জোজোবা অয়েলের জাদুকরী ব্যবহার

 

 

জোজোবা অয়েল, এক কথায় মাল্টিপল ইউজ আছে এমন একটা তেল হিসেবে খুবই উপকারী। স্কিন ও হেয়ার কেয়ার-এর ডেইলি রুটিনে রাখার মত পারফেক্ট একটি প্রোডাক্ট এটি। আজ জোজোবা অয়েলে এর কিছু খুব সুন্দর ব্যবহার আপনাদের আমরা দেখাবো। স্কিন ক্যাফে-এর এই অয়েলটি শতভাগ প্রাকৃতিক, কোল্ড প্রেসড এবং অত্যন্ত খাঁটি। ব্যবহারের পর উপকারও পাবেন দারুণ ভাবে! চলুন আর কথা না বাড়াই। সরাসরি ব্যবহারগুলো দেখে নেই।

 

আমাদের সবারই কম-বেশি চুল পড়ার অভিজ্ঞতা রয়েছে। অনেক ক্ষেত্রে চুল পড়ে যাওয়ার ব্যাপারটি ক্ষণস্থায়ী হলেও কিছু ক্ষেত্রে সেটা পার্মানেন্ট হয়ে দাঁড়ায়। অনেক সময় অনেক প্রসাধনী সামগ্রী ব্যবহার করেও এ থেকে মুক্তি পাওয়া যায় না। কিন্তু ইভিনিং প্রিমরোজ অয়েল-এ আছে এমন সব উপকারী উপাদান যার সাহায্যে চুল পড়া কমে যাওয়ার পাশাপাশি চুল হয়ে উঠে স্বাস্থ্যজ্জল, কোমল ঘন ও মজবুত। এতে রয়েছে  গামা-লিনোলোনিক অ্যাসিড, ফ্যাটি অ্যাসিড এবং প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিডেন্টস। এটি চুলের যে কোন ক্ষতি সারিয়ে তুলতে সক্ষম অল্প কয়েকদিনেই। তাহলে চলুন, চুলের যত্নে ইভিনিং প্রিমরোজ অয়েল-এর কয়েকটি ব্যবহার দেখে নেয়া যাক।

 

১। কোকোনাট অয়েল এবং ইভিনিং প্রিমরোজ অয়েল

 

আপনার প্রয়োজন হবেঃ

২ চা চামচ নারকেল তেল

২ টেবিল চামচ ইভিনিং প্রিমরোজ অয়েল

 

পদ্ধতিঃ

একটি বাটিতে  দুটি তেল একসাথে মিশিয়ে নিন। এবার ৩০ সেকেন্ড এর মত তেলটি তাপ দিয়ে হালকা গরম করে নিন। তারপর ১৫ মিনিট যাবত মাথার স্ক্যাল্প-এ এবং সম্পূর্ণ চুলে ম্যাসাজ করতে থাকুন। ম্যাসেজ করা হয়ে গেলে ৩০ মিনিটের জন্য অপেক্ষা করুন তারপর  সালফেটবিহীন শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন এবং কন্ডিশনার লাগিয়ে আবার ভালো করে ধুয়ে নিন। এটি সপ্তাহে ৩-৪ বার ব্যবহারে ভালো ফল পাবেন।

 

চুল পড়া কমাতে কোকোনাট অয়েল এবং ইভিনিং প্রিমরোজ অয়েলঃ

নারকেল তেল সবচেয়ে টেকসই একটি  তেল । এটা ইভনিং প্রিমরোজ অয়েলের সাথে যুক্ত হয়ে এর কার্যকারীতা আরো বহুগুণ বাড়িয়ে দেয়। এছাড়াও এটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্টস-এর একটি সমৃদ্ধ উৎস যা চুলের যত্নে খুবই কার্যকর।

 

২। অলিভ অয়েল এবং ইভিনিং প্রিমরোজ অয়েল

 

