চটপট তৈরি হেয়ার প্যাক

চটপট তৈরি হেয়ার প্যাক

চুলের যত্নে আমরা কত কিছুই না করে থাকি। চুল সুন্দর ও ঝলমলে রাখতে আমরা সবাই চাই আর সেজন্যই চুলের এতো যত্নআত্নি। আবার প্রতিদিনকার ব্যস্ত শিডিউলের মাঝে চুলের জন্য বেশ কিছুটা সময় বের করে খানিকটা যত্ন নেয়াও হয়ে উঠেনা। তাই অনেকসময়ই প্রিয় চুলে দেখা দেয় ড্যামেজ, চুল পড়া ও খুশকির মত নানান সমস্যা। আর সেজন্যই আজ জানাব এমন কয়েকটি প্যাক বানানোর পদ্ধতি যা আপনি খুব সহজেই ঘরে থাকা উপকরণ দিয়ে চটপট বানিয়ে ফেলতে পারবেন এবং রোজকার কাজের মধ্যে বা গোসলের সময়ই চুলে এপ্লাই করতে পারবেন এর জন্য আলাদা করে সময় বের করার চিন্তা থাকবেন

১। কলা ও ডিমের প্যাকঃ
আজ প্রথমেই আপনাদের জানাবো কলা দিয়ে খুব সহজ হেয়ার প্যাক তৈরির পদ্ধতি। নিয়মিত ব্যবহারে যা আপনার চুলকে করে তুলবে লম্বা ও কালো। এক কথায় যাকে বলে সুকেশী। কলা কেবল চুলকে লম্বাই করবে না, একই সঙ্গে করে তুলবে ঝলমলে ও মোলায়েম।

উপকরণঃ

  • ২টি পাকা কলা (চটকে নেওয়া)
  • ১টি ডিমের কুসুম
  • ১চা চামচ লেবুর রস

প্রণালী ও ব্যবহার বিধিঃ
প্রথমে ভালো করে তিনটি উপাদান মিশিয়ে একটা প্যাক তৈরি করে নিন। এই প্যাক ভালো করে মাথার ত্বকে/স্কালে ও চুলে লাগিয়ে নিন। তারপর একটি প্লাস্টিক র‍্যাপ বা শাওয়ার ক্যাপ দিয়ে মাথা মুড়ে ফেলুন। তার ওপরে একটি তোয়ালে পেঁচিয়ে দিন। এভাবে ঘণ্টাখানেক বা অন্তত ৩০-৪৫ মিনিট চুলে এভাবেই লাগিয়ে রাখুন। এরপর ভালো করে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। প্রয়োজনে শ্যাম্পু ও কন্ডিশনারও করতে পারেন।
সপ্তাহে অন্তত দুইদিন কলার হেয়ার প্যাক ব্যবহার করুন।

২। মেথি ও টকদইয়ের প্যাকঃ প্যাকটি নিয়মিত ব্যবহারে চুল পড়া বন্ধ, আগা ফাটা সমস্যা দূর, চুলের ঘনত্ব বৃদ্ধি ও চুল স্বাস্থ্যোজ্জ্বল হবে। 

উপকরণঃ

  • ৩ টেবিল চামচ মেথি দানা
  • ১ কাপ টক দই
  • পরিমাণমতো নারিকেল তেল/ আমন্ড অয়েল/ অলিভ অয়েল

প্রনালী ও ব্যবহারঃ প্রথমে মেথি দানা গুলো পানি দিয়ে ভালভাবে ধুয়ে নিতে হবে। তারপর একটি পাত্রে কিছু পরিমাণ পানিতে সারারাত মেথি ভিজিয়ে রাখবেন। পরের দিন সকালে সেই ভেজানো মেথি শিল-পাটায়/ব্লেন্ডারে খুব ভালোভাবে মিহি করে পেস্ট করে নিবেন। এবার পেস্ট করা মেথিতে টকদই মিশিয়ে প্যাকটি ২-৩ ঘণ্টার জন্য ঢেকে রেখে দিন। চাইলেও এ সময়টুকু ফ্রিজেও রাখতে পারেন। এবার ব্যবহার করারা পালা। স্কাল্পে ও পুরো চুলে অয়েল ম্যাসাজ করে প্যাকটি পুরো চুলে লাগিয়ে নিবেন। ৩০-৪৫ মিনিট মাথায় রেখে শ্যাম্পু করে নিতে হবে। এরপর পছন্দমত কন্ডিশনার ব্যবহার করবেন।
এই প্যাকটি মাসে ২-৩ বার ব্যবহার করতে পারেন। তবে মেথিতে যদি অ্যালার্জি থাকে তবে এটি ব্যবহার না করাই উত্তম।

৩। মেহেদী ও অলিভ অয়েলের প্যাকঃ মেহেদী চুলের জন্য কন্ডিশনারের কাজ করে চুলের রুক্ষতা এবং চুলের আগা-ফাটা রোধ করে।

