রাগ নিয়ন্ত্রণের সহজ কিছু কৌশল

রাগ নিয়ন্ত্রণের সহজ কিছু কৌশল

অন্যান্য আবেগ অনুভূতির মতো রাগ অতি সাধারণ একটি ব্যাপার, তবে যদি সেটা মাত্রাতিরিক্ত না হয়। যারা প্রায়শই রেগে উঠেন এবং রাগের সময় হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন, তাদের পড়তে হয় নানা সমস্যায়। লাগামহীন রাগের কারণে যেমন প্রিয়জনদের সাথে সম্পর্কের অবনতি হয়, তেমনি এই রাগের কারণে সৃষ্ট মানসিক অশান্তি আর ঝগড়া-বিবাদ জীবনকে দুর্বিষহ করে তোলে! তাই জানতে হবে রাগ নিয়ন্ত্রণের কিছু কৌশল। কোন কোন কৌশল হাস্যকর মনে হলেও প্রয়োজনের সময় বেশ কাজে দেয়। সেরকমই কিছু কৌশল নিয়ে আমাদের এ আয়োজন-

হাঁটতে বের হোন

রাগ নিয়ন্ত্রণের সহজ কিছু কৌশল

দৈনিক হাঁটা শুধু যে আমাদের সুস্থ থাকতে সাহায্য করে তা নয়, বরং রাগ সামলাতেও হাঁটা সহায়তা করে। আপনার রাগটা যদি চরম হয়ে যায় তবে দেরি না করে কোন নিরিবিলি স্থানে হাঁটতে বের হয়ে যান। চারপাশের পরিবেশ ও প্রাকৃতিক বাতাস সহজেই আপনাকে শীতল করবে, সেই সাথে মন ও শরীর থেকে নেতিবাচক এনার্জি দূর হবে।

জায়গা বদল করুন

বেশি রেগে গেলে আপনি যে জায়গায় আছেন সেখান থেকে সরে যান। কারণ কোন পরিস্থিতিতে যদি মনে হয় আপনি রেগে যাচ্ছেন, সেখানে আরো বেশি সময় বসে থাকার মানে রাগটা বাড়িয়ে তোলা। তবে আপনাকে স্থায়ীভাবে জায়গা বদলের কথা বলছি না! বরং কিছু সময়ের জন্য অন্য জায়গা থেকে ঘুরে আসুন, যেখানে কেউ আপনাকে বিরক্ত করবে না। এতে রাগ সামলানোর জন্য আপনি একান্ত কিছু সময় পেয়ে যাবেন।

মন খোলে কথা বলুন

রাগ প্রকাশের ভঙ্গি একেকজনের একেক রকম। কেউ চিৎকার চেঁচামেচি করেন, কেউ জিনিসপত্র ভেঙে ফেলেন, কেউবা আবার অধিক ক্রোধে নিজেরই ক্ষতি করেন। এসব উপায়ে আদৌ কি রাগ কমে? রেগে গেলে অস্থির না হয়ে বরং মন খোলে কারো সাথে কথা বলুন। যার সাথে রাগ করেছেন, যদি সম্ভব হয় তার সাথে আলোচনা করুন। আর সেটা সম্ভব না হলে রাগ বা ক্রোধের বিষয়টা নিয়ে প্রিয়জন বা কাছের বন্ধু-বান্ধবদের সাথে কথা বলুন। দেখবেন ভেতরের ক্রোধটা আপনাকে আর কষ্ট দিবে না!

গণনা করুন

ছোটকালের শেখা গণনা আমরা জীবনের বহু ক্ষেত্রে ব্যবহার করি। রাগ নামক শত্রুকে পরাস্থ করতেও কাজে আসবে গণনার কৌশলটি। যখনি রেগে যাবেন, তখনি ধীরে ধীরে ১০ পর্যন্ত গুনতে থাকুন। নিজের সমস্ত মনোযোগ তখন গণনার দিকে নিয়ে যান। দেখবেন রাগ অদৃশ্য হতে সময় লাগবে না।

গান গাইতে শুরু করুন

রাগ নিয়ন্ত্রণের সহজ কিছু কৌশল

রাগ দমনের একটি মজার উপায় হচ্ছে গান গাওয়া। উত্তপ্ত মাথায় হয়তো গানের সঠিক লাইনগুলো আসবে না। তারপরও রেগে গেলে নিজের প্রিয় গান গাইতে শুরু করুন, তা সে আপনার যতই বেসুরো কণ্ঠ থাকুক। ধীরে ধীরে সব রাগ অভিমান ভুলে গিয়ে আপনি প্রিয় গানটা উপভোগ করতে শুরু করবেন।

মজার কিছু মনে আনুন

রেগে গেলে নিজের রাগ নিয়ন্ত্রণ করা কারো জন্য ভীষণ কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। তবে রাগ প্রকাশের চেয়ে সেটা সামলে নেয়াই বেশি যুক্তিযুক্ত। কারণ কখনো কখনো রেগে যাওয়া মানে চরমভাবে হেরে যাওয়া। রাগ কমানোর আরেকটি কার্যকর কৌশল হচ্ছে মজার ঘটনাগুলো মনে করা। রাগের মুহূর্তগুলোতে হাস্যরসে ভরা গল্প, কৌতুক বা নিজের সাথে ঘটে যাওয়া মজার ঘটনাগুলো নিয়ে চিন্তা করুন। দেখবেন নিজের সমস্ত রাগগুলো উড়ে গিয়ে ঠোটের কোন হাসি ফুটে উঠবে!

মন্তব্যসমূহ

মন্তব্য করুন