মজাদার নবাবি বিরিয়ানি রেসিপি

মজাদার নবাবি বিরিয়ানি রেসিপি

বিরিয়ানি এমন একটা খাবার যেটা এক এক জন এক এক ভাবে বানিয়ে থাকে। আপনি এক এলাকা থেকে বিরিয়ানি খেয়ে অন্য এলাকায় যাবেন। দেখবেন বিরিয়ানির স্বাদ সম্পূর্ণ বদলে গেছে। এর কারণ হচ্ছে এলাকা ভেদে বিরিয়ানি বানাবার প্রক্রিয়া কিন্তু ভিন্ন ভিন্ন হয়। একে একে এলাকায় এক এক রকম মশলা ব্যবহার করা হয়। এরকমই একটা অন্য ধাচের বিরিয়ানির রেসিপি আজ এখানে শেয়ার করব। এই রেসিপিটি হচ্ছে মজাদার নবাবি বিরিয়ানি।

নবাবি বিরিয়ানি মূলত হায়দ্রাবাদি একটা ডিশ। আমরা সবাই জানি ভারতের হায়দ্রাবাদ বিরিয়ানির জন্য প্রচন্ড বিখ্যাত। সেখানে যে কত ধরনের কত নামের বিরিয়ানি বানানো হয় তার খোজ বোধ হয় কেউ দিতে পারবে না। এই বিরিয়ানি ভ্যারাইটির একটি হচ্ছে নবাবি বিরিয়ানি। এই রেসিপিতে প্রচুর পরিমাণে কিশমিশ ও বাদাম ব্যবহার করা হয়ে থাকে। নবাবি বিরিয়ানির নামকরণের এটি একটি বড় কারণ। এই নবাবি বিরিয়ানি মূলত চিকেন দিয়ে বানানো হয়। তবে অনেকেই আবার মাটন দিয়েও নবাবি বিরিয়ানি বানিয়ে থাকেন। আমি আজ আপনাদের সাথে চিকেন নবাবি বিরিয়ানির রেসিপি শেয়ার করব। আপনি ইচ্ছা হলে মাটন দিয়ে একই ভাবে এই বিরিয়ানি বানিয়ে খেতে পারেন।

আসুন কিভাবে এই মজাদার নবাবি বিরিয়ানি বানাতে হয় তা দেখে নেই। তবে তার আগে কোন কোন উপকরণ ব্যবহার করে এই নবাবি চিকেন বিরিয়ানি বানাতে হবে তাও দেখে নেয়া যাক।

নবাবি বিরিয়ানি বানাতে যে যে উপকরণ দরকার হবে

  • বাসমতি চাল ২ কাপ
  • চিকেন ১/২ কেজি
  • ঘি ২ টেবিল চামচ
  • সয়াবিন তেল ১ টেবিল চামচ
  • আস্ত বড় এলাচ ১টি
  • আস্ত ছোট এলাচ ৪ থেকে ৬টি
  • লবঙ্গ ৪ থেকে ৬টি
  • দারচিনি বড় দুই টুকরা
  • মিহি করে কুচি করে রাখা পেঁয়াজ ৪ টেবিল চামচ
  • আদা বাটা ২ চা চামচ
  • রসুন বাটা ২ চা চামচ
  • লাল মরিচ গুড়া ২ চা চামচ
  • ভাজা জিরা গুড়া ১ চা চামচ
  • ভাজা ধনে গুড়া ১ চা চামচ
  • সাদা গোল মরিচ গুড়া ১/২ চা চামচ
  • কালো গোল মরিচ গুড়া ১/২ চা চামচ
  • লবণ পরিমাণ মত
  • চিনি ১/২ চা চামচ
  • টক দই ১ কাপ
  • মিষ্টি দই ১/৪ কাপ
  • কিশমিস ১০টি
  • কাজু বাদাম ১০টি
  • পেস্তা বাদাম ১০টি
  • আমন্ড বাদাম ১০টি
  • চীনা বাদাম ১০টি
  • পানি ৩ কাপ + মাংস কষানোর জন্য
  • মিহি করে কুচি করা পুদিনা পাতা ১ টেবিল চামচ
  • পেঁয়াজ বেরেস্তা ২ টেবিল চামচ
  • গোলাপ জল ১/৪ চা চামচ
  • কেওড়া জল ১/৪ চা চামচ
  • আস্ত কাঁচা মরিচ ৫ থেকে ৬টি

