ফর্সা ত্বক এর অনন্য উপাদান আলু

ফর্সা ত্বক এর অনন্য উপাদান আলু

একটু ফর্সা হবার জন্য মেয়েরা কত কিছুই না করে থাকে। ত্বকের শেড আরো কিছুটা হালকা করার জন্য আর ত্বককে উজ্জ্বল দেখানোর জন্য মাসে মাসে পার্লারে ছুটোছুটি করাটা এখন অতি স্বাভাবিক ব্যাপার। আর পার্লারে ট্রীটমেন্ট নেয়া মানেই পকেটের উপর বেশ ভারী একটা চাপ তো অবশ্যই পড়বে। শুধু তাই না। স্কিন স্পেশালিস্টরা কিন্তু আমাদেরকে অন্ধ ভাবে শুধু পার্লারের ট্রীটমেন্ট নিতে মানা করে থাকেন। কারণ পার্লারে যেসব কেমিকেল ব্যবহার করা হয় তার মধ্যে বেশিরভাগই খুব কড়া প্রকৃতির হয়ে থাকে। আর মাসের পর মাস এগুলো নিয়মিত ব্যবহার করলে আমাদের ত্বকে তা বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে। একারণেই নিয়মিত পার্লার ট্রীটমেন্ট নেয়ার পর হটাত ট্রীটমেন্ট নেয়া বন্ধ করে দিলে দেখবেন আপনার স্কিন হটাত করেই খারাপ হয়ে যাচ্ছে। এজন্যই শুধু শুধু নিজের কষ্টের টাকা পার্লারের পিছনে খরচ না করে আমাদের উচিত ত্বকের যত্নে যতটা সম্ভব প্রাকৃতিক উপাদানের উপর ঝুকে পড়া। আমাদের রান্নাঘরেই এমন অনেক উপকরণ অবহেলায় পড়ে আছে যেগুলো নিয়মিত ব্যবহার করে আপনি অতি সহজেই ফর্সা ত্বক পেতে পারেন। আর এসব উপাদান ব্যবহারের কোন সাইড ইফেক্টও নেই। আর বাড়তি পাওনা বেচে যাওয়া পকেট খরচ তো আছেই। আজ আমি আপনাদের সাথে এমন একটি অসাধারণ উপাদান নিয়েই কথা বলব। এটি হচ্ছে বাঙালির অতি প্রিয় আর অতি সহজলভ্য সবজি আলু। এমন কোন বাসা বোধহয় খুজে পাওয়া যাবে না যেই বাসার রান্নাঘরে কোন আলু নেই। আর এই সবজিটি সারা বছরই মোটামুটি সস্তা থাকে। কাজেই সাশ্রয়ে ফর্সা হতে চাইলে আলুর কোন বিকল্প নেই। চলুন দেরী না করে ফর্সা ত্বক এর জন্য আলুর নানা রকম ফেস প্যাক সম্পর্কে জেনে নেই।

ফর্সা ত্বক পেতে আলুর ১ম প্যাক

১ চা চামচ আলুর রস আর ১ চা চামচ লেবুর রস নিতে হবে। এর সাথে ১/২ চা চামচ মধু খুব ভাল করে ফেটে মিশিয়ে নিতে হবে। হালকা হাতে ঘুড়িয়ে ঘুড়িয়ে ম্যাসাজ করে এই প্যাকটি আপনার মুখে লাগিয়ে নিন। ১৫ মিনিটের জন্য প্যাকটি লাগিয়ে রাখুন। তারপর পানি দিয়ে মুখ পরিস্কার করে ফেলুন। এই প্যাকটি আপনার স্কিন থেকে বাড়তি তেল শুষে নিয়ে স্কিনকে পরিস্কার করবে। সেই সাথে ত্বকের ট্যান দূর করে ত্বককে ধীরে ধীরে ফর্সা করে তুলবে।

ফর্সা ত্বক পেতে আলুর ২য় প্যাক

অর্ধেকটা আলু নিন। আর সাথে নিন সমপরিমাণ শশা। এবার এই দুটো উপকরণ ব্লেন্ডারে খুব ভাল করে ব্লেন্ড করে নিন। খেয়াল রাখবেন যেন ভাল করে ব্লেন্ড হয়ে যায়। কোন দানা ভাব না থাকে। এবার এই মিশ্রণে ১/২ চা চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে নিন। রেডি আপনার জন্য অসাধারণ একটি হোমমেড ফেস ওয়াশ। এটি মুখে লাগিয়ে মিনিট পাঁচেক হালকা হাতে ম্যাসাজ করুন। তারপর দেখুন চমক। এই ফেস ওয়াশ শুধু আপনার মুখের ময়লাই দূর করবে না। বেকিং সোডা থাকার কারণে এটি ত্বককে গভীর থেকে পরিস্কার করবে। ত্বকের বাড়তি তেল শুষে নিবে। আর সেই সাথে ত্বকের উপর পড়ে যাওয়া দীর্ঘমেয়াদী ট্যান দূর করে আপনার ত্বককে আরো ফর্সা ও উজ্জ্বল করে তুলবে। তবে এই ফেস ওয়াশ ব্যবহারের সময় একটু সতর্কতা বজায় রাখতে হবে। এটি বানানোর সাথে সাথে ব্যবহার করতে হবে। যেহেতু ফেস ওয়াশটিতে বেকিং সোডা আছে তাই এটি বানিয়ে ফেলে রাখলে বেকিং সোডা তার গুণাগুণ হারিয়ে ফেলবে। ফলস্বরূপ ফেস ওয়াশটি ব্যবহার করে খুব একটা কাজ হবে না। তাই ফেস ওয়াশটি ব্যবহারের যথাযথ ফল পেতে এটি বানানোর সাথে সাথেই ব্যবহার করুন। আর দিনে একবারের বেশি এই ফেস ওয়াশ ব্যবহার করবেন না। তাহলে ত্বক রুক্ষ হয়ে যাবার ভয় থেকেই যায়।

ফর্সা ত্বক পেতে আলুর ৩য় প্যাক

একটা ছোট আলু নিন। খুব ভাল করে গ্রেট করে নিন। এর সাথে ১/২ চা চামচ গোলাপ জল মেশান। গোলাপ জল যদি বাসায় বানানো যায় তাহলে খুবই ভাল হয়। তা না হলে ভাল কোন ব্রান্ডের গোলাপ জল কিনে নিন। এবার এই প্যাকটি মুখে লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট। এরপর ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। দেখবে ত্বক অনেক উজ্জ্বল দেখাচ্ছে। সম্ভব হলে এই প্যাকটি প্রতিদিন মুখে লাগান। আস্তে আস্তে ত্বক উজ্জ্বল হয়ে উঠবে।

ফর্সা ত্বক পেতে আলুর ৪র্থ প্যাক

একটি ছোট আলু গ্রেট করে নিন। এবার এই গ্রেট করা আলু থেকে রস বের করে নিন। এক চা চামচ পরিমাণ রস হলেই হবে। ১ চা চামচ ঘন টকদই নিন। এবার টকদই এর সাথে আলুর রস মিশিয়ে নিন। মুখে আর গলায় টকদই ও আলুর মিশ্রণ লাগান। ২০ মিনিট রেখে দিন। এরপর হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ আর গলা পরিস্কার করে ফেলুন। দেখবেন ত্বক অনেক উজ্জ্বল লাগছে দেখতে। প্রতিদিন একবার করে এই প্যাকটি লাগাবেন। চেষ্টা করবেন রাতে এই প্যাকটি মুখে লাগাতে। দুই থেকে তিন সপ্তাহের মধ্যে ত্বকের রঙ এক থেকে দুই শেড হালকা হয়ে যাবে।

ফর্সা ত্বক পেতে আলুর ৫ম প্যাক

একটা আলুর গ্রেট করে রস বের করে নিন। এর সাথে একটা ডিমের সাদা অংস মেশান। খুব ভাল করে ডিমটি ফেটিয়ে নিন। ডিমের সাদা অংশ আর আলুর রস ভালমত মিশে গেলে প্যাকটি মুখে এবং গলায় লাগিয়ে নিন। প্যাক শুকিয়ে গেলে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে প্যাকটি উঠিয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একদিন এই প্যাকটি ব্যবহার করুন। মাসখানেকের মধ্যেই আপনার ত্বক অনেক ফর্সা হয়ে যাবে। যেহেতু ডিমের সাদা অংশ ব্যবহার করা হয়, তাই এই প্যাকটি শুধু আপনার রঙ ফর্সা করবে তাই নয়, এটি আপনার ত্বককে টানটান করে ত্বকে ভাজ পড়ে যাওয়াকে প্রিভেন্ট করবে। তবে এই প্যাকটি লাগালে কিছু সতর্কতা অবলম্বন করা খুবি জরুরী। প্রথমত এই প্যাক লাগিয়ে কোন ভাবেই কথা বলা যাবে না। তা হলে হীতে বিপরীত হবে এবং মুখের ত্বকে ভাজ পড়ে যাবে। আর অবশ্যই হালকা গরম পানি দিয়ে প্যাকটি পরিস্কার করতে হবে। ঠান্ডা পানি দিয়ে পরিস্কার করতে গেলে অনেক সময় লাগবে আর প্যাকটি ঠিকমত পরিস্কারও হবে না।

ফর্সা ত্বক পেতে আলুর ৬ষ্ঠ প্যাক

এই প্যাকটি মূলত শুষ্ক ত্বকের অধিকারীদের জন্য বেশি উপকারী। আপনার ত্বক যদি তৈলাক্ত হয় তবে শীতকাল ছাড়া এই প্যাকটি ব্যবহার করবেন না। ১/২ চা চামচ মধু নিন। এর সাথে ১/২ চা চামচ অলিভ অয়েল মিশান। বেশ ভাল করে ফেটিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রণে ১ চা চামচ আলুর রস মিশিয়ে নিন। এই প্যাকটি আপনার মুখে লাগিয়ে রাখুন ১০ মিনিট। এরপর হালকা হাতে দু মিনিট ম্যাসাজ করে নিন। তারপর মুখ পানি দিয়ে খুব ভাল করে পরিস্কার করে তোয়ালে দিয়ে মুছে নিন। ত্বকের চমক আর কোমলতা দেখে নিজেই অবাক হয়ে যাবেন।

ফর্সা ত্বক পেতে আলুর ৭ম প্যাক

১ চা চামচ কাঁচা দুধ নিন। এর সাথে ১ চা চামচ আলুর রস মিশিয়ে নিন। এই প্যাকটি ত্বকে লাগান। যেহেতু এই প্যাকটি একদম পানি পানি তাই হাত দিয়ে অল্প অল্প করে মুখে লাগান। ব্রাশ দিয়ে লাগাবেন না। দুই থেকে তিন মিনিট পর প্যাকটি শুকিয়ে আসলে আবার অল্প করে লাগান। এভাবে ১০ থেকে ১৫ মিনিটে প্যাকটি শেষ হয়ে যাবে। তখন মুখ ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন ত্বক কতটা উজ্জ্বল হয়ে গেছে। এভাবে রোজ এই প্যাকটি লাগান।

ফর্সা ত্বক পেতে আলুর ৮ম প্যাক

অর্ধেকটা গাজর ব্লেন্ড করে নিন। এর সাথে দুই চা চামচ আলুর রস মেশান। মুখে গলায় লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট। এরপর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত দুইদিন ব্যবহার করুন।

ফর্সা ত্বক পেতে আলুর ৯ম প্যাক

এক চা চামচ ম্যাশ করা স্ট্রবেরির সাথে এক চা চামচ ম্যাশ করা আলু নিন। এটি মুখে লাগিয়ে রাখুন ১৫ থেকে ২০ মিনিট। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুই থেকে তিন দিন ব্যবহার করুন।

ফর্সা ত্বক পেতে আলুর ১০ প্যাক

দুই চা চামচ আলুর রস নিন। এর সাথে এক চা চামচ মুলতানি মাটি মিশিয়ে নিন। মুখে লাগিয়ে রাখুন শুকিয়ে যাওয়া না পর্যন্ত। এরপর ধুয়ে ফেলুন। এটি শুধু ত্বক ফর্সাই করে না। ত্বকের অতিরিক্ত তেল শুষে নিয়ে ত্বককে প্রাণোবন্ত করে তোলে।

ফর্সা ত্বক পেতে আলুর ১১তম প্যাক

১ চা চামচ আলুর রস আর ১ চা চামচ টমেটোর রস নিন। ভাল করে গুলে নিয়ে মুখে ও গলায় লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট। এরপর ত্বক ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন ত্বক কতটা উজ্জ্বল হয়ে গেছে। ভাল ফল পেতে সপ্তাহে তিন দিন এই প্যাকটি ব্যবহার করুন।

 

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

মন্তব্য করুন