ভীষণ মজার বেলে মাছের ঝুরো ভাজা

ভীষণ মজার বেলে মাছের ঝুরো ভাজা

বাঙ্গালি মানেই মাছে ভাতে একাকার। আসলে মাছ ছাড়া আমাদের কোন খাবারই যেন জমে না। তাই ভিন্ন ভিন্ন ভাবে আমরা বঙ্গালিরা মাছ রান্না করার চেষ্টা করে থাকি। সাধারণ ভাবে মাছ ঝোল করে আমরা তো সব সময়ই খেয়ে থাকি। আবার বিভিন্ন তরকারির সাথে মাছ তো আমরা মোটামুটি রোজই খাই। তবে আজ আমি মাছ দিয়ে বানানো যায় এমন একটি অন্য ধরণের রেসিপি আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চলেছি। এই রেসিপিটি হচ্ছে মজাদার বেলে মাছের ঝুরো ভাজা।

আসলে এই বেলে মাছের ঝুরো ভাজা রেসিপিটিকে আপনি একটি লেফট ওভার রেসিপিও বলতে পারেন। বেলে মাছ সাধারণত ভুনা করে কিংবা ঝোল করে ছাড়া খাওয়া হয় না। আর প্রায় সময়ই দেখা যায় যে কিছু বেলে মাছ রয়ে গেছে। এই বাসি বেলে মাছ গুলো পড়ে আর সহজে খাওয়া হয় না। আবার বেলে মাছ অনেক নরম হবার কারণে পুনরায় অন্য কোন তরকারিতে দেয়াও যায় না। এই সব ক্ষেত্রে আপনি এই রেসিপিটা কাজে লাগাতে পারবেন। আর এই রেসিপিটা খুবই টেস্টি একটি মাছের রেসিপি। আপনাকে যে শুধু লেফট ওভার বেলে মাছ দিয়ে এই রেসিপি দিয়ে এই রেসিপি করতে হবে তা কিন্তু না। এটি এতই মজা যে এমনিতেই আপনি বেলে মাছ ভেজে এই রেসিপিটা ট্রাই করতে চাইবেন। আমি আজ বেলে মাছ ভেজে নিয়ে কিভাবে এই বেলে মাছের ঝুরো ভাজা বানাতে হয় তা আপনাদের শেখাব। তবে আপনি যদি বাসায় বেচে যাওয়া বেলে মাছ থাকে তবে তা দিয়েও এই বেলে মাছের ঝুরো ভাজা বানিয়ে খেয়ে দেখতে পারেন।

এই রেসিপির আর একটা সুবিধা আছে। সেটি হচ্ছে বাচ্চারা সহজে মাছ খেতে চায় না। কিন্তু আপনি যদি সুন্দর করে এই বেলে মাছের ঝুরো ভাজা বানিয়ে তাদের সামনে পরিবেশন করতে পারেন। তাহলে তারা বুঝতেও পারবে না যে তাদের সামনে বেলে মাছের কোন রেসিপি দেয়া আছে। আর নতুন ধরণের রেসিপি দেখে তারা নিজের আগ্রহেই বেশ খানিকটা বেলে মাছের ঝুরো ভাজা খেয়ে নেবে। ছোট বাচ্চাদের বেলে মাছ খাওয়ানোর খুব ভাল উপায় হতে পারে এই বেলে মাছের ঝুরো ভাজা।

বেলে মাছের ঝুরো ভাজা বানাবার উপকরন সমূহ

বেলে মাছের ঝুরো ভাজা বানাবার জন্য খুব সাধারণ কিছু উপকরণ আমাদের দরকার হবে। এই উপকরণ গুলো প্রায় সব সময় আমাদের রান্না ঘরে কিংবা ফ্রিজের এক কোণে অযত্নে অবহেলায় পরে থাকে। অথচ এই সাধারণ উপকরণ গুলো ব্যবহার করেই অসাধারণ স্বাদের বেলে মাছের ঝুরো ভাজা খুব সহজেই বানিয়ে নেয়া যায়। আসুন কি কি উপকরণ ব্যবহার করে এই বেলে মাছের ঝুরো ভাজা রেসিপি রেডি করতে হবে তা জেনে নেয়া যাক। আর সেই সাথে এই উপকরণ গুলো আসলে কত টুকু পরিমাণে ব্যবহার করতে হবে তাও জেনে নেই চলুন।

বেলে মাছ ৬ থেকে ৭টি

হলুদ গুড়া পরিমান মত

লবণ পরিমাণ মত

সরষের তেল ৪ টেবিল চামচ

আস্ত তেজ পাতা ১টি

আস্ত শুকনা মরিচ ২ থেকে ৩টি

মিহি করে কুচি করে রাখা পেঁয়াজ ৩ টেবিল চামচ

মিহি করে কুচি করে রাখা রসুন ১ চা চামচ

মিহি করে কুচি করে রাখা আদা ১ চা চামচ

মিহি করে কুচি করে রাখা টমেটো ২ চা চামচ

মিহি করে কুচি করে রাখা কাঁচা মরিচ ৩ চা চামচ

মিহি করে কুচি করে রাখা ধনে পাতা ২ চা চামচ

মিহি করে কুচি করে রাখা পুদিনা পাতা ১ চা চামচ

লাল মরিচ গুড়া ১ চা চামচ

ভাজা জিরা গুড়া ১ চা চামচ

ভাজা ধনে গুড়া ১ চা চামচ

আস্ত আলু ১টি

বেলে মাছের ঝুরো ভাজা যে পদ্ধতিতে বানাতে হবে

বেলে মাছের ঝুরো ভাজা বানাবার পদ্ধতি খুবই সাধারণ। আর এটি বানাবার জন্য খুব বেশি সময়ও লাগে না। তাই আপনার কম সময়ে বিনা ঝামেলায় রেডি হয়ে যাওয়া রেসিপির তালিকায় অনায়াসে আপনি এই খাবারটি রেখে দিতে পারেন। তবে এই রেসিপিটা কয়েকটি ধাপে পর পর করতে হয়। এই যেমন মাছ ভেজে ছাড়িয়ে নেয়া, আলু ভেজে রাখা, ইত্যাদি। আসুন কিভাবে বিভিন্ন ধাপে এই বেলে মাছের ঝুরো ভাজা অল্প সময়ে ঝটপট বানিয়ে নেয়া যায় তা দেখে নেই।