নবাবি বিরিয়ানি বানাবার পদ্ধতি

বাদাম রেডি করার পদ্ধতি

একটা ফ্রাইং প্যানে অল্প পরিমাণে ঘি গরম করতে হবে। এই গরম ঘিতে কাজু বাদাম, পেস্তা বাদাম, চীনা বাদাম ও আমন্ড বাদাম হালকা করে ভেজে নিতে হবে। বাদাম গুলো ভাজা হয়ে সুন্দর গন্ধ বের হলে নামিয়ে নিতে হবে। কিশমিশ ২০ মিনিটের জন্য পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে।

চিকেন রেডি করার পদ্ধতি

১ম ধাপ

রান্না শুরু করার সময় প্রথমেই চিকেন রেডি করে নিতে হবে। এজন্য প্রথমে চিকেন মেরিনেট করতে হবে। খুব বেশি উপকরণ দিয়ে চিকেন মেরিনেট করার দরকার নেই। শুধু টক দই আর মিষ্টি দই দিয়ে চিকেন মেরিনেট করলেই হবে। আর খুব বেসি সময় ধরে চিকেন মেরিনেট করে রাখারও দরকার নেই। মোটামুটি ১৫ থেকে ২০ মিনিট চিকেন মেরিনেট করে রাখলেই হবে। খুব ভাল হয় যদি আপনি চিকেন মেরিনেট করে ফ্রিজে রেখে দিতে পারেন। কারণ যেকোন জিনিসই মেরিনেট করে ফ্রিজে রেখে দিলে মেরিনেশন প্রসেসটা আরো দ্রুত হয়ে থাকে।

২য় ধাপ

চিকেন মেরিনেট করা হয়ে গেলে চুলায় এক টেবিল চামচ সয়াবিন তেল ও এক টেবিল চামচ ঘি গরম করতে দিতে হবে। সাদা তেল ও ঘি এর মিশ্রণ গরম হয়ে গেলে এতে দুটা ছোট এলাচ, দুটা লবঙ্গ, দুটা দারচিনি ফোড়ন দিতে হবে। ঘি এর মধ্যে ফোড়ন এর মশলা গুলো ফুটে উঠলে সুন্দর একটা গন্ধ বের হবে। সেই সময়ে মিহি করে কুচি করে রাখা পেঁয়াজ দিয়ে দিতে হবে। পেঁয়াজ কুচি গুলো লাল লাল করে ভেজে নিতে হবে। পেঁয়াজ কুচি যখন গোল্ডেন ব্রাউন কালার হয়ে যাবে তখন এতে আদা বাটা ও রসুন বাটা যোগ করে দিতে হবে। ভাল করে পেঁয়াজ কুচির সাথে আদা বাটা ও রসুন বাটা কষিয়ে নিতে হবে। এরপর এর মধ্যে লাল মরিচ গুড়া, ভাজা জিরা গুড়া ও ভাজা ধনে গুড়া দিয়ে দিতে হবে ভাল করে মিশিয়ে নিতে হবে। একই সাথে কালো গোল মরিচ গুড়া আর সাদা গোল মরিচ গুড়াও দিয়ে দিতে হবে। সব উপকরণ খুব ভাল করে কষিয়ে নিতে হবে। প্রয়োজন হলে অল্প অল্প করে সামান্য পানি যোগ করা যেতে পারে।

