ঘরে বসে সহজেই বানান চিলি প্রণ বল কারি

ঘরে বসে সহজেই বানান চিলি প্রণ বল কারি

চাইনিজ খাবার খেতে ইচ্ছা হলে শুধু যে চাইনিজ রেস্টুরেন্টে দৌড় আরতে হবে এমন কোন কথা নেই। আপনি চাইলে ঘরে বসেই মজার মজার বিভিন্ন চাইনিজ আইটেম ট্রাই করে দেখতে পারেন। রেসিপি কোথায় পাবেন তাই নিয়ে চিন্তা করছেন? কোন চিন্তা করার দরকার নেই। চটপট আছে না? আমাদের এখানে আপনি নানা রকম চাইনিজ রেসিপি পেয়ে যাবেন। আজ এমনই একটি জনপ্রিয়, মজাদার অথচ সহজ চাইনিজ রেসিপি আপনাদের সাথে আমি শেয়ার করব। সেটি হচ্ছে চিলি প্রণ বল কারি।

চিলি প্রণ বল কারি কিন্তু আমাদের দেশের রেস্টুরেন্ট গুলোতে খুব বেশি সহজলভ্য না। খুব কম রেস্টুরেন্টেই আপনি এই ডিশটা খুজে পাবেন। তবে এই ডিশটা খেতে কিন্তু অনেক বেশি মজা। আর সবচেয়ে বড় কথা এটা বানানো অনেক বেশ সহজ। আসুন দেরি না করে কিভাবে চিলি প্রণ বল কারি বানাতে হবে তা দেখে নেই। তবে তার আগে এই চিলি প্রণ বল কারি বানাতে কি কি উপকরণ দরকার হবে তা জেনে নেয়া যাক চলুন।

চিলি প্রণ বল বানাতে যা যা লাগবে

প্রণ বল বানাতে যা যা লাগবে

  • চিংড়ি মাছ ১ কাপ
  • ময়দা ২ টেবিল চামচ
  • কর্ণফ্লাওয়ার ২ টেবিল চামচ
  • লবণ পরিমাণ মত
  • মিহি করে কিমা করে রাখা রসুন ১ চা চামচ
  • মিহি করে কিমা করে রাখা পেঁয়াজ ২ চা চামচ
  • মিহি করে কিমা করে রাখা কাঁচা মরিচ ১ চা চামচ
  • ডিম ১টা
  • কালো গোল মরিচ গুড়া ১ চা চামচ
  • সয়াবিন তেল ডুবো তেলে ভাজার জন্য

চিলি প্রণ বল কারি বানাতে যা যা লাগবে

  • সয়াবিন তেল ১ টেবিল চামচ
  • বাটার ১ টেবিল চামচ
  • পাপড়ি করে কেটে নেয়া পেঁয়াজ ১/৪ কাপ
  • মিহি করে কিমা করে রাখা রসুন ১ চা চামচ
  • মিহি করে কিমা করে রাখা আদা ১ চা চামচ
  • মিহি করে কিমা করে রাখা কাঁচা মরিচ ১ চা চামচ
  • মিহি করে কিমা করে রাখা টমেটো ২ টেবিল চামচ
  • সবুজ ক্যাপসিকাম কুচি ৩ টেবিল চামচ
  • লাল ক্যাপসিকাম কুচি ৩ টেবিল
  • হলুদ ক্যাপসিকাম কুচি ৩ টেবিল চামচ
  • টমেটো কেচাপ ৩ টেবিল চামচ
  • সয়া সস ২ চা চামচ
  • টেস্টিং সল্ট ১/২ চা চামচ
  • চিনি ১ চা চামচ
  • লবণ পরিমাণ মত
  • কালো গোল মরিচ গুড়া ১ চা চামচ
  • পানি ১ কাপ
  • কর্ণফ্লাওয়ার ১ টেবিল চামচ

চিলি প্রণ বল কারি যে পদ্ধতিতে বানাতে হবে

প্রণ বল যে পদ্ধতিতে বানাতে হবে

১ম ধাপ

প্রণ বল বানাবার জন্য প্রথমে প্রণ গুলো রেডি করে নিতে হবে। আপনি মোটামুটি মাঝারি সাইজের চিংড়ি মাছ যোগাড় করবেন এই প্রণ বল বানাবার জন্য। প্রথমে চিংড়ি মাছ গুলোর মাথা ও লেজ ছাড়িয়ে নিতে হবে। সেই সাথে চিংড়ি মাছ গুলো খোসাও ছাড়িয়ে নিতে হবে। এরপর চিংড়ি মাছ গুলো খুব ভাল করে ধুয়ে পরিস্কার করে নিতে হবে। এই বার একটা ধারলো ছুরি দিয়ে চিনহড়ি মাছু গুলো খুব ছোট ছোট করে কেটে নিতে হবে। এই সময় একটা ব্যাপার খেয়াল রাখতে হবে। চিংড়ি মাছ গুলো চাপাতি দিয়ে একেবারে মিহি কিমা করে ফেলা যাবে না। তবে ছোট ছোট করে কাটতে হবে যাতে বলের শেপে আনা যায়। আপনি যদি চিংড়ি মাছ গুলো একেবারে মিহি করে কিমা করে ফেলেন তাহলে খাবার সময় চিংড়ি মাছের টেস্ট অত ভাল ভাবে পাওয়া যাবে না।

২য় ধাপ

এই বার একটা বাটিতে চিংড়ি মাছের ছোট ছোট টুকরা গুলো নিতে হবে। এই মাছের মধ্যে লবণ, কালো গোল মরিচ গুড়া যোগ করতে হবে। সেই সাথে মিহি করে কুচি করে রাখা পেঁয়াজ, কাঁচা মরিচ আর রসুন যোগ করে দিতে হবে। এই বার এই চিংড়ি মাছের মিশ্রণের মধ্যে একটা ডিম ফেটে মিশিয়ে দিতে হবে। এরপর দিতে হবে দুই টেবিল চামচ ময়দা ও দুই টেবিল চামচ কর্ণফ্লাওয়ার। এই সব কটি উপকরণ একত্রে খুব ভাল ভাবে মেখে নিতে হবে। এখন হাত দিয়ে দেখতে হবে যে চিংড়ি মাছের মিশ্রণের বাইন্ডিং ঠিকঠাক মত হয়েছে কিনা। যদি আপনার মনে হয় যে চিংড়ি মাছের কিমার বাইন্ডিং ঠিক ঠাক মত হয়েছে তাহলে এটি পরবর্তি ধাপের জন্য রেডি। কিন্তু আপনার যদি মনে হয় এই মিশ্রণটি একটু পাতলা হয়ে আছে তাহলে এর মধ্যে অল্প অল্প করে কর্ণফ্লাওয়ার যোগ করতে পারেন। এরপর যখন মনে হবে যে চিংড়ি মাছের কিমার মিশ্রণ একদম ঠিকঠাক মত ঘনত্বে এসে গেছে তখন কর্ণফ্লাওয়ার যোগ করা বন্ধ করে দিতে পারেন।

৩য় ধাপ

একটা ফ্রাইং প্যানে সয়াবিন তেল গরম করতে দিতে হবে। সয়াবিন তেল গরম হতে হতে চিংড়ি মাছের মিশ্রণ থেকে ছোট ছোট বল বানিয়ে নিতে হবে। তেল গরম হয়ে গেলে একে একে বল গুলো তেলে ছেড়ে দিতে হবে। মিডিয়াম আঁচে তিন থেকে চার মিনিট এগুলোকে ভাজতে হবে। তারপর উলটে দিতে হবে। অপর পিঠও একই ভাবে মিডিয়াম আঁচে তিন থেকে চার মিনিট ভেজে নিতে হবে। প্রণ বল গুলোর দুই পিঠ গোল্ডেন ব্রাউন করে ভাজা হয়ে গেলে একটা প্লেটে সেগুলো তুলে রাখতে হবে।

চিলি প্রণ বল কারি যেভাবে বানাতে হবে

প্রথমে একটা ফ্রাইং প্যানে সয়াবিন তেল ও মাখন এক সাথে গরম করতে দিতে হবে। মাখন গলে গেলে পাপড়ির মত করে কেটে রাখা পেঁয়াজ দিয়ে দিতে হবে। হালকা করে পেঁয়াজ পাপড়ি গুলো ভেজে নিতে হবে। পেঁয়াজ পাপড়ি গুলো একটু নরম হয়ে গেলে এর মধ্যে মিহি করে কুচি করে রাখা রসুন ও কাঁচা মরিচ দিয়ে দিতে হবে। সেই সাথে মিহি করে কুচি করে রাখা আদাও দিয়ে দিতে হবে। আমাদের মসধ্যে অবশ্য অনেকেই আছেন যাদের খাওয়ার সময় মুখে আদা কুচি পড়লে খুব বিরক্ত বোধ করেন। আপনি যদি সেই দলের কেউ হয়ে থাকে তবে আদা কুচি দেবার দরকার নেই। এর বদলে হাফ চা চামচ আদা বাটা দিলেও চলবে।

এই মশলা গুলো হালকা ভাজা হয়ে গেলে মিহি করে কুচি করে রাখা টমেটো যোগ করতে হবে। একই সাথে কুচি করে রাখা সবুজ, লাল ও হলুদ ক্যাপসিকামও যোগ করে দিতে হবে। কিছু সময়ের জন্য এগুলো একটু ভেজে নিতে হবে। এই সময়ে পরিমাণ মত লবণ ও চিনি যোগ করে দিতে হবে। ক্যাপসিকাম গুলো একট নরম হয়ে গেলে এর মধ্যে আগে থেকে ভেজে রাখা প্রণ বল গুলো দিয়ে দিতে হবে। ভাল করে টস করে নিতে হবে।

এই বার একে একে টমেটো কেচাপ, সয়া সস আর টস্টিং সল্ট দিতে হবে। একই সাথে কালো গোল মরিচ গুড়াও দিতে হবে। খুব ভাল করে সব উপকরণ এক সাথে টস করে নিতে হবে। যাতে করে এই সব কটি উপকরণই একে অন্যের সাথে ভাল মত মিশে যেতে পারে। এরপর একটা বাটিতে এক কাপ পানি নিতে হবে। এই পানির মধ্যে এক টেবিল চামচ কর্ণফ্লাওয়ার গুলে নিতে হবে। এই কর্ণফ্লাওয়ার গোলানো পানি ফ্রাইং প্যানে ঢেলে দিতে হবে। খুনতি দিয়ে নাড়া চাড়া করে এটি সব কিছুর সাথে মিশিয়ে দিতে হবে। পানি ফুটে গেলে চুলার আঁচ একটু কমিয়ে দিতে হবে। ঝোল মোটামুটি ঘন হয়ে গেলে চুলা বন্ধ করে দিতে হবে। এই বার একটা সার্ভিং ডিশে ঢেলে সার্ভ করতে হবে মজাদার চিলি প্রণ বল কারি।

 

 

 

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

মন্তব্য করুন