার তৈরি করুন । )

কোটিং :

  • ০১। কর্ণফ্লেক্স – ১ কাপ
  • ০২। চিপস – ১ কাপ
  • ০৩। ব্রেডক্রাম্ব – ১ কাপ

( সব এক সাথে মিশিয়ে গুঁড়া করে নিন । বেশি গুঁড়া করবেন না ।)

  • ০৪। তেল – ভাজার জন্য

প্রনালি :

– মেরিনেট করা চিকেন ১০ মিনিট স্ট্রিম করে নিন।

– কোটিং একটি প্লাস্টিকের প্যাকেটে নিন ।

– এবার চিকেন ব্যাটার এর মধ্যে ভাল করে ডুবিয়ে নিন ।

– ব্যাটার এ ভাল করে মিশানোর পর কোটিং এর প্যাকেটে চিকেনগুলো দিয়ে ভাল করে ঝাকাতে থাকুন ।

– এবার ভাল ভাবে ডুবো তেলে অর্ধেক ভেজে নিন ।

– অল্প বাদামি কালার হয়ে হয়ে আসলে নামিয়ে টিস্যুর উপর রাখুন ।

– মোটা কেটিং এর জন্য আবার ও ব্যাটার এর মধ্যে ভাল করে ডুবিয়ে নিন পরে কটিং এর প্যাকেট মধ্যে দিয়ে  ভালোভাবে  ঝাকিয়ে নিন ।

– এবার ডুবো তেলে মচমচে বাদামি কালার করে ভেজে তুলুন।

তাহলে এখন থেকে আর রেস্টুরেন্ট এ না গিয়ে ঘরেই বানান চাইনিজ এর এই মজাদার তিনটি রেসিপি আর উপভোগ করুন আপনজন দের সাথে।

মন্তব্যসমূহ

আমি একজন শিক্ষার্থী। নতুন কিছু সম্পর্কে জানতে ও শিখতে ভালোবাসি এবং অন্যদের সাথে সেটা শেয়ার করতে ভালো লাগে।

মন্তব্য করুন