১ম ধাপ

প্রথমে বেলে মাছ গুলো নুন ও হলুদ গুড়া পরিমাণ মত দিয়ে মেখে নিতে হবে। এই ভাবে পাঁচ মিনিট থেকে দশ মিনিট মাছ গুলো মেরিনেট করে রাখতে হবে। তার পরে একটা ফ্রাইং প্যানে বেশি করে সরষের তেল গরম করে নিতে হবে। এই গরম সরষের তেলে মেরিনেট করে রাখা বেলে মাছ গুলো ভেজে নিতে হবে হালকা কড়া করে। মাছ গুলো ভাজা হয়ে গেলে একটা প্লেটে তুলে রাখতে হবে। কিছু সময় অপেক্ষা করতে হবে। কিছু ক্ষণ পর ভাজা বেলে মাছ গুলো যখন একটু ঠান্ডা হয়ে আসবে তখন হাত দিয়ে কাটা থেকে মাছ গুলো আলাদা করে নিতে হবে। এই কাটা ছাড়া মাছ দিয়েই বেলে মাছের ঝুরো ভাজা রান্নাটা কমপ্লিট করা হবে।

২য় ধাপ

আলু ছোট ছোট কিউব করে কেটে রাখতে হবে। সরষের তেলে অল্প নুন ও হলুদ গুড়া দিয়ে মেখে আলুর ছোট টুকরা গুলো একটু মচমচে করে ভেজে নিয়ে একটা পাত্রে তুলে রাখতে হবে।

৩য় ধাপ

এই বার ঐ সরষের তেল এর মধ্যে আস্ত তেজপাতা ও আস্ত শুকনা মরিচ ফোড়ন দিতে হবে। এর পরে এতে মিহি করে কুচি করে রাখা পেঁয়াজ, রসুন ও আদা যোগ করতে হবে। বেশ লাল লাল করে ভেজে নিতে হবে। এই কুচি করে রাখা মশলা গুলো গোল্ডেন ব্রাউন কালার হয়ে গেলে এর মধ্যে মিহি করে কুচি করে রাখা টমেটো ও কাঁচা মরিচ যোগ করে দিতে হবে। এই অবস্থায় আগে থেকে ভেজে রাখা আলু ও মাছের ঝুরো গুলো দিয়ে দিতে হবে। পরিমাণ মত লবণ, চিনি ও লাল মরিচ গুড়া যোগ করতে হবে। খুব সুন্দর করে সব গুলো উপকরণ ভাজা ভাজা করে নিতে হবে। যখন দেখা যাবে সব কিছু এক সাথে খুব সুন্দর করে ভাজা ভাজা হয়ে এসেছে তখন উপর থেকে মিহি করে কুচি করে রাখা ধনে পাতা ও পুদিনা পাতা কুচি ছড়িয়ে দিতে হবে। এই দুটি উপকরণ দেবার পরে আরো দুই মিনিট থেকে তিন মিনিট এই বেলে মাছের ঝুরো ভাজা রান্না করতে হবে। এর পরে একটি পছন্দ মত সার্ভিং ডিশে ঢেলে পরিবেশন করতে হবে।

এই বেলে মাছের ঝুরো ভাজা গরম গরম খেতেই সব থেকে বেশি ভাল লাগে। তাই খাওয়ার অল্প সময় আগে এটা বানালে খেতে সব থেকে বেশি স্বাদ লাগবে।

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

১ টি মন্তব্য
  1. Reply মজাদার ও একেবারেই ভিন্ন স্বাদ এর চিংড়ি বাহার রেসিপি | চটপট - এসো নিজে করি এপ্রিল ১৬, ২০১৯ তারিখে ৪:৩৭ অপরাহ্ন

    […] মাছে ভাতে বাঙ্গালি কথাটা কিন্তু এমনি এমনি চালু হয়নি। এই কথাটা চালু হবার প্রধাণ কারণই হচ্ছে বাঙ্গালি জাতির মাছের প্রতি ভালবাসা। মাছ যে পদ্ধতিতেই রান্না করা হোক না কেন, বাঙ্গালি তা খুব খুশি মনেই খেয়ে নেবে। আর যদি একটু অন্যভাবে রান্না করা হয় তাহলে তো কথাই নেই। খাবার টেবিলে পরিবেশন করতে দেরি হতে পারে। কিন্তু তা চোখের নিমিষে শেষ হয়ে যেতে দেরি হবে না। আজ আমি আপনাদের সাথে এমনি একটি মাছ এর রেসিপি শেয়ার করতে চলেছি। আজকের রেসিপি একেবারেই ভিন্ন ধরণের একটি মাছের রেসিপি। এবং সেই সাথে এটি অত্যন্ত সুস্বাদুও বতে। আমার আজকের এই মজাদার ও একেবারেই ভিন্ন স্বাদের রেসিপিটির নাম হচ্ছে চিংড়ি বাহার। […]

মন্তব্য করুন