ঝাল ঝাল সরষে চিকেন রেসিপি

ঝাল ঝাল সরষে চিকেন রেসিপি

সরষে দিয়ে মাছ রান্না করে তো আমরা সকলেই খেয়ে দেখেছি। বিশেষ করে সরষে দিয়ে ইলিশ মাছ তো বাঙ্গালির অতি প্রিয় একটি খাবার। ইলিশ মাছ ছাড়াও আরো অনেক মাছই কিন্তু আমরা সরষে বাটা দিয়ে রান্না করে থাকি। যেমন ট্যাংড়া মাছে সরষে ঝোল কিংবা রুই মাছ সরষে দিয়ে ভুনা করা আমাদের দেশে বেশ জনপ্রিয়। তবে এই মাছে ভাতে বাঙ্গালী আমরা কিন্তু চিকেন রান্নার সময় সরষের খুব একটা ব্যবহার করে দেখিনি। আমাদের কাছে মুরগি রান্না বলতেই হয় ঝাল ঝাল মুরগির দোপেঁয়াজো, তা না হলে টকদই দিয়ে মুরগির গ্রেভি। আর পালা পার্বনে খুব বেশি হলে চিকেন রেজালা কিংবা চিকেন রোস্ট। আমি নিশ্চিত করে বলতে পারি খুব কম রাধুনীই সরষে ব্যবহার করে মুরগির মাংস রান্না করার কথা চিন্তা করেছেন। আসুন আজ সরষে ব্যবহার করে কিভাবে সরষে চিকেন রান্না করতে হয় তা শিখে নেই।

সরষে চিকেন আসলে আমাদের দেশীয় কোন রান্না না। এটি মূলত ভারতের পশ্চিম বঙ্গের অথেনটিক একটা রান্না। ওখানকার একেক রাধুনী একেক ভাবে সরষে চিকেন রান্না করে থাকেন। কেউ কেউ এটাকে কষিয়ে রান্না করেন। কেউ বা আবার ভাপে রান্না করেন। তবে ট্রাডিশনাল সরষে চিকেন কিন্তু কষিয়ে কষিয়ে ভেজে ভেজে রান্না করা হয়ে থাকে। আমি আজ সেই সরষে চিকেন বানাবার প্রসেসটাই আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চলেছি। আসুন দেরি না করে কি পদ্ধতিতে সরষে চিকেন রান্না করতে হয় তা জেনে নেই। তবে তার আগে সরষে চিকেন বানাবার জন্য কি কি উপকরণ লাগবে আর কি পরিমাণে দরকার হবে তা জেনে নেয়া যাক চলুন।

সরষে চিকেন বানাবার জন্য যে যে উপকরণ দরকার হবে

  • চিকেন হাফ কেজি
  • সরষের তেল ৪ টেবিল চামচ
  • টক দই ৪ টেবিল চামচ
  • হলুদ গুড়া ১ চা চামচ
  • লাল মরিচ গুড়া ২ চা চামচ
  • কালো গোল মরিচ গুড়া ১ চা চামচ
  • সাদা গোল মরিচ গুরা ১ চা চামচ
  • লবণ পরিমাণ মত
  • আদা বাটা ১ চা চামচ
  • রসুন বাটা ১ চা চামচ
  • ভাজা জিরা গুড়া ১ চা চামচ
  • ভাজা ধনে গুড়া ১ চা চামচ
  • চিনি ১/২ চা চামচ
  • সরষে বাটা ৪ টেবিল চামচ
  • মিহি করে কুচি করে রাখা পেঁয়াজ ৪ টেবিল চামচ
  • আস্ত কাঁচা মরিচ ৪ থেকে ৫টি
  • মিহি করে কুচি করে রাখা ধনে পাতা ২ টেবিল চামচ
  • আস্ত এলাচ ১টি
  • আস্ত তেজপাতা ১টি
  • আস্ত শুকনা মরিচ ২টি
  • আস্ত দারচিনি ১ টুকরা
  • আস্ত লবঙ্গ ২টি
  • পানি ১/২ কাপ

সরষে চিকেন যে পদ্ধতিতে বানাতে হবে

১ম ধাপ

রান্না শুরু করার আগে প্রথমে চিকেন রেডি করে মেরিনেট করে নিতে হবে। এই রেসিপির জন্য হাড় ছাড়া কিংবা হাড় সহ যে কোন ধরণের চিকেন ব্যবহার করা যেতে পারে। প্রথমে চিকেন সুন্দর করে পরিস্কার করে একতা ঝাঝরিতে রেখে দিতে হবে দশ মিনিট থেকে পনেরো মিনিটের জন্য। এতে করে চিকেন থেকে বাড়তি পানি ঝরে যাবে। এরপর একতা বড় পাত্রে চিকেন নিতে হবে। এর সাথে টক দই, লবণ হলুদ গুরা ও লাল মরিচ এর গুড়া মিশিয়ে নিতে হবে। একই সাথে ভাজা জিরা গুড়া ও ভাজা ধনে গুড়াও যোগ করে দিতে হবে। এবং কালো গোল মরিচ গুড়া ও সাদা গোল মরিচ গুড়াও যোগ করতে হবে। এই সব কয়টি উপকরণ চিকেনের গায়ে ভাল ভাবে মেখে নিতে হবে। এই অবস্থায় চিকেন গুলো আধা ঘন্টার জন্য মেরিনেট করে রাখতে হবে। সব থেকে ভাল হয় আপনি যদি মেরিনেট করে রাখা চিকেন ফ্রিজে রেখে দিতে পারেন। এতে করে মেরিনেশন প্রসেসটা আরো ভাল ভাবে সম্পন্ন হয়।

২য় ধাপ

এই সময়ে সরষে বাটা রেডি করে নিতে হবে। আপনি লাল সরষে কিংবা কালো সরষে যে কোন ধরণের সরষে ব্যবহার করতে পারেন। কিগবা লাল সরষে ও কালো সরষে সমান সমান ভাবে মিশিয়েও এই রান্নায় ব্যবহার করা যেতে পারে। সরষে শীল পাটায় বেটে নিতে হবে। সরষে বাটলে অনেক সময় তেঁতো হয়ে যায়। এই সমস্যার একটা টিপস দিয়ে দেই। সরষে বাটার সময় এর সাথে একটা কাঁচা মরিচ ও সামান্য একটু চিনি দিয়ে বেটে নিতে হবে। তাহলে পী বাটা সরষে আরো তেঁতো হবেনা।

৩য় ধাপ

একটা কড়াতে সরষের তেল গরম করতে দিতে হবে। সরষের তেল গরম হয়ে গেলে এর প্রথমে তেজপাতা, এলাচ, লবঙ্গ, দারচিনি আর শুকনা মরিচ ফোড়ন দিতে হবে। সরষের তেল থেকে যখন ফোড়নের খুব সুন্দর গন্ধ আসা শুরু করবে তখন এর মধ্যে মিহি করে কুচি করে রাখা পেঁয়াজ যোগ করে দিতে হবে। পেঁয়াজ কুচি গুলো খুব সুন্দর করে লাল লাল করে ভেজে নিতে হবে। পেঁইয়াক যখন ভাজা ভাজা হয়ে গোল্ডেন ব্রাউন কালার হয়ে যাবে তখন এর মধ্যে মেরিনেট করা চিকেন দিয়ে দিতে হবে। সেই সাথে মেরিনেশনের সব মশলাও তেলের মধ্যে ঢেলে দিতে হবে।

মেরিনেশনের মশলা ও চিকেন সরষের তেলের মধ্যে খুব ভাল ভাবে নেরে এড়ে মিশিয়ে দিতে হবে। এই বার চুলার আঁচ মিডিয়াম রেখে কড়া একটা ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। এতে করে চিকেন থেকে বেশি করে পানি বের হবে এবং এই চিকেনের পানি থেকেই চিকেন কষানো হবে।

৪র্থ ধাপ

প্রায় চার মিনিট থেকে পাঁচ মিনিট মত করা ঢাকা দেবার পর ঢাকা খুলে চিকেন্টা ভাজা ভাজা করে রান্না করতে হবে। চিকেন এর পানি প্রায় শুকিয়ে আসলে এবং তেল ও মশলা আলাদা হতে শুরু করলে বুঝতে হবে যে চিকেন প্রায় কষানো হয়ে গেছে। এই বার একটা বাটিতে চার টেবিল চামচ সরষে বাটা নিতে হবে। এই সরষে বাটার মধ্যে ১/২ কাপ মত পানি যোগ করে দিতে হবে।ভাল মত একতা কাটা চামচ দিয়ে সরষে বাটা ও পানি গুলে নিতে হবে যাতে করে এর মধ্যে কোন প্রকার লাম্পস না থাকে। এই বার কষানো চিকেন এর মধ্যে এই সরষে বাটার মিশ্রণতা ঢেলে দিতে হবে। ভাল মত নেড়ে চেরে মিশিয়ে দিতে হবে। চিকেন ফুটে উঠলে চুলার আঁচ একদম কমিয়ে দিতে হবে। এবং কড়াটা একটা ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। এরপর প্রায় পাঁচ মিনিট থেকে দশ মিনিট মত সরষে চিকেন একদম অল্প আঁচে রান্না করতে হবে।

চিকেন একদম সিদ্ধ হয়ে আসলে ঢাকনা খুলে সামান্য একটু চিনি, আস্ত কাঁচা মরিচ ও এক টেবিল চামচ মত কাঁচা সরষের তেল ছড়িয়ে দিতে হবে। অনেকে অবশ্য ঝাল রান্নার মধ্যে চিনি দেয়াটা একদমই পছন্দ করেন না। তবে অথেনটিক পশ্চিম বঙ্গের রান্না গুলোতে সব সময় একটু চিনি ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তা সে মাছের ঝোলই হোক কিংবা মুরগির ঝোল। এই জন্য সরষে মুরগি রান্নার মূল রেসিপিতে সামান্য একটু চিনি ব্যবহার করা হয়েছে। এতে টকদই এর স্বাদেও ব্যালান্স আসে। সাথে সরষে চিকেন এর কালারটাও অনেক সুন্দর হয়। তবে আপনার যদি পছন্দ না হয় তবে চিনি না দিলেও চলবে।

আররো দুই মিনিট এই ভাবে রান্না করতে হবে। এরপর চুলা বন্ধ করে উপর থেকে একটু মিহি করে কুচি করে রাখা ধনে পাতা ছড়িয়ে দিতে হবে। এই অবস্থায় চুলা বন্ধ করে ঢাকা দিয়ে রাখতে হবে আরো পাঁচ মিনিট থেক দশ মিনিট সময়। তারপর একটা পছন্দ মত ডিশে ঢেলে গরম গরম সাদা ভাতের সাথে সার্ভ করতে হবে দারুণ মজার সরষে চিকেন।

 

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

মন্তব্য করুন