রূপচর্চা গোলাপ এর পাপড়ি দিয়ে

রূপচর্চা গোলাপ এর পাপড়ি দিয়ে

গোলাপ এর পাপড়ি রূপচর্চার জন্য অনেক পরিচিত একটি উপাদান। গোলাপ এর পাপড়ি স্কিন কে সুন্দর করে, স্কিন এ আনে লাল আভা এবং স্কিন কে বেবি দের মত সফট করে। গোলাপ এর পাপড়ি এর অনেক গুলো উপকারিতা এর মধ্যে কিছু হল ত্বক এর দাগ দূর করে, ত্বক এর কালো ভাব দূর করে, ত্বককে ফর্সা ও সুন্দর করে, সফট করে, ত্বকে লাল আভা আনে এবং ত্বক কে এক্সফলিয়েট করে। সপ্তাহে দুই দিন গোলাপ এর পাপড়ি গুড়া ত্বকে ব্যবহার করলেই ত্বক হয়ে যাবে ফর্সা ও সুন্দর। গোলাপ এর পাপড়ি গুড়া বাইরে বাজারে পাওয়া যায় কিন্তু বাইরের টা ব্যবহার করার থেকে যদি বাসায় বসে প্রাকিতিক উপায়ে গোলাপ এর পাপড়ি গুড়া বানানো যায় তাহলে তো কথাই নেই। কেননা প্রাকিতিক ভাবে বানানো সব কিছুই বাইরের বাজারে পাওয়া প্রোডাক্ট গুলো থেকে ভাল। কেননা বাইরে পাওয়া প্রোডাক্ট এ কেমিক্যাল মিশানো থাকে যা ত্বক এর জন্য ক্ষতিকর। এইজন্য ঘরে বসে গোলাপ এর পাপড়ি এর গুড়া বানিয়ে ফেলা ভাল এবং উপকারি।

ঘরে বসে গোলাপ এর পাপড়ি এর গুড়া বানানো যায় অনেক সহজেই। আজকে আমি আপনাদের বাসায় বসে গোলাপ এর পাপড়ি এর গুড়া বানানোর পদ্ধতি দিব এবং সাথে গোলাপ এর পাপড়ি এর কয়েকটা ফেস প্যাক যা আপনার স্কিন কে প্রাকিতিক ভাবে সুন্দর ও ফর্সা করে তুলবে।

ঘরে বসে প্রাকিতিক গোলাপ এর পাপড়ি এর গুড়া বানানোর পদ্ধতিঃ

প্রথমে আপনার পছন্দ মত গোলাপ নিবেন তবে খেয়াল রাখবেন যেন বাজারের গোলাপ না হয়। কেননা তাতে অনেক পেস্টিসাইড দেয়া থাকে যা স্কিন এর জন্য ক্ষতিকর। এরপর গোলাপ গুলো ভাল করে ধুয়ে নিতে হবে যেন কোন গোলাপ অপরিষ্কার না থাকে। এরপর একটা টেবিল এ কাগজ রেখে তার উপ গোলাপ এর পাপড়ি গুলো রেখে আবার উপরে কাগজ দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। এরপর শুখাতে দিতে হবে। এমন ভাবে পাপড়ি গুলো শুকাতে দুই থেকে তিন দিন সময় লাগবে। গোলাপ এর পাপ্রি কখনই রোদে শুখাবেন না কেননা এতে বাইরের ধুলাবালি পরবে এবং এর গুণ নষ্ট হয়ে যাবে। দুই থেকে তিন দিন পর গোলাপ এর পাপড়ি গুলো শুখিয়ে গেলে তা ব্লেন্ডার এ দিয়ে গুড়া করে ফেলতে হবে। সহজেই হয়ে গেল প্রাকিতিক গোলাপ এর পাপড়ি গুড়া।

ফেস প্যাক- ১

উপাদানঃ

১- গোলাপ এর পাপড়ি গুড়া ১ চা চামুচ।

২- টক দই ১ চা চামুচ।

ফেস প্যাক বানানোর পদ্ধতিঃ

প্রথমে একটা বাটি তে গোলাপ এর পাপড়ি গুড়া নিতে হবে এরপর নিতে হবে টক দই। আমরা জানি টক দই স্কিন এর জন্য অনেক উপকারি। ড্রাই স্কিন থেকে অয়েলি সকল স্কিন এর জন্যই টক দই উপকারি। টক দই তে আছে অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি ও অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান যা স্কিন এর ব্রন সৃষ্টিকারী ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া মেরে ফেলে। টক দই স্কিন কে ফর্সা করে তোলে। নিয়মিত টক দই ব্যবহার করার ফলে স্কিন এর দাগ দূর হয়। একসাথে এই দুই উপাদান মিক্স করে মুখে মাখতে হবে। বিশ মিনিট পর হাল্কা ঘসে ঘসে তুলে ফেলতে হবে। প্রথম বারেই বুঝা যাবে স্কিন অনেক সুন্দর ও সফট হয়ে গেছে।

ফেস প্যাক- ২

উপাদানঃ

১- গোলাপ এর পাপড়ি গুড়া ১ চা চামুচ।

২- মুলতানি মাটি ১ চা চামুচ।

৩- এলোভেরা জেল ১ চা চামুচ।

৪- টক দই ১ চা চামুচ।

ফেস প্যাক বানানোর পদ্ধতিঃ

প্রথমে একটি পরিষ্কার বাটি তে গোলাপ এর পাপড়ি গুড়া ও মুলতানি মাটি নিতে হবে। মুলতানি মাটি যুগ যুগ ধরে রূপচর্চায় ব্যবহার হয়ে আসছে। মুলতানি মাটি স্কিন এর জন্য অনেক উপকারি, বিশেষ করে তৈলাক্ত ত্বক এর জন্য। মুলতানি মাটি তে আছে প্রাকিতিক ব্লিচিং উপাদান যা স্কিন কে প্রাকিতিক ভাবে ফর্সা করে। এরপর নিতে হবে এলোভেরা জেল। এলোভেরা জেল স্কিন এর দাগ দূর করে, স্কিন কে ফর্সা করে তোলে, স্কিন কে টাইট করে। তৈলাক্ত ত্বক এর জন্য এলোভেরা জেল অনেক উপকারি। এরপর টক দই দিয়ে ভাল করে মিক্স করে মুখে মেখে নিতে হবে। শুখিয়ে গেলে হাল্কা ঘসে ঘসে তুলতে হবে।

এই প্যাক গুলো সপ্তাহে দুই থেকে তিন দিন ব্যবহার করাই যথেষ্ট। এর ফলে স্কিন হয়ে উঠবে সুন্দর, ফর্সা, দাগহীন।

 

মন্তব্যসমূহ

আমি স্টুডেন্ট। পড়াশুনার পাশাপাশি টুকটাক লিখতে ভালবাসি।

মন্তব্য করুন