মশলা কষে যখন তেল উপরে উঠে আসবে তখন মেরিনেট করে রাখা চিকেন এর মধ্যে ঢেলে দিতে হবে। পরিমাণ মত লবণ ও চিন দিয়ে দিতে হবে। ভাল মত কষিয়ে রান্না করতে হবে। যদি বয়লার চিকেন ব্যবহার করেন তবে চিকেনের নিজস্ব পানিতেই চিকেন রান্না হয়ে যাবে। কিন্তু যদি দেশি মুরগি ব্যবহার করেন তবে অল্প পানি যোগ করা লাগতে পারে।

বিরিয়ানির ভাত যেভাবে রেডি করতে হবে

১ম ধাপ

প্রথমে বাসমতি চাল ভাল ভাবে ধুয়ে নিতে হবে। আপনার কাছে বাসমতি চাল না থাকলে সাধারণ পোলাও এর চালও ব্যবহার করে দেখতে পারেন। এই বার এই পরিস্কার চাল গুলো পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। খুব বেশি সময় বাসমত চাল পানিতে ভিজিয়ে রাখবেন না। সর্বোচ্চ ১৫ থেকে ২০ মিনিট বাসমতি চাল পানিতে ভিজিয়ে রাখলেই হবে।

২য় ধাপ

এরপর একটা হাড়িতে ৩ কাপ পানি নিয়ে নিতে হবে। পানির মধ্যে পরিমাণ মত লবণ, অল্প চিনি, আস্ত বড় এলাচ, বাকি আস্ত ছোট এলাচ, লবঙ্গ ও দারচিনি দিয়ে দিতে হবে। পানি টগ বগ করে ফুটে ওঠা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে থাকুন। পানি ফুটে উঠলে এর মধ্যে ভিজিয়ে রাখা চাল দিয়ে দিতে হবে। চুলার আঁচ একদম কমিয়ে দিতে হবে। হাড়িতে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। এরপর প্রায় ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। এই সময়ের মধ্যে ভাত রান্না করা হয়ে যাবে। বাসমতি কিংবা পোলাও এর চাল সিদ্ধ হয়ে গেলে চুলা নিভিয়া দিতে হবে।

বিরিয়ানি বানাবার ফাইনাল স্টেপ

এই বার বিরিয়ানি বানাবার ফাইনাল স্টেপ শুরু করতে হবে। মানে বিরিয়ানি লেয়ার বাই লেয়ার সাজাতে হবে। এজন্য প্রথমে ভাতের হাড়ি খুলে অর্ধেকটা বিরিয়ানির ভাত তুলে রাখুতে হবে। এরপর এর উপর সুন্দর করে কষিয়ে রাখা চিকেন টা ঢেলে দিতে হবে। চিকেন পিস গুলো চার পাশে সুন্দর করে ছড়িয়ে বিছিয়ে দিতে হবে। এর উপর পেঁয়াজ বেরেস্তা ছড়িয়ে দিতে হবে। সেই সাথে মিহি করে কুচি করে রাখা পুদিনা পাতা ও আস্ত কাঁচা মরিচও ছড়িয়ে দিতে হবে। একই সাথে একটু ঘি, কেওড়া জল ও গোলাপ জলও ছড়িয়ে দিতে হবে। সেই সাথে ভেজে রাখা বাদাম ও কিশমিশ ছড়িয়ে দিতে হবে। এরপর বাকি সিদ্ধ বিরিয়ানির ভাত উপর থেকে ছড়িয়ে দিতে হবে। ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। এরপর একদম মৃদু আঁচে তিন মিনিট বিরিয়ানি দমে রেখে দিতে হবে। এরপর আরো বিশ মিনিট অপক্ষা করতে হবে। এই সময়ে ঢাকনা খোলা যাবে না। বিশ মিনিট পর গরম গরম পরিবেশন করতে হবে মজাদার চিকেন নবাবি বিরিয়ানি।

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

১ টি মন্তব্য
  1. Reply মজাদার ও ভিন্ন স্বাদের চিকেন মতি পোলাও রেসিপি | চটপট - এসো নিজে করি জুন ৯, ২০১৮ তারিখে ১:১০ অপরাহ্ন

    […] সাদা পোলাও তো আমরা সব সময়ই খেয়ে থাকি। এই বারের […]

মন্তব্য করুন