বেসিক বাটারক্রীম ফ্রস্টিং

বেসিক বাটারক্রীম ফ্রস্টিং

যে কোন বেকিং ক্লাসের শুরুতেই যেই জিনিসটা শেখানো হয় সেটা হচ্ছে বেসিক স্পঞ্জ কেক এবং বেসিক বাটারক্রীম ফ্রস্টিং। এরপর আস্তে আস্তে এডভান্স কোর্স করানো হয়ে থাকে। এখন ইন্টারনেটের কল্যাণে আমরা ঘরে বসেই বিভিন্ন্রকম কেক বানানো কিংবা ডেকোরেশন করা শিখতে পারি। কেক বানানোটা যদিও তেমন ঝামেলা দায়ক হয় না। তবে বিপত্তি বাধে তখনি যখন আমরা কেক ডেকোরেশন করার জন্য বাটারক্রীম বানাতে যাই। আসলে এই বাটারক্রীম বানানোটা কিন্তু বেশ কৌশলের একটা কাজ। এই কৌশল গুলো ঠিক মত পালন না করা হলে বাটারক্রীম ভাল হয় না। এই জন্যই দেখা যায় বিট করার সময় কারো বাটারক্রীম গলে গেছে। আবার দেখা যায় কারো কারো বাটারক্রীম বেশি শক্ত রয়ে গেছে। আবার দেখা যায় কোন কোন ক্ষেত্রে বাটারঅক্রীম এর মধ্যে চিনি দানা দানা রয়ে গেছে। এই জন্য আজ আমি কিভাবে ঘরে বসে বেসিক বাটারক্রীম তৈরী করতে হয় তা বিস্তারিত বলে দেব। আশা করি এই ভাবে বাটারক্রীম তৈরী করলে তা পারফেক্ট হবে।

বেসিক বাটার ক্রীম বানাতে যা যা লাগবে

  • আনসল্টেড বাটার ১/২ কাপ
  • আইসিং সুগার ২ কাপ
  • ভ্যানিলা এসেন্স ১/৪ চা চামচ
  • লিকুইড দুধ ২ টেবিল চামচ

বেসিক বাটারক্রীম যে পদ্ধতিতে বানাতে হবে

১ম ধাপ

প্রথমে একটা বড় বোলে বাটার নিতে হবে। খেয়াল রাখবেন বাটার যেন অবশ্যই আনসল্টেড হয়। এই বার মিডিয়াম স্পিডে এগ বিটার দিয়ে বাটার বিট করে নিতে হবে। খুব বেশি সময় বিট করার দরকার হবে না। চার মিনিট থেকে পাঁচ মিনিট বিট করলেই বাটার স্মুথ হয়ে যাবে।

২য় ধাপ

বাটার স্মুথ হয়ে গেলে এর মধ্যে অল্প অল্প করে আইসিং সুগার যোগ করতে হবে। আর সেই সাথে বিট করতে হবে। কখনোই এক সাথে সব আইসিং সুগার যোগ করে দেবেন না। তাহলে চিনি গলানো এবং তা স্মুথ ভাবে বাটারের সাথে মেশানো খুব কঠিন হয়ে পড়বে। অল্প অল্প করে আইসিং সুগার যোগ করতে হবে এবং মিডিয়াম স্পিডে বিট করে বাটারের সাথে মিশিয়ে নিতে হবে। এই সময় বোলের গায়ে যেসব বাটার লেগে থাকবে তা একটা চামচ দিয়ে উঠিয়ে বিট করা বাটারের সাথে বারে বারে মিশিয়ে দিতে হবে। তা না হলে ঐ অংশের বাটারে চিনি মিশবে না। আর খাওয়ার সময় দানা দানা লাগবে।ীই ভাবে সম্পূর্ণ আইসিং সুগার বাটারের সাথে মিনিশিয়ে নেবার পর দেখবেন খুব সুন্দর সাদা রঙের মসৃণ একটা ক্রীম তৈরী হয়েছে।

৩য় ধাপ

এই বার এই বাটারক্রীমের মধ্যে ভ্যানিলা এসেন্স যোগ করতে হবে। আর যদি দেখেন বাটারক্রীম এর টেক্সচার আপনার পছন্দ মত হয়েছে তবে এর মধ্যে আর লিকুইড দুধ যোগ করার দরকার নেই। আর যদি মনে হয় বাটারক্রীম বেশি স্টিফ হয়ে গেছে তাহলে দুই টেবিল চামচ লিকুইড দুধ যোগ করতে পাড়েন। তবে দুধ অবশ্যই ঠান্ডা হতে হবে। এই বার আর এক বার মিডিয়াম স্পিডে বাটারক্রীম বিট করে নিলেই হল। রেডি আপনার বেসিক বাটারক্রীম ফ্রস্টিং।

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

১ টি মন্তব্য
  1. Reply সুইস মেরাং বাটারক্রীম ফ্রস্টিং রেসিপি | চটপট - এসো নিজে করি অক্টোবর ১৪, ২০১৮ তারিখে ১:৫৯ অপরাহ্ন

    […] রেসিপি শেয়ার করেছি। রেসিপিটি আপনি এই লিঙ্কে পেয়ে যাবেন। আজ আমি আপনাদের সাথে আর এক […]

মন্তব্য করুন