মজাদার দই আলু রেসিপি

মজাদার দই আলু রেসিপি

এমন একটি সবজির নাম কি বলতে পারবেন যেটা সারা বছর আমাদের দেশের সব বাজারে পাওয়া যায়। তাও আবার অতি সস্তা দামে। জি হ্যা একদম ঠিক ধরেছেন। এই সবজিটা হচ্ছে আলু। আর বিভিন্ন রকম সবজির মধ্যে এই সবজিটাই মনে হয় সবাই পছন্দ করে খায়। এজন্য কোথাও কোন আনকমন আলুর রেসিপি দেখলেই আমি সেটা অবশ্যই ট্রাই করে দেখি। এরকমই একটি আনকমন রেসিপি হচ্ছে দই আলু।

দই আলু আমার জানা অন্যতম সহজ একটা আলুর রেসিপি। এটি বানানো অত্যন্ত সোজা। সেই সাথে দই আলু বানাতে সময় লাগেও অনেক কম। অথচ এর টেস্ট অসাধারণ। এই দই আলু কিন্তু আমাদের দেশীয় কোন খাবার না। এটি মূলত ভারতের পাঞ্জাব প্রদেশের একটা রেসিপি। অনেকেই এই দই আলু পেঁয়াজ রসুন ছাড়া বানিয়ে থাকেন। তবে আমি এই দই আলু পেঁয়াজ আর রসুন যোগ করেই বানিয়ে থাকি। আসুন এই পাঞ্জাবি দই আলু রেসিপি কিভাবে বানাতে হয় তা দেখে নেই। তবে তার আগে এইরেসিপিটি বানাতে কি কি উপকরণ দরকার হবে তা জেনে নেয়া যাক।

দই আলু বানাতে যে যে উপকরণ প্রয়োজন হয়

টকদই মিশ্রণ বানাতে যা যা লাগবে

  • টকদই ১ কাপ
  • বেসন ২ থেকে ২.৫ টেবিল চামচ
  • পানি ১ কাপ

দই আলু বানাতে আর যা যা লাগবে

  • আলু ৩টা মিডিয়াম সাইজ
  • সয়াবিন তেল ২ টেবিল চামচ
  • আস্ত জিরা ১/২ চা চামচ
  • মিহি করে কুচি করা পেঁয়াজ ২ তেবিল চামচ
  • মিহি করে কুচি করা রসুন ১ চা চামচ
  • মিহি করে কুচি করা আদা ১ চা চামচ
  • মিহি করে কুচি করা কাঁচা মরিচ ১ চা চামচ
  • মিহি করে কুচি করা টমেটো ২ টেবিল চামচ
  • কারি পাতা ৬ থেকে ৮টি
  • হলুদ গুড়া ১/২ চা চামচ
  • লাল মরিচ গুড়া ১ চা চামচ
  • ভাজা জিরা গুড়া ১/২ চা চামচ
  • ভাজা ধনে গুড়া ১/২ চা চামচ
  • ভাজা গরম মশলা গুড়া ১/২ চা চামচ
  • হিং খুব সামান্য পরিমাণ এক চিমটি
  • লবণ পরিমাণ মত

দই আলু যেভাবে রান্না করতে হবে

১ম ধাপ

প্রথমে আলু গুলোকে ভাল করে ধুয়ে পরিস্কার করে নিতে হবে। এরপর এগুলো সিদ্ধ করতে দিতে হবে। আপনি সময় বাচানোর জন্য প্রেসার কুকারেও সিদ্ধ করতে দিতে পারেন। সেক্ষেত্রে মিডিয়াম আঁচে তিনটা সিটি উঠা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তারপর আলু গুলো থেকে খোসা ছিলে ফেলতে হবে। এরপর হাত দিয়ে আলু গুলো হালকা ভেঙ্গে নিতে হবে। একদম ভর্তা করে ফেললে হবে না। কিছুটা আস্ত ভাব থাকতে হবে।

২য় ধাপ

আরেকটা পাত্র নিতে হবে। এর মধ্যে প্রথমে টকদই নিয়ে একটু ফেটে নিতে হবে। এর মধ্যে এরপর বেসন দিতে হবে। ভাল করে ফেটে নিতে হবে। একটা ব্যাপার খুব খেয়াল রাখতে হবে। টকদই ও বেসনের মিশ্রনে যেন কোন লাম্পস না থাকে। এরপর এর মধ্যে প্রয়োজন মত পানি দিতে হবে। আর একটু গুলে নিতে হবে।

৩য় ধাপ

কড়াতে তেল গরম করতে দিতে হবে। তেল গরম হলে আস্ত জিরা ফোড়ন দিতে হবে। আস্ত জিরা ফুটে উঠে কালার চেঞ্জ হয়ে গেলে মিহি করে কুচি করে রাখা পেঁয়াজ দিয়ে দিতে হবে। পেঁয়াজ কুচি একটু নরম নরম হয়ে গেলে আদা কুচি আর রসুন কুচি দিয়ে দিতে হবে। অনেকে খাবারে আদা মুখে পড়লে খুব বিরক্ত বোধ করে থাকেন। আপনি কিংবা আপনার পরিবারের কোন সদস্য যদি এমন হয়ে থাকেন তাহলে আদা কুচি ব্যবহার করবেন না। আদা কুচির বদলে এর অর্ধেক পরিমাণে ১/২ চা চামচ পরিমাণে আদা বাটা ব্যবহার করতে পারেন। একি সাথে মিহি করে কুচি করে রাখা কাঁচা মরিচও দিয়ে দিতে হবে। লাল লাল করে এই মশলা গুলো ভাজতে হবে।

এই মশলা গুলো সুন্দর করে ভাজা হয়ে গেলে এক চিমটি হিং আড় কারি পাতা যোগ করে দিতে হবে। এরপর মিহি করে কুচি করে রাখা টমেটোও যোগ করে দিতে হবে। টমেটো গলে গেলে হলুদ গুড়া, লাল মরিচ গুড়া, ভাজা জিরা গুড়া আর ভাজা ধনে গুড়া দিয়ে দিতে হবে। ভাল করে কষাতে হবে। এরপর হালকা ভাঙ্গা আলু সিদ্ধ যোগ করে দিতে হবে। দুই থেকে তিন মিনিট পর্যন্ত কষাতে হবে।

এবার গুলে রাখা টকদই ও বেসনের মিশ্রণ এর মধ্যে ঢেলে দিতে হবে। খুব ভাল করে নেড়ে চেড়ে রান্না করে নিতে হবে। একটু ফুটে উঠলে চুলার জ্বাল একদম কমিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। আট থেকে দশ মিনিট মত রান্না করতে হবে। এরপর একতা সার্ভিং ডিশে ঢেলে গরম গরম পরিবেশন করতে হবে মজাদার ভিন্ন স্বাদের দই আলু।

 

 

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

১ টি মন্তব্য
  1. Reply সহজ ও মজাদার আলু চোখা রেসিপি | চটপট - এসো নিজে করি মে ১২, ২০১৮ তারিখে ৬:২০ অপরাহ্ন

    […] মধ্যেকার কোন খাবার এটি নয়। এই আলু চোখা হচ্ছে ভারতের রাজস্থানের একটি […]

মন্তব্য করুন