ত্বকে ইনস্ট্যাণ্ট উজ্জ্বলতা আনতে দারুণ কার্যকারি তিনটি উপকরণের ফেস প্যাক

ত্বকে ইনস্ট্যাণ্ট উজ্জ্বলতা আনতে দারুণ কার্যকারি তিনটি উপকরণের ফেস প্যাক

উজ্জ্বল ফর্সা ত্বকের জন্য আমরা মেয়েরা কত রকম চেষ্টাই না করে থাকি। অনেক সময় এর ফল পাওয়া যায়। আবার অনেক সময় নানা রকম চেষ্টা করেও উজ্জ্বল ফর্সা ত্বকের দেখা পাওয়া যায় না। এর পিছনে বিভিন্ন রকম কারণ কাজ করতে পারে। যেমন ঘুম কম হওয়া কিংবা অতিরিক্ত কাজের চাপ কিংবা টেনশন। ইত্যাদি নানা কারণে আমাদের ত্বক কালচে কিংবা ফ্যাকাশে হয়ে যেতে পারে। আর সকালে ঘুম থেকে উঠে যদি আয়নায় মলিন কালচে ত্বক দেখা যায় তাহলে কারই বা মন ভাল থাকে। দিনের শুরুতেই সারা দিনটাই মাটি হয়ে যায়। তার উপর যদি সকাল সকাল কোথাও যাবার তাড়া থাকে তাহলে তো কথাই নেই। ঠিক মত ত্বকের যত্ন নেয়া কিংবা মেকাপ করার সময় থাকে না। ফলে এই মলিন কালচে মুখ নিয়েই বাইরে বের হতে হয়। আজ এই সমস্যা স্মাধানের একটি পথ নিয়ে আপনাদের সাথে আমি আলোচনা করব। সেটি হচ্ছে মাত্র তিনটি উপকরণ দিয়ে বানানো একটি ফেস প্যাক

আসলে ত্বকের যে কোন ধরণের যত্ন নিতে ন্যাচারাল উপকরণের কোন বিকল্প হতে পারে না। একই কথা খাটে ইনস্ট্যান্ট উজ্জ্বলতার ক্ষেত্রেও। আপনি যতই মেকাপ করুন না কেন, ন্যাচারাল গ্লোর মত সৌন্দর্য আর কোন কিছুর মধ্যেই থাকতে পারে না। আর এই ন্যাচারাল গ্লো পাবার জন্য বিভিন্ন রকম ক্রিম কিংবা পাউডারের উপর নির্ভর না করে আমাদের উচিত সম্পূর্ণ ভাবে ন্যাচারাল উপাদান গুলোর উপর নির্ভর করা। তাই তো আমি এই সহজ ফেস প্যাক নিয়ে হাজির হয়েছি। আপনি বিশ্বাস করবেন না যে এই জাদুকরি ফেস প্যাকটি মাত্র তিনটি উপকরণ দিয়েই বানিয়ে ফেলা যায়। অথচ যে কোন নামি দামি ক্রিম থেকে এর কার্যকারিতা কোন অংশেই কম নয়। আর এটি বানানো ও ব্যবহার করাও অত্যন্ত সহজ। সেই সাথে উপকরণ গুলোও অত্যন্ত সহজলভ্য। তাই যে কোন সময়ে ত্বকে ইনস্ট্যান্ট উজ্জ্বলতা পাবার জন্য এই ফেস প্যাকটি একটি চমতকার হাতিয়ার হতে পারে। আসুন দের না করে এই জাদুকরি ফেস প্যাক বানানোর জন্য উপকরণ ও পদ্ধতি জেনে নেয়া যাক।

ফেস প্যাক বানাতে যা যা লাগবে

  • চালের গুড়া ২ চা চামচ
  • টক দই ১ চ চামচ
  • মধু ১ চা চামচ

ফেস প্যাক যে পদ্ধতিতে বানাতে হবে

প্রথমে একটা পাত্রে টক দই ও মধু নিতে হবে। এই দুটি উপকরণ খুব ভাল ভাবে প্রথমে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর এর মধ্যে অল্প অল্প করে চালের গুড়া যোগ করতে হবে। এবং মিশিয়ে নিতে হবে। সব চালের গুড়া মেশানো হয়ে গেলে দেখবেন বেশ সুন্দর একটা ঘন পেস্ট তৈরী হয়ে গেছে। তবে খেয়াল রাখতে হবে যে এই পেস্টের মধ্যে কোন লাম্পস না থাকে। সব কটি উপকরণই খুব স্মুথলি মিশিয়ে নিতে হবে।

ফেস প্যাক যেভাবে ব্যবহার করতে হবে

এই ফেস প্যাকটি মুখে লাগানোর আগে অবশ্যই কোন ভাল মানের ফেস ওয়াশ দিয়ে মুখ ও গলার ত্বক সুন্দর করে পরিস্কার করে নিতে হবে। তারপর একটা শুকনা তোয়ালে দিয়ে আস্তে আস্তে মুখ ও গলার ত্বক শুকিয়ে নিতে হবে। এরপর এই ফেস প্যাক সমান ভাবে মুখে ও গলার ত্বকে লাগিয়ে নিতে হবে। ফেস প্যাক লাগানোর পর ২০ মিনিট থেকে ২৫ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। এই সময়ের মধ্যে ফেস প্যাক সম্পূর্ণ শুকিয়ে যাবে। যদি ফেস প্যাক তখনো না শুকায় তবে আরো মিনিট পাঁচেক রেখে দিতে পারেন। এরপর ঠান্ডা পানি দিয়ে ভাল মত মুখ পরিস্কার করে নিতে হবে। দেখবেন আপনার মুখ ও গলার ত্বক কতটা উজ্জ্বল ও চকচকে দেখাচ্ছে।

ফেস প্যাক ব্যবহারের উপকারিতা

টক দই এর উপকারিতা

টক দই এর মধ্যে থাকে ল্যাকটিক এসিড। এই ল্যাকটিক এসিড মাইল্ড স্ক্রাবের মত কাজ করে ত্বকের উপর থেকে মরা কোষ ও ময়লা তুলে ফেলে। ফলে ত্বক গভীর থেকে পরিস্কার ও উজ্জ্বল হয়ে ওঠে।

চালের গুড়ার উপকারিতা

চালের গুড়ার মধ্যে থাকে প্রচুর পরিমাণে কার্বোহাইড্রেট। আপনি জানলে অবাক হবেন যে এই কার্বোহাইড্রেট শুধু আমাদের শরীরের জন্যই উপকারী তা কিন্তু নয়। এই কার্বোহাইড্রেট আমাদের ত্বককেও ফর্সা করে তোলে।

মধুর উপকারিতা

মধু হচ্ছে একটি প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজার। সেই সাথে এটি ত্বককে ফর্সা করে তোলে। আর ত্বকে থাকা দীর্ঘ দিনের পুরোনো দাগ দূর করতেও সাহায্য করে থাকে। একারণে নিয়মিত ফেস প্যাক এর সাথে মধু ব্যবহার করা হলে ত্বক আস্তে আস্তে দাগহীন ও ফর্সা হয়ে ওঠে।

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

মন্তব্য করুন