উপকরণঃ

  • ১ কাপ মেহেদী পাতা বাটার সাথে 
  • ২ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল এবং 
  • ২ টি ভিটামিন ‘E’ ক্যাপসুল

মিহি মেহেদি বাটার সাথে অলিভ অয়েল ও ‘E’ ক্যাপসুলের ভেতরকার অয়েল মিশিয়ে নিয়ে চুলে ও স্কাল্পে লাগাবেন এই মিশ্রণটি। ৪৫ মিনিট – ১ ঘণ্টা পরে চুল ধুয়ে ফেলুন শ্যাম্পু করে।
প্রতি সপ্তাহে ২দিনের ব্যাবহারে চুলের রুক্ষতা এবং আগা-ফাটা ধীরেধীরে বন্ধ হবে।

৪। ডিমের কুসুম ও মধুর প্যাকঃ আমরা জানি, ডিম প্রোটিনের একটি উল্লেখযোগ্য উৎস। ডিমের এই প্যাকটি চুলে প্রয়োজনীয় প্রোটিন সরবরাহ করতে সক্ষম। এছারাও ডিমের এই প্যাকটি চুলকে করে নরম এবং ঝলমলে এবং চুলের ভাঙন প্রতিরোধে সহায়তা করে। ব্যবহারে চুল শক্তিশালী হবে, সহজে ছিরে যাবেনা।

উপকরণঃ

  • ১ টি ডিমের কুসুম
  • ২ টেবিলচামচ অলিভ অয়েল
  • ১ টেবিলচামচ মধু

প্রনালী ও ব্যবহার পদ্ধতিঃ উপরের তালিকার সব গুলো উপকরণ একসাথে মিশিয়ে চুলে ও স্কাল্পে লাগিয়ে রাখুন। এভাবেই ৩০ মিনিট চুলে রেখে শ্যাম্পু করে ফেলুন। এই প্যাকটি সপ্তাহে অন্তত এক দিন ব্যবহার করুন।

৫। মেয়নেজ ও অলিভ অয়েলের প্যাকঃ বাউন্সি, হেলদি ও স্ট্রং চুল এনেন দিতে এই প্যাকটি খুব ভাল।

উপকরণঃ

  • ১ টি ডিম
  • ১/২ কাপ মেয়নেজ ও
  • ২ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল


প্রনালী ও ব্যবহারঃ উপকরণ গুলো একসাথে নিয়ে ভালোভাবে পেস্ট করে আপনার চুলে লাগিয়ে ৩০ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন।
মেয়নেজ চুল থেকে যেতে একটু সময় নেয় তাই আপনিও একটু সময় নিয়েই সেটি চুল থেকে ছাড়াতে চেষ্টা করুন। অনন্য এই প্যাকটি সপ্তাহে ১ বার ব্যবহার করুন।

৬। মধু ও পেয়াজের প্যাকঃ পেঁয়াজের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে জীবাণুনাশক উপাদান থাকে। আর ঠিক এই কারণেই পেঁয়াজ আমাদের চুলের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে দারুণভাবে সাহায্য করতে পারে। এছারাও চুলের শক্তি বৃদ্ধিতে এবং খুশকি কমাতে এই প্যাকটির জুড়ি মেলা ভার।

উপকরণঃ

  • ১/৩ কাপ পেয়াজ রস
  • ১ টেবিল চামচ মধু এবং
  • ২ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল

প্রনালী ও ব্যবহার পদ্ধতিঃ প্রথমেই পেয়াজ কেটে ব্লেন্ড করে বেটে রস ছেকে নিন। এরপর সাথে অন্য উপকরণ দুটি মিশিয়ে মিশ্রনটি তৈরি করে নিন। এবার মিশ্রণটি চুলের গোঁড়ায় ভালো করে মেখে নিন। ৩০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ১ বার বা ২ বার ব্যবহার করতে পারবেন।

৭। আলু ও মধুর প্যাকঃ প্যাকটি চুল পড়া রোধে ও নপ্তুন চুল গজানো সহ চুলের অকালপক্বতা রোধের জন্য ভাল কাজ করে।

উপকরণঃ

  • ১/৪ কাপ আলুর রস
  • ১ টি ডিমের সাদা অংশ ও
  • ২ চা চামচ মধু


প্রনা্লী ও ব্যবহার বিধিঃ একটি আলু ঝুরি কেটে বা ব্লেন্ড করে চিপে এর থেকে রস বের করে নিতে হবে। তারপর একটি পাত্রে মধু ও ডিমের সাদা অংশ আলুর রসের সাথে খুব ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। খুব ভালো করে মিশে গেলে, মিশ্রণটি চুলের গোঁড়ায় আলতো ঘষে লাগিয়ে দিয়ে। এভাবে ২ ঘণ্টা রেখে দিয়ে। ২ ঘণ্টা পর একটি মৃদু শ্যাম্পু দিয়ে চুল ভালো ভাবে ধুয়ে ফেলতে হবে।

৮। শিকাকাই ও বেসনের প্যাