মজাদার চকোলেট চিপস কুকি রেসিপি

মজাদার চকোলেট চিপস কুকি রেসিপি

পশ্চিমা দেশ গুলোর ডেজার্ট আইটেম গুলোর মধ্যে খুব জনপ্রিয় একটি আইটেম হচ্ছে চকোলেট চিপস কুকি। আমাদের দেশেও ধীরে ধীরে এই খাবারটির জনপ্রিয়তা বাড়ছে। এমনকি যারা বিস্কিট নামক খাদ্যটার নাম শুনলেও নাক সিটকান তাদের মধ্যেও কিন্তু কুকির বেশ জনপ্রিয়তা আছে। আর বাচ্চারা তো এই খাবারটি অত্যন্ত পছন্দ করে থাকে। বিশেষ করে চকোলেট চিপস কুকি তো তাদের পছন্দের তালিকায় প্রায় সব সময়ই এক নম্বরে থাকে। তবে যে কোন ধরণের কুকি বিশেষ করে চকোলেট চিপস কুকি বানানো কিন্ত একটু ট্রিকি। এই কুকি বানাবার ডোটা রেডি করার সময় বেশ কিছু টিপস এবং ট্রিক্স ফলো করতে হয়।তা না হলে কুকি ভাল হয় না। আজ আমি এজন্য বস্তারিত ভাবে চকোলেট চিপস কুকি কিভাবে বানাতে হয় আ নিয়ে একটা আর্টিকেল লিখছি। আশা করি এরপর থেকে আপনারাও কোন ঝামেলা ছাড়াই চকোলেট চিপস কুকি বানাতে পারবেন।

চকোলেট চিপস কুকি বানাতে যা যা লাগবে

  • ময়দা ২ কাপ
  • ব্রাউন সুগার ৩/৪ কাপ
  • সাদা চিনি ১/২ কাপ
  • আনসল্টেড বাটার ৩/৪ কাপ
  • ডিম ১টি
  • বেকিং সোডা ১ চা চামচ
  • লবণ ১/২ চা চামচ
  • ভ্যানিলা এক্সট্রাক্ট ১ চা চামচ
  • দারচিনি গুড়া ১/২ চা চামচ
  • চকোলেট চিপস কুকি ১ কাপ
  • কাঠ বাদাম ১/২ কাপ

চকোলেট চিপস কুকি যে পদ্ধতিতে বানাতে হবে

১ম ধাপ

এই রেসিপিটা রেডি করার আগে অভেন প্রিহিট করে নিতে হবে। এর জন্য অভেন ১৮০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে মোটামুটি ৫ মিনিট থেকে ১০ মিনিট প্রিহিট করলেই চলবে। আমি চকোলেট চিপস কুকি বানাবার জন্য যেই পরিমাপ এর উপাদান উল্লেখ করেছি তাতে মোটামুটি ২৪টি থেকে ২৫টি কুকি বানানো যাবে। এই কয়টি কুকি বানাবার জন্য ১৮০ ডিগ্রি সেলসিয়াস দরকার হবে।

এরপর বেকিং ট্রেতে ট্রের মাপ মত একতা ট্রেসিং পেপার কেটে বসিয়ে দিতে হবে। বেকিং ট্রেতে ট্রেসিং পেপার বসানোর আগে ট্রে চারপাশে অল্প একটু তে ব্রাশ করে নিতে হবে। এতে করে ট্রেসিং পেপার সরে যাবে না। ২৪ থেকে ২৫টা চকোলেট চিপস কুকি বেক করার জন্য দুটি ট্রে দরকার হবে। অথবা আপনার ইচ্ছা হলে কিংবা অভেন এর সাইজ ছোট হলে আপনি দুই বারেও এই চকোলেট চিপস কুকি বানিয়ে নিতে পাড়েন।

২য় ধাপ

এই বার একটা পাত্রে ময়দা নিতে হবে। এই ময়দার মধ্যে লবণ ও বেকিং সোডা যোগ করতে হবে। সেই সাথে যোগ করতে হবে ভাল কোয়ালিটির দারচিনি গুড়া। খুব ভাল হয় যদি বাসায় গুড়া করা দারচিনি ব্যবহার করা যায়। অনেকে আবার বেকড খাবারের মধ্যে দারচিনি কিংবা এলাচের গুয়া পছন্দ করেন না। সেক্ষেত্রে দারচিনি গুড়া ব্যবহার না করলেও চলবে। দারচিনি গুড়া ছাড়াও এই চকোলেট চিপস কুকি অনেক টেস্টি লাগে। তবে অবশ্যই দারচিনি গুড়া যোগ করা হলে সেটি এর ফ্লেভারে একটু ভিন্ন মাত্রা যোগ করে থাকে।

এই সব গুলো উপকরণ প্রথমে একটা চামচ দিয়ে ভাল করে মিক্স করে নিতে হবে। এর পরে একটা বড় চালনির উপর এই মিক্স করা ময়দা অল্প অল্প করে ঢেলে চেলে নিতে হবে। এই রকম করার একটা কারণ আছে। এতে করে বেকিং সোডা সম্পূর্ণ অয়দার মধ্যে সমান ভাবে মিশে যাবে। আসলে অনেক সময় কুকি বানাবার সময় দেখা যায় যে কিছু কিছু কুকি বেশি ফুলে গেছে। আবার কিছু কিছু কুকি একদমই ফুলেনি কিংবা এত শক্ত রয়ে গেছে যে দাত দিয়ে ভাঙ্গা যাচ্ছে না। আসলে বেকিং সোডা ঠিক ভাবে না মিশলে এরকম হতে পারে। এই জন্য লিকুইড উপকরণের সাথে ময়দা ও বেকিং সোডার মিশ্রণ মেশানোর আগে এটাকে চালনি দিয়ে চেলে নেয়া ভাল। এতে করে পরবর্তিতে সব উপকরণ এক সাথে মেশানো অনেক সহজ হএয় যাবে।

৩য় ধাপ

এই বার একটা বোলে মাখন নিতে হবে। মাখন রুম টেম্পারেচারে থাকলে ভাল হয়। তবে মাখন যেন একদম গলে না যায় সেদিকেও লক্ষ্য রাখতে হবে। এই বার মাখনের মধ্যে প্রথমে সাদা চিনি দিতে হবে। মিডিয়াম স্পিডে ৩ মিনিট থেকে চার মিনিট বিট করতে হবে। ততক্ষণে চিনি গলে মাখনের সাথে মিশে যাবে। এরপর ব্রাউন সুগার যোগ করে বিট করতে হবে। ব্রাউন সুগার দুই বারে যোগ করে বিট করলে ভাল হয়। এতে করে চিনি গলে যেতে সুবিধা হবে। চিনি গলে গিয়ে মাখনের সাথে মিশে একটা ক্রীমি টেক্সচার তৈরী করবে।

এরপর এই মাখন ও চিনির মিশ্রণ এর মধ্যে ভ্যানিলা এক্সট্রাক্ট ও একটা ডিম যোগ করতে হবে। এবং আবারো বিট করে নিতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে যেন কোন লাম্পস না থাকে।

৪র্থ ধাপ

মাখনের সাথে চিনি, ডিম ও ভ্যানিলা এক্সট্রাক্ট ভাল ভাবে মিশে গেলে এর মধ্যে অল্প অল্প করে ময়দার মিশ্রণ যোগ করতে হবে এবং মেশাতে হবে। এক বারে সব ময়দা যোগ করা যাবে না। তাহলে লাম্পস বেধে যেতে পারে। অল্প অল্প করে মেশাতে হবে এবং এগ বিটার দিয়ে একদম অল্প স্পিডে মিশিয়ে নিতে হবে। এই ভাবে সম্পূর্ণ ময়দা মাখনের মিশ্রণের সাথে মিশিয়ে নিতে হবে। একটু স্টিকি একটা মিক্স তৈরী হবে।

৫ম ধাপ

এই বার এই স্টিকি মিক্স এর মধ্যে চকোলেট চিপস যোগ করতে হবে। ভাল ভাবে মিশিয়ে দিতে হবে। এই বার আর বিটার ব্যবহার করার দরকার নেই। একটা বড় চামচ দিয়ে আস্তে আস্তে মিশিয়ে দিলেই হবে। এর পরে কাঠ বাদাম যোগ করতে হবে। কাঠ বাদাম যোগ করাটা সম্পূর্ণ আপনার ইচ্ছা। এটা এই রেসিপিতে যোগ না করলেও চলে। তবে আমার নিজের বেশ ভাল লাগে বলে আমি যোগ করে দেই। কাঠ বাদাম মাঝ খান থেকে অর্ধেক করে কেটে নিলে ভাল হয়। কাঠ বাদাম গুলোও সুন্দর করে এই চকোলেট চিপস কুকির ব্যাটারে ভাল মত মিক্স কএ দিতে হবে।

৬ষ্ঠ ধাপ

এই বার এই রেডি করা ডোটা দুই ভাগ করে নিন। প্রতিটা ভাগ থেকে ১২টা সমান অংশ আলাদা করে নিতে হবে। এবং এই আলাদা আলাদা অংশ দিয়ে ১২টি সমান বল বানিয়ে নিতে হবে। এই বল গুলো বেকিং ট্রের উপর একটু ফাক ফাক করে বসিয়ে দিতে হবে। এর পর হাত দিয়ে হালকা করে চেপে ফ্ল্যাট করে দিতে হবে। আপনি যদি বেশি মচমচে আর পাতলা কুকি পছন্দ করেন তাহলে হাত দিয়ে বেশি করে চাপ দিয়ে একটু পাতলা করে দিবেন। আর যদি একটু মোটা কুকি খেতে চান তবে খুব বেশি পাতলা করার দরকার নেই। কুকি গুলো হালকা চাপ দিয়ে একটু চ্যাপ্টা করে দিলেই হবে। একটা বিষয় খেয়াল রাখতে হবে। কুকি গুলোর মধ্যে যেন অল্প অল্প জায়গা ফাকা থাকে। কারণ কুকি গুলো বেক হবার পর একটু আয়তনে বাড়বে।

৭ম ধাপ

এই বার আগে থেকে প্রিহিট করা অভেনে এই বেকিং ট্রে রেখে দিতে হবে। ১৮০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ১২ মিনিট থেকে ১৪ মিনিট বেক করতে হবে। এরপর বেকিং ট্রে বের করে রুম টেম্পারেচারে রেখে দিতে হবে যাতে করে চকোলেট চিপস কুকি গুলো ঠান্ডা হয়ে রুম টেম্পারেচারে চলে আসে। চকোলেট চিপস কুকি গুলো রুম টেম্পারেচারে এসে গেলে একটা কাঁচের এয়ার টাইট বয়ামে রেখে দিতে হবে। আপনি যদি চকোলেট চিপস কুকি গুলো রুম টেম্পারেচারে রখে দেন তাহলে এগুলো তিন দিন পর্যন্ত ভাল থাকবে। আর যদি ফ্রিজে রাখেন তাহলে এই চকোলেট চিপস কুকি গুলো ১০ দিন থেকে ১২ দিন পর্যন্ত ভাল থাকবে।

 

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

মন্তব্য করুন