মজাদার পাকা আমের হালুয়া

মজাদার পাকা আমের হালুয়া

আসি আসি করে পাকা আমের সময় কিন্তু প্রায় এসেই গেল। এখন যদিও বাজারে পাকা আম খুব একটা উঠে পারেনি। আমাদের আশে পাশের ফলের দোকান গুলোতে এখনো কাঁচা আমের সংখ্যাই বেশি। কিন্তু আর কিছুদিন অপেক্ষা করুন। দেখতে দেখতেই পাকা আমে আর কয় দিনের মধ্যেই আমাদের চারপাশের ফলের দোকান গুলো ভর্তি হয়ে যাবে। আর এই জন্যই আজ আমার খুব প্রিয় একটি পাকা আমের রেসিপি আপনাদের সাথে আমি শেয়ার করতে চলেছি। সেটি হচ্ছে মজাদার পাকা আমের হালুয়া।

পাকা আম দিয়ে আসলে অনেক রকম খাবারই বানানো যায়। তবে আমরা পাকা আম দিয়ে মূলত বিভিন্ন রকম শরবতই বানিয়ে থাকি। কিন্তু চাইলে এই পাকা আম দিয়ে খুব মজার মজার ডেজার্ট আইটেম তৈরী করা যায়। এরকমই একটা ডেজার্ট আইটেম হচ্ছে মজাদার পাকা আমের হালুয়া। এই পাকা আমের হালুয়া বানাতে খুব কম উপকরণের প্রয়োজন হয়। আর এই রেসিপিটি বানানোও যথেষ্ঠ সহজ। হাতে গোনা মাত্র অল্প কিছু উপকরণ ব্যবহার করে আপনি খুব সহজেই এই পাকা আমের হালুয়া রেডি করে ফেলতে পারবেন। তাই আসুন আগে এই পাকা আমের হালুয়া বানাতে কোন কোন উপকরণ প্রয়োজন হবে তা জেনে নেই। সেই সাথে এটি কিভাবে বাসায় বসে অতি সহজে আপনি বানাতে পারবেন তাও জেনে নেয়া যাক।

পাকা আমের হালুয়া বানাবার জন্য যা যা উপকরণ লাগবে

  • পাকা আমের পিউরি দেড় কাপ
  • কর্ণফ্লাওয়ার ১/২ কাপ
  • পানি ১/২ কাপ
  • চিনি ৩/৪ কাপ
  • এলাচের গুড়া এক চিমটি
  • কাজু বাদাম ১০ থেকে ১২টি
  • পেস্তা বাদাম ১০ থেকে ১২টি
  • কাঠ বাদাম ১০ থেকে ১২টি
  • চিনা বাদাম ১০ থেকে ১২টি
  • ঘি ৫ টেবিল চামচ

পাকা আমের হালুয়া যে পদ্ধতিতে বানাতে হবে

১ম ধাপ

একটা বাটিতে কর্ণফ্লাওয়ার নিয়ে নিতে হবে। এর মধ্যে পানি মিশাতে হবে। খুব ভাল করে একটা কাটা চামচ দিয়ে নেড়ে চেড়ে কর্ণফ্লাওয়ারের সাথে পানি গুলে নিতে হবে। একটা ঘন পেস্ট তৈরী হবে।

২য় ধাপ

একটা ফ্রাইং প্যানে অল্প করে ঘি নিতে হবে। ঘি গরম হলে এর মধ্যে কাজু বাদাম, পেস্তা বাদাম, কাঠ বাদাম আর চিনা বাদাম দিতে হবে। হালকা করে সব রকম বাদাম ভেজে নিতে হবে। এই সময় চুলার আঁচ খব বেশি রাখা যাবে না। অল্প আঁচে এক ভাবে নেড়ে চেড়ে বাদাম গুলো ভেজে নিতে হবে। খুব বেশি জোর তাপে বাদাম গুলো ভাজতে গেলে পুড়ে যেতে পারে। বাদাম গুলো ভাজা হয়ে গেলে একটা হামান দিস্তা নিয়ে নিতে হবে। বাদাম গুলো হালকা ভেঙ্গে নিতে হবে। একবারে গুড়া গুড়া করে ফেলবেন না। শুধু মাত্র হালকা ভেঙ্গে নিতে হবে।

৩য় ধাপ

এবার একটা কড়াই চুলার উপর গরম করতে দিতে হবে। এতে বাকি ঘি টুকু গরম করে নিতে হবে। ঘি গরম হলে এর মধ্যে আমের পিউরি ঢেলে দিতে হবে। চিনিও এই সময়ে ঢেলে দিতে হবে। এই দুটি উপকরণ ঘি এর মধ্যে তিন থেকে চার মিনিট পাক দিতে হবে নেড়ে চেড়ে। এরপর এর মধ্যে গুলে রাখা কর্ণফ্লাওয়ার ঢেলে দিতে হবে। নেরে চেরে কিছুক্ষণ রান্না করতে হবে। এই সময় চুলার আঁচ মিডিয়াম রাখতে হবে। আর সমানে নেড়ে যেতে হবে। তা না হলে হালুয়া কড়াই এর নিচে লেগে যাবে।

প্রায় দশ থেকে পনেরো মিনিট এই ভাবে নেড়ে নেড়ে হালুয়া রান্না করতে হবে। তার পরে দেখতে পাবেন যে কড়ার গা থেকে হালুয়া খুলে খুলে আসছে। এই সময়ে বাদাম গুলো দিয়ে দিতে হবে। আরো দুই থেকে তিন মিনিট হালুয়া পাক দিতে হবে। এরপর চুলা বন্ধ করে দিতে হবে।

৪র্থ ধাপ

একটা প্লেটে ঘি মেখে নিতে হবে। এই প্লেটের উপর আমের হালুয়া সমান করে বিছিয়ে দিতে হবে। এরপর একটা ছুরি দিয়ে সমান চারকোণা আকারে কেটে নিতে হবে। একটা সার্ভিং প্লেটে সার্ভ করতে হবে মজাদার পাকা আমের হালুয়া।

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

মন্তব্য করুন