আপনার প্রয়োজন হবেঃ

১ চা চামচ অলিভ অয়েল

১  টেবিল চামচ ইভিনিং প্রিমরোজ অয়েল

পদ্ধতিঃ

একটি বাটিতে  দুটি তেল একসাথে  ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এবার ৩০ সেকেন্ড তেলটি  তাপ দিয়ে হালকা গরম করে নিন। তারপর ১০-১৫ মিনিট যাবত মাথার তালুতে এবং সম্পূর্ণ চুলে ম্যাসাজ করতে থাকুন। ম্যাসাজ করা হয়ে গেলে ৩০ মিনিটের জন্য অপেক্ষা করুন। আপনি চাইলে সারারাত চুলে তেলটি রেখে দিতে পারেন। তারপর  সালফেটবিহীন শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন এবং কন্ডিশনার লাগিয়ে আবার ভালো করে ধুয়ে নিন। এটি সপ্তাহে ৩-৪ বার ব্যবহার করুন ভালো ফল পাবার জন্য।

 

চুল পড়া কমাতে অলিভ অয়েল এবং ইভিনিং প্রিমরোজ অয়েলঃ

অলিভ অয়েল একটি চমৎকার কন্ডিশনার এবং এটি খুব লাইট হয় যা চুলকে নরম শাইনি করে। এটি চুলের গোড়া শক্ত করে এবং চুল পড়ার হার বহুগুণ কমিয়ে দেয়।

 

৩। ক্যাস্টর অয়েল এবং ইভনিং প্রিমরোজ অয়েল

 

আপনার প্রয়োজন হবেঃ

১ টেবিল চামচ ক্যাস্টর অয়েল

১  টেবিল। চামচ ইভিনিং প্রিমরোজ অয়েল।

 

পদ্ধতিঃ

ক্যাস্টর অয়েল এবং প্রিমরোজ অয়েল একটি বাটিতে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। তারপর ৩০-৩৫ সেকেন্ড-এর মত হিট করুন। এবার চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত তেল ম্যাসাজ করতে থাকুন প্রায় ১০-১৫ মিনিট যাবত। ম্যাসাজ করা হয়ে গেলে ৪৫-৫০ মিনিটের জন্য রেখে দিন। তারপর মাইল্ড কোন শ্যাম্পু এবং ভালো কন্ডিশনার ব্যবহার করে চুল ধুয়ে ফেলুন। এটি সপ্তাহে ২-৩ বার ব্যবহার করুন ।

 

চুল পড়া কমাতে ক্যাস্টর অয়েল এবং ইভনিং প্রিমরোজ অয়েলঃ

ক্যাস্টর অয়েল বা রেড়ির তেল প্রাকৃতিক প্রোটিন সমৃদ্ধ যা চুলের  কেরাটিন পূরণ করতে সাহায্য করে আপনার চুলের মধ্যে ফাঁক কমিয়ে আনে অর্থাৎ চুল ঘন করে তুলতে সাহায্য করে। এতে আছে  ricinoleic এসিড যা চুলের গ্রোথ বাড়ায় এবং চুল ক্রমবর্ধমান হয়।

 

তাহলে দেখলেন তো, একটি মাত্র তেল, কিন্তু তার কত গুণ! এ যেনো একের ভেতর সব! আর ইভিনিং প্রিমরোজ অয়েল-এর সাথে যদি অন্য কোন তেল মিশিয়ে ব্যবহার করা যায় তাহলে সেটা আরো ফলদায়ক হয়। তাই চুলের সব রকম ক্ষতি সারাতে এবং চুল পড়া কমাতে আজ থেকেই ব্যবহার করুন ইভিনিং প্রিমরোজ অয়েল।

 

সূত্রঃ google

মন্তব্যসমূহ

কল্পবিলাসী আমি বাস্তবতা থেকে অজ্ঞাত নই। আমি সেই বিহঙ্গিনী যে ডানা ভর্তি ভালোবাসা নিয়ে পাখা মেলতে চাই চিলের সাথে সুদূর আকাশে.. ডানা ঝাপটিয়ে লিখে যেতে চাই স্বরচিত কল্পকথা ও মুক্তির মন্ত্র I

মন্তব্য করুন