চিড়ার ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা ২ রেসিপি

চিড়ার ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা ২ রেসিপি

চিড়া একটি খুব সহজপাচ্য ও হালকা খাবার। এই গরমে পেট ঠাণ্ডা রাখতে সাহায্য করে চিড়া। খুব সহজে ক্ষুধা মেটাতে এর জুড়ি মেলা ভার। এই চিড়া দিয়েই তৈরি করা যায় মজাদার সব খাবার।এখন প্রচুর গরম পড়ছে এই সময় চিড়া দিয়ে ঠাণ্ডা কোন খবার আমাদের শরীরের জন্য খুব ভালো। তাইতো আজকে আপনাদের দিব চিড়া দিয়ে তৈরি একটি নয় দুই দুইটি সুস্বাদু ও পুষ্টিকর রেসিপি। আজকের চিড়ার ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা ২ রেসিপি তে থাকছেঃ

১. নারিকেল দিয়ে চিড়া- মুড়ি মাখা

গ্রামের চিরায়ত এক খাবার নারিকেল দিয়ে চিড়া- মুড়ি মাখা। বিশেষ করে আমাদের দেশের দক্ষিন অঞ্চলের দিকে এই খাবারটা খুব প্রচলিত। কারন ওইদিকে নারিকেলের গাছ বেশি জন্মায়। খুব সহজ এইটা তৈরি করা।

উপকরণ

চিড়া – ১/২ কাপ

মুড়ি – ১/৩ কাপ

নারিকেল কুরানো – ১/৪ কাপ

গুঁড়/ চিনি – ২-৩ টেবিল চামচ

পানি – পরিমানমত

প্রণালী

চিড়া – মুড়ি একটা ঝাঝরিতে ঝেড়ে নিন। এরপর পানি দিয়ে ২/৩ বার ধুয়ে পানি ফেলে দিন। এখন ১/২ কাপের মত পানি ও গুঁড়/ চিনি দিয়ে ভিজিয়ে রাখুন। খাবার আগে কুরানো নারিকেল দিয়ে মেখে নিন। এই সময় চাইলে আর একটু পানি যোগ করতে পারেন। অনেকে মিস্টি খাবারে সামান্য লবন দিতে পছন্দ করেন, সেক্ষেত্রে সামান্য লবন যোগ করুন।

খুব সুস্বাদু ও গরমে শান্তিদায়ক এক খাবার এই নারিকেল চিড়া- মুড়ি মাখা।

 

২. ফলের সাথে দই চিড়া

দইএর উপকারি ব্যাকটেরিয়া আমাদের শরীরের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়াকে মেরে ফেলে, আমাদের হজমে সহায়তা করে থাকে। প্রতিদিন খাবার পরে একটু দই খাওয়া ভাল। এতে পেট ঠাণ্ডা থাকে। এই গরমকালে ফলমূল শরীরে পানির শূন্যতা পুরনে সাহায্য করে। চিড়াও আমাদের পেট ঠাণ্ডা রাখে। তাইত সব ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা উপকরন দিয়ে এক অসাধারন রেসিপি ফলের সাথে দই চিড়া।

উপকরন

চিড়া –   কাপ

টক / মিষ্টি দই –  ১/৪ কাপ

চিনি – ২ টেবিল চামচ

ফল – ১/৪ কাপ

প্রণালী

** প্রথমে চিড়া ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। কিছুক্ষন রেখে দিন, চিড়া একটু নরম হওয়ার জন্য। ফল- আম/ কলা ছোট টুকরা করে কেটে নিন। এবারে টক দই দিয়ে করলে দইএর পানি ঝরিয়ে নিন। একটা বাটিতে চিড়া, দই, ফলের টুকরা , চিনি একসাথে মিশিয়ে নিন। যদি মিষ্টি দই দিয়ে করেন তাহলে চিনি বাদ দিন।

মন্তব্যসমূহ

নিজের পরিচয় দিতে গেলে সবার আগে বলব, আমি একজন মা। তার সাথে একজন হোমমেকার, শিক্ষক ও ব্লগার। লিখতে ভালবাসি। তার চাইতে ভালবাসি পড়তে, জানতে। এইতো! ছোট এক জীবনে অনেক কিছু, আলহামদুলিল্লাহ!!

মন্তব্য করুন