ডিম ছাড়া ফ্রেঞ্চ টোস্ট

ডিম ছাড়া ফ্রেঞ্চ টোস্ট

ফ্রেঞ্চ টোস্ট কিন্তু আমাদের দেশের খুব জনপ্রিয় একটি খাবার। যদিও এটি আমাদের দেশিয় কোন খাবার নয়। তবুও আমাদের দেশের মানুষের মধ্যে এই ফ্রেঞ্চ টোস্টের জনপ্রিয়তার কিন্তু কমতি একেবারেই নেই। বরং ছোট বড় সকলের মাঝে এই খাবারটি অনেক জনপ্রিয়। আর রাধুণীদের কাছে এই খাবারটির জনপ্রিয়তা আরো বেশি। কারণ এটি বানাতে সময় লাগে অনেক কম। অথচ এটি খেতে অনেক বেশি মজাদার হয়ে থাকে। আর অল্প সময়ে, অল্প পরিশ্রমে আর অল্প খরচে যদি একটা মজার খাবার আনানো যায় তাহলে যে কোন রাধুণী খুশি হবেন এটাই স্বাভাবিক।

ফেঞ্চ টোস্ট সাধারণত সকালের নাস্তা হিসেবেই খাওয়া হয়ে থাকে। সেই সাথে বাচ্চাদের স্কুলের টিফিন হিসেবেও এটি বেশ ভাল একটা অপশন। তবে আমাদের মাঝে অনেকেই আছেন যারা বিকেলে গরম গরম চা কিংবা কফির সাথে এক পিস ফ্রেচ টোস্ট বেশ পছন্দ করেই খেয়ে থাকে। আসলে এই খাবারটি এমনই। যে কোন সময়ে যে কোন ভাবেই এটি খেতে মজা লাগবে। এই ফ্রেঞ্চ টোস্ট কিন্তু বিভিন্ন ভাবে বানানো যায়। ইচ্ছা হলে ডিমের সাথে বিভিন্ন রকম মশলা আর লবণ যোগ করে মশলাদার ফ্রেঞ্চ টোস্ট বানানো যায়। আবার আপনার যদি মিষ্টি খেতে বেশি ভাল লাগে তাহলে আপনি ডিমের সাথে চিনি যোগ করে মিষ্টি ফ্রেঞ্চ টোস্ট বানাতে পাড়েন।

ফ্রেঞ্চ টোস্ট এর ধরণ

যদিও দুই ভাবে ফ্রেঞ্চ টোস্ট তৈরী করা যায়। তবে মূলত মিষ্টি ফ্রেঞ্চ টোস্টই বেশি চলে সব বয়সী মানুষের মধ্যে। তবে আপনি যে ধরণের ফ্রেঞ্চ টোস্টই বানান না কেন, দুটো উপকরণ কিন্তু আপনার অবশ্যই লাগবে। একটি তো ব্রেড। আর একটি উপকরণ হচ্ছে ডিম। ডিম ছাড়া ফ্রেঞ্চ টোস্ট তো কল্পনাই করা যায় না। একারণে ভেজিটেরিয়ানদেরকে ফ্রেঞ্চ টোস্ট এর মত মজার একটা খাবারকে বাতিলের খাতাতেই সব সময় রাখতে হয়। কিন্তু কেমন হবে যদি এই মজাদার মিষ্টি ফ্রেঞ্চ টোস্ট ডিম ছাড়াই বানানো যায়। তাহলে তো কোন রকম বাধা ছাড়াই সকলেই এটি খেতে পারবে। আসুন আজ আমি আপনাদের সাথে ডিম ছাড়া ফ্রেঞ্চ টোস্ট বানাবার একটি রেসিপি শেয়ার করব। এই রেসিপি আবনাতে কি কি উপকরণ লাগবে আর কিভাবে বানাতে হবে তা জেনে নেই চলুন।

ডিম ছাড়া ফ্রেঞ্চ টোস্ট বানাতে যা যা লাগবে

  • বড় সাইজের পাউরুটি ৪ স্লাইস
  • দুধ ১ কাপ
  • চিনি ২ টেবিল চামচ
  • কাস্টার্ড পাউডার ২ চা চামচ
  • মাখন ভাজার জন্য

ডিম ছাড়া ফ্রেঞ্চ টোস্ট যে পদ্ধতিতে বানাতে হবে

১ম ধাপ

প্রথমে এই ডিম ছাড়া ফ্রেঞ্চ টোস্ট রান্নার শুরুতেই কাস্টার্ড রেডি করে নিতে হবে। এর জন্য একটা ছোট পাত্রে কাস্টার্ড পাউডার নিয়ে এর মধ্যে অল্প পরিমাণে দুধ যোগ করতে হবে। খুব বেশি দুধ যোগ করার দরকার নেই। ১/৪ কাপ মত দুধ যোগ করলেই হবে। এই বার একটা চামচ দিয়ে খুব ভাল মত কাস্টার্ড পাউডার দুধের সাথে মিশিয়ে নিতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে যেন কোন লাম্পস না থাকে।

এই বার একটা সস প্যানে বাকি দুধ টুকু ঢেলে দিন। এর মধ্যে চিনি যোগ করে দিতে হবে। ভালমত মিশিয়ে চুলা জ্বালিয়ে দিতে হবে। দুধ একটু উষম গরম হতে শুরু করলে এর মধ্যে আগে থেকে গুলে রাখা কাস্টার্ড পাউডার দিয়ে দিতে হবে। এরপর অল্প আঁচে কিছুক্ষণ রান্না করতে হবে। এই সময় খুনতি দিয়ে অনবরত নাড়া চাড়া করতে হবে। তা না হলে কাস্টার্ড সস প্যানের তলায় লেগে যেতে পারে। এই ভাবে অল্প আঁচে কিচু সময় জ্বাল দেবার পর দেখবেন কাস্টার্ড ঘন হয়ে আসছে। তখন চুলা বন্ধ করে দিতে হবে।

২য় ধাপ

এই বার একটা নন স্টিক তাওয়ায় বেশ খানিকটা মাখন ব্রাশ করে নিতে হবে। ইচ্ছা হলে মাখন একটু বেশি করেও দিতে পাড়েন যাতে করে ফ্রেঞ্চ টোস্ট শ্যালো ফ্রাই করা যায়। এই বার রেডি করে নেয়া কাস্টার্ডের মধ্যে পাউরুটির স্লাইস ডুবিয়ে মাখনের মধ্যে ভাজতে দিতে হবে। ইচ্ছা হলে ব্রেড স্লাইস মাঝখান থেকে কেটে দুই ভাগ করে নিতে পাড়েন। দুই মিনিট থেকে তিন মিনিট ফ্রেঞ্চ টোস্টের এক দিক ভেজে নিতে হবে। এর পরে এগুলো উলটে দিতে হবে। অপর পিঠও একই ভাবে ভেজে নিতে হবে। এরপর এটি উঠিয়ে একটা সার্ভিং প্লেটে সার্ভ করতে হবে।

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

মন্তব্য করুন