মজাদার ও ভিন্নধর্মী রেসিপি – দই পুদিনা মুরগি।

 

মুরগির মাংস খেতে কে না ভালোবাসে। এটি বিভিন্ন ভাবে রান্না করে খাওয়া যেতে পারে। মুরগির মাংসে অতিরিক্ত কোলেস্টেরল নেই তাই যে কেউ এর মাংস বিনা সংকোচে খেতে পারেন। ছোট বাচ্চা থেকে শুরু করে মাঝবয়েসী যে কেউ এমন কি বয়স্ক লোকেরা ও মুরগির মাংস বিনা দ্বিধায় খেতে পারেন। যাদের বয়স বেশি তারা চাইলে মুরগির মাংসের স্যুপ বানিয়ে খেতে পারেন। এটা স্বাস্থ্য রক্ষায় খুবই উপকারী।  ডাক্তারেরা বয়স্ক লোকেদের এবং রোগী ব্যক্তি দের যে কোন মাংসের চাইতে মুরগির মাংস খাওয়ার কথা বলেন। যে সব রোগী রা কোন প্রকার খাবার খেতে কষ্ট পায় তাদের জন্য মুরগির মাংস বা স্যুপ এর বিকল্প হয় না। যাই হোক, মুরগির মাংসের গুনগান তো অনেক হোলো, এবার রেসিপি তে আসা যাক। এটি মুরগির মাংসের একটি মজাদার ও ভিন্নধর্মী রেসিপি – দই – পুদিনা মুরগি।

 দই দিয়ে মুরগির অনেক রেসিপি আছে কিন্তু এর সাথে যদি পুদিনার ফ্লেভার যোগ করা হয় তাহলে কেমন হয় বলুনতো? তাহলে চলুন আর দেরি না করে দেখে নেয়া যাক মজাদার ও ভিন্নধর্মী এই রেসিপি টি – দই – পুদিনা মুরগি।

 

প্রয়োজনীয় উপকরণঃ-

  • হাড় ছাড়া মুরগির মাংস – হাফ কেজি
  • পানি ঝরানো টক দই – ১০০ গ্রাম
  • কাজু বাদাম বাটা – ৫০ গ্রাম,
  • কাঁচা মরিচ বাটা  – ৫০ গ্রাম,
  • পুদিনা পাতা ১০০ গ্রাম ,
  • দারু চিনি গুঁড়া –  ২০ গ্রাম,
  • আদা কুচি – ( জুলিয়ান করে কেটে নেয়া)- ১০ গ্রাম,
  • আস্ত গরম মশলা –  ৫ গ্রাম,
  • গরম গলানো ঘি-  ১০০ গ্রাম
  • রিফাইন্ড সয়াবিন  অয়েল – ১০০ মিলি
  • খাওয়ার ক্রিম-  ১০০ গ্রাম
  • আস্ত কাঁচা মরিচ – ৫/৬ টা
  • কাচা পেঁয়াজ বাটা – ২০০ গ্রাম
  • লবন-  স্বাদ মতো
  • ধনিয়া গুঁড়ো – ৫০ গ্রাম
  • লেবুর রস – সামান্য পরিমান

 

রন্ধন প্রণালীঃ-

  • একটি কড়াইতে ঘি এবং তেল ঢেলে তা  গরম করে নিয়ে সে টাতে  আস্ত গরম মশলা ফোড়ন দিন।
  • তারপর  এতে আদা ও রসুন বাটা এবং কাঁচা মরিচ বাটা দিয়ে একটু সময় কষিয়ে নিয়ে  তাতে আগে থেকে ধুয়ে, পানি ঝরিয়ে রাখা মাংসের টুকরো গুলো কে  দিয়ে কিছুক্ষণ  ভাজুন, এতে সামান্য একটু লবন দিন।
  • এবারে মাংস গুলো হালকা বাদামী হয়ে ভাজা ভাজা হয়ে গেলে চুলার  আঁচ থেকে নামিয়ে কিছুক্ষণ এর জন্য রেখে দিন । এবার কড়াইয়ে আবারও কিছুটা ঘি ও তেল গরম করে নিয়ে  তাতে আদা এবং রসুন বাটা, কাঁচা মরিচ বাটা এবং কাচা পেঁয়াজ বাটা দিয়ে কিছুক্ষণ যাবত কষাতে থাকুন।
  • কাঁচা কাচা ভাবটা ও  গন্ধটা চলে যাওয়ার পর  তার মধ্যে ধনিয়ার গুঁড়ো, টক দই,  এবং কাজু বাদাম বাটা দিয়ে আরো কিছুক্ষণ ধরে কষাতে থাকুন। মনে রাখবেন তরকারি , যতো কষাবেন ততই মজা হবে।
  • কষানো শেষ হয়ে গেলে  পরিমাণ মতো পানি দিয়ে ঝোল টা ভালো করে ফুটিয়ে নিয়ে এতে পুদিনা পাতা গুলি  কুচি করে দিয়ে দিন। তারপর খাবার ক্রিমও দিয়ে দিন।
  • এবার এই গাড় হয়ে যাওয়া ঝোলে দিয়ে দিন ভেজে রাখা মাংস গুলো। মাংসটা দেয়া হলে   পুরো তরকারি টা  ভাল করে কষিয়ে নিন।
  • এবারে তরকারির উপরে  গরম মশলা গুঁড়ো ছিটিয়ে দিন। তার উপরে অল্প লেবুর রস ছিটিয়ে দিন।
  • সবার শেষে তরকারির ওপর দিয়ে কিছু আস্ত  পুদিনা পাতা ছড়িয়ে দিন। এবার মুরগির মাংসের  মাঝে একটা বাটিতে গরম গরম ঘি ছড়িয়ে দিয়ে তার উপরে অল্প একটু গরম মশলার গুঁড়া  ছড়িয়ে দিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন।
  • ব্যস, ৫  মিনিট  পরে তরকারির উপর থেকে  ঢাকনা টা সরিয়ে নিলেই তৈরি মজাদার  দই – পুদিনা মুরগি।

 

তাহলে দেখলেন তো কত সহজেই এবং অল্প কিছু উপকরণ দিয়ে তৈরি হয়ে গেলো মুরগির মাংসের ভিন্নধর্মী একটি মজার রেসিপি, দই – পুদিনা মুরগি। তাহলে আপনিও আজকেই রান্না করে ফেলুন মজাদার এই রেসিপি টি। এটি ভাত বা পোলাও দুটির সাথেই খুব জমে যাবে।http://মজাদার ও ভিন্নধর্মী রেসিপি – দই পুদিনা মুরগি।

মন্তব্যসমূহ

আমি একজন শিক্ষার্থী। নতুন কিছু সম্পর্কে জানতে ও শিখতে ভালোবাসি এবং অন্যদের সাথে সেটা শেয়ার করতে ভালো লাগে।

মন্তব্য করুন