মজাদার পাকা কলার হালুয়া

মজাদার পাকা কলার হালুয়া

পাকা কলা খুব উপকারি একটা ফল। সেই সাথে এটি আমাদের দেশের সহজলভ্য ফল গুলোর মধ্যেও একটি। তাই আমাদের উচিত এই ফলটি বেশি বেশি করে খাবারের রুটিনে যোগ করা। বিশেষ করে বাচ্চাদের জন্য তো পাকা কলা অত্যন্ত উপকারি। এজন্য আমাদের উচিত নিয়মিত প্রত্যেক দিন অন্তত একটা করে কলা বাচ্চারা যেন খেয়ে নেয় সেদিকে লক্ষ্য রাখা। কিন্তু বাচ্চাদের ফল ফলারি খাবার অনীহার কথা আমাদের কারোরই অজানা নয়। বিশেষ করে কলা তো বাচারা খেতেই চায় না। সেক্ষেত্রে আপনি কলা দিয়ে বিভিন্ন রকম ডেজার্ট আইটেম বানিয়ে বাচ্চাদের দিয়ে দেখতে পারেন। বাচ্চারা ফল খেতে পছন্দ না করলেও ডেজার্ট খেতে কিন্তু খুবই পছন্দ করে থাকে। এজন্য আপনি যদি বিভিন্ন রকম ডেজার্ট আইটেম হসেবে কলা ব্যবহার করে থাকেন তাহলে বাচ্চারা নিজের ইচ্ছাতেই সেটি খেয়ে নেবে। আজ আমি এমনই একটি ডেজার্ট আইটেম আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চলেছি। এটি হচ্ছে মজাদার পাকা কলার হালুয়া।

এই রেসিপিটা আমি কিছুটা ঝোকের বশেই বানিয়েছিলাম। কোন প্লান করে বানাইনি। আমার রান্না ঘরে ফ্রুট বোলের মধ্যে দুই তিনটি খুব বেশি পেকে যাওয়া কলা ছিল। এত বেশি পেকে যাওয়া কলা তো আর শুধু শুধু খাওয়া যায় না। তখন মনে হল কেমন হয় যদি এই কলা গুলো দিয়ে একটু হালুয়া বানিয়ে দেখা যায়। যেই ভাবা সেই কাজ। পাকা কলা গুলো দিয়ে মজাদার পাকা কলার হালুয়া বানিয়ে ফেললাম। রেজাল্টটা কিন্তু খুব ভালই এসেছিল। আমার বাসার প্রত্যেকটা সদস্য খুব মজা করেই খেয়েছিল এই পাকা কলার হালুয়া।

এই পাকা কলার হালুয়া বানাতে কিন্তু খুব বেশি কিছু উপাদানের প্রয়োজন পড়ে না। আমি ম্যাশ করে নেয়া পাকা কলা, চিনি আর অতি সাধারণ কিছু হালুয়ার মশলা দিয়ে এই পাকা কলার হালুয়াটা বানিয়ে থাকি। আর একটা উপাদান কিন্তু অবশ্যই প্রয়োজন হয়। সেটি হচ্ছে খাটি ঘি। কারণ ঘি ছাড়া তো হালুয়ার কথা চিন্তাও করা যায় না। তাই না? আমার কাছে সাধারণত চাপা কলা বেশি থাকে তাই আমি চাপা কলা দিয়ে এই পাকা কলার হালুয়া বানিয়ে থাকি। আপনি আপনার পছন্দ মত যে কোন ধরনের কলা এই রেসিপিতে ব্যবহার করতে পারবেন। আসুন দেরি না করে কোন কোন উপকরণ কি পরিমাণে ব্যবহার করে এই পাকা কলার হালুয়া বানাতে হবে তা দেখে নেই। সেই সাথে কিভাবে এই পাকা কলার হালুয়া বানাতে হবে তাও দেখে নেই।

পাকা কলার হালুয়া বানাতে যা যা লাগবে

  • পাকা কলা ১টি থেকে ২টি বড় সাইজের
  • চিনি ১/৪ কাপ কিংবা আরো বেশি
  • ঘি ২ টেবিল চামচ
  • কাজু বাদাম ৩ টেবিল চামচ
  • এলাচ পাউডার ১/৪ চা চামচ

পাকা কলার হালুয়া যেভাবে বানাতে হবে

১ম ধাপ

প্রথমে পাকা কলা থেকে খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে। এরপর একটা বাটিতে এই কলা নিয়ে একটা কাটা চামচ এর সাহায্যে ম্যাশ করে নিতে হবে। আপনি ইচ্ছা হলে ব্লেন্ডার ব্যবহার করে দেখতে পারেন। তবে কলা বেশি পাকা হলে ব্লেন্ডার ব্যবহার করার প্রয়োজন হবে না। কাটা চামচেই পাকা কলা ম্যাশ করা যাবে।

২য় ধাপ

একটা ফ্রাইং প্যানে ১ চা চামচ ঘি গরম করে নিতে হবে। ঘিতে কাজু বাদাম গুলো হালকা ভেজে নিতে হবে। আপনার কাছে যদি কাজু বাদাম না থাকে তাহলে অন্য যে কোন ধরনের বাদাম আপনি ব্যবহার করতে পারেন। কাজু বাদাম হালকা ভাজা হয়ে গেলে নামিয়ে নিতে হবে। হামান দিস্তায় এই ভাজা বাদাম গুলা হালকা করে ভেঙ্গে নিতে হবে।

৩য় ধাপ

এবার আর একটা ফ্রাইং প্যানে বাকি ঘি টুকু গরম করতে দিতে হবে। ঘি গরম হলে এতে ম্যাশ করা কলা টুকু দিয়ে দিতে হবে। প্রায় তিন থেকে চার মিনিট স্যতে করতে হবে। পাকা কলা হালকা ভাজা ভাজা হলে চিনি যোগ করতে হবে। বেশ খানিক্ষণ এই ভাবে স্যতে করতে হবে।

পাকা কলা ও চিনির মিশ্রণ কিছুক্ষণ রান্না করার পর পরিমাণে একটু কমে আসবে। এই সময়ে দেখা যাবে কড়ার গা থেকেও পাকা কলার হালুয়া একটু একটু ছেড়ে ছেড়ে আসছে। এই সময়ে অল্প অল্প করে এক চা চামচ কিংবা দুই চা চামচ ঘি যোগ করতে হবে। দেখবেন এই সময়ে ঘি যোগ করার সাথে সাথেই পাকা কলার হালুয়াটা বেশ সুন্দর গ্লসি হয়ে গেছে।

পাকা কলার হালুয়া রান্নার এই পর্যায়ে এলাচের গুড়া ও আগে থেকে ভেজে আধা ভাঙ্গা করে রাখা কাজু বাদাম যোগ করতে হবে। আরো পাঁচ থেকে ছয় মিনিট নেড়ে চেড়ে হালুয়া রান্না করতে হবে। এরপর চুলা বন্ধ করে দিতে হবে।

৪র্থ ধাপ

একটা প্লেটে হাত দিয়ে ঘি মেখে নিতে হবে। এর উপর পাকা কলার হালুয়ার মিশ্রণ সমান ভাবে ছড়িয়ে দিতে হবে। একটা ছুরি দিয়ে সুন্দর করে চারকোণা পিস করে হালুয়া কেটে নিতে হবে।

সতর্কতা

হালুয়া বানাবার সময় চুলার আঁচ খুব বেশি জোরে দেয়া যাবে না। তাহলে পাকা কলার হালুয়া পুড়ে যাবার সম্ভাবনা থাকবে। আবার চুলার আঁচ একেবারে কমও রাখা যাবে না। তাহলে দেখা যাবে হালুয়া তৈরী হতে অনেক বেশি সময় লাগছে। মোটামুটি মিডিয়াম আঁচে পুরো হালুয়াটা রান্না করতে হবে।

অন্যান্য যেকোন হালুয়ার মত এই পাকা কলার হালুয়া রান্না করার বেলায়ও পুরোটা সময় খুনতি দিয়ে হালুয়াটা নাড়া চাড়া করতে হবে। তা না হলে হালুয়া কড়া কিংবা ফ্রাইং প্যানের তলায় লেগে যাবে। আর এক বার যদি হালুয়া কড়াই কিংবা ফ্রাইং প্যানের তলায় লেগে যায় তবে এর থেকে পোড় একটা গন্ধ আসসা শুরু করবে। ফলে পাকা কলার হালুয়ার পুরো স্বাদ আর গন্ধটাই নষ্ট হয়ে যাবে।

 

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

মন্তব্য করুন