ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরার উপকারিতা

ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরার উপকারিতা

হাজার হাজার বছর ধরে রূপচর্চায় অ্যালোভেরা ব্যবহার হয়ে আসছে। এর কারণ আর কিছুই না। শধু মাত্র অ্যালোভেরার মেডিসিনাল এবং হিলিং প্রোপার্টিজ। অ্যালোভেরা আসলে একটু মোটা ও ছোট পাতা ওয়ালা গাছ। এই গাছটি নিজের পাতার মধ্যে পানি সহ অন্যান্য হাজার রকমের পুষ্টি গুণ ধরে রাখে। বড় বড় নামী দামী ব্রান্ডের কসমেটিক্স কোম্পানি গুলা তাদের বিভিন্ন সৌন্দর্য বর্ধন প্রোডাক্টে নানা ভাবে এই অ্যালোভেরা ব্যবহার করে থাকে। সাধারণত এই অ্যালোভেরা গাছের পাতার মধ্যে যেই পানি ভর্তি টিস্যু থাকে, যেটাকে আমরা অ্যালোভেরা জেল বলে চিনি, সেটিই মূলত এসব কসমেটিক্স এ ব্যবহার করা হয়ে থাকে। অ্যালোভেরা জেলে আছে ভরপুর পরিমাণে নানা রকম ভিটামিনস, মিনারেলস, এমিনো এসিড এবং এন্টি অক্সিডেন্ট প্রোপার্টিজ। আর আমরা সবাই জানি যে এই সব উপাদান আমাদের ত্বকে জাদুর মত কাজ করে। আমাদের ত্বকে অ্যালোভেরা জেল কতটা উপকারি প্রভাব ফেলে তা জনলে আপনি হয়তো অবাক হয়ে যাবেন। চলুন দেরি না করে ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরার উপকারিতা সম্পর্কে কিছু তথ্য জেনে নেই।

ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরার উপকারিতা

অ্যালোভেরার মধ্যে আছে এন্টি অক্সিডেন্ট এবং এন্টি ব্যাকটেরিয়াল প্রোপার্টিজ

অ্যালোভেরার মধ্যে আছে পাওয়ার ফুল এন্টি অক্সিডেন্ট যেটি মূলত পলিফেনল নামক একটি গ্রুপের অংশ। কিছু কিছু ব্যাকটেরিয়া আছে যাদের আক্রমণে ত্বকে ইনফেকশন আর জ্বালাপোড়া হতে পারে। অ্যালোভেরার মধ্যে থাকা এই পলিফেনল এসব ব্যাকটেরিয়াকে একদম গভীর থেকে নিশ্চিহ্ন করে দেয়। ফলে ত্বকে আর জ্বালা পোড়া কিংবা ইনফেকশন হয় না।

পোড়া ভাব কমানো দ্রুততর করে

এই গরমে সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মির প্রভাবে ত্বক কালো হয়ে যাওয়া খুবই স্বাভাবিক একটা ঘটনা। তবে কারো কারো ক্ষেত্রে স্কিন এই সূর্যের তাপ একেবারেই সহ্য করতে পারেন। ফলে তাদের স্কিন অনেক সময় পুড়ে যায়। অ্যালোভেরা জেল এই সান বার্নের হাত থেকে আপনাকে উদ্ধার করতে পারে। নিয়মিত ত্বকে অ্যালোভেরা জেল ব্যবহার করুন যদি আপনি ইতিমধ্যে সান বার্নে আক্রান্ত হয়ে থাকেন। অ্যালোভেরা জেল খুব অল্প সময়ের মধ্যেই আপনার ত্বকের সান বার্ন কমিয়ে আনবে।

বলিরেখা প্রতিরোধ করে

নিয়মিত অ্যালোভেরা জেলের ব্যবহার আপনার ত্বককে দীর্ঘ দিন বলিরেখা মুক্ত রাখতে সাহায্য করে থাকে। আপনি যদি নিয়মিত মুখে অ্যালোভেরা জেল মাখেন তাহলে এটি আপনার মুখে সহজে বলিরেখা পড়তে দেয় না। ফলে আপনার চেহারায় বয়সের ছাপ পড়ে না।

একনে ও ব্রণ দূর করতে অ্যালোভেরা জেল

আমাদের ত্বকে একনে আর জেদী ব্রণ ও ব্রণের দাগ দূর করতে অ্যালোভেরা জেল খুব ভাল কাজে দেয়। শুধু তাই নয়। অ্যালোভেরা জেল আমাদের ত্বকে নতুন করে একনে ও ব্রণ তৈরী হওয়া রোধ করতেও সাহায্য করে।

প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজার হিসেবে অ্যালোভেরা জেল

অ্যালোভেরা জেল আমাদের ত্বকের জন্য খুব ভাল একটি প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজার হিসেবে কাজ করতে পারে। আপনি গোসলের পর কিংবা রাতে ঘুমাতে যাবার আগে অন্যান্য সাধারণ লোশন কিংবা ক্রীমের মতই অ্যালোভেরা জেল ময়শ্চারাইজার হিসেবে ব্যবহার করে দেখুন। ত্বক তো কোমল ও নরম হবেই। সেই সাথে এটি আপনার পকেটের জন্যও সাশ্রয়ী হবে।

ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরা যেভাবে ব্যবহার করবেন

এখন বাজারে ছোট বড় বিভিন্ন সাইজের কন্টেইনারে রেডিমেড অ্যালোভেরা জেল কিনতে পাওয়া যায়। এরকম যে কোন একটি ব্রান্ডের অ্যালোভেরা জেল কিনে আপনি ব্যবহার করা শুরু করে দিতে পারেন। তবে বাজারের এসব অ্যালোভেরা জেল ব্যবহারে কিছু কিছু ঝুকি তো থেকেই যায়। এসব ঝুকি নিয়ে কথা বলতে গেলে প্রথমেই বলতে হবে এসব অ্যালোভেরা জেলের পিওরিটির কথা। এসব অ্যালোভেরা জেলের কৌটার মধ্যে আসলে অ্যালোভেরা জেলথাকে নাকি অন্য কিছু তা আমরা জানি না। আর সবচেয়ে বড় কথা এসব কৌটার অ্যালোভেরা জেলের মধ্যে দীর্ঘ দিন সংরক্ষণের জন্য প্রিজারবেটিভ সহ নানা রকন কেমিকেল দেয়া থাকে। ঐসব কেমিকেল্র মধ্যে কিছু কিছু কেমিকেলের দীর্ঘ দিন ব্যবহার আমাদের ত্বকের জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে উঠতে পারে।

তাছাড়া এখন বাজারে নানা রকম নকল পণ্যে সয়লাব হয়ে গেছে। এজন্য আপনি হয়তো সরল মনে একটা নামী ব্রান্ডের অ্যালোভেরা জেল কিনলেন। কিন্তু এটা আদতে নকল নাকি আসল তা নিশ্চিত হবার আসলেই কোন উপায় নেই। আর একটা নকল পণ্য যদি রোজ আপনি আপনার স্কিনে ব্যবহার করেন তাহলে এর ফল কি হবে তা সহজেই অনুমান করা যায়।

এসব কারণে আমাদের সবার উচিত বাজারের বোতলজাত অ্যালোভেরা জেল ব্যবহার না করে সরাসরি গাছ থেকে অ্যালোভেরা পাতা তুলে সেই অ্যালোভেরা জেল ব্যবহার করা। এজন্য আপনাকে প্রথমে গাছের একটা পাতা আস্তে করে গোড়া থেকে কেটে নিতে হবে। এরপর পাতাটি মাঝ বরাবর লম্বালম্বি ভাব কেটে নিতে হবে। তারপরে একটা চামচ দিয়ে পাতার মধ্যকার জেলটি তুলে নিতে হবে। এই বার এই অ্যালোভেরা জেল অন্যান্য সাধারণ লোশন কিংবা ক্রীমের মত করেই আপনার মুখে বা শরীরের অন্যান্য অংশে লাগাতে হবে। আপনি ইচ্ছা হলে এই ভাবেই সারা রাত অ্যালোভেরা জেল রেখে দিতে পারেন। আর যদি আপনি অ্যালোভেরা জেল লাগিয়ে ঘুমাতে অস্বস্তি বোধ করেন তবে অন্তত আধা ঘন্টা এই জেল লাগিয়ে রেখে পানি দিয়ে ধুয়ে পরিস্কার করে নিতে পারেন।

ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরা জেল ব্যবহারের সতর্কতা

একটা ব্যাপার খেয়াল রাখবেন। অ্যালোভেরা পাতা কেটে বেশিক্ষণ রেখে দিলে তা বাতাসের অক্সিজেনের সাথে বিক্রিয়া করতে শুরু করে দেয়। এজন্য অ্যালোভেরা পাতা কেটে জেল বের করার ১০ থেকে ১৫ মিনিটের মধ্যে চেষ্টা করবেন অ্যালোভেরা জেলটি ব্যবহার করে ফেলতে।

 

 

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

মন্তব্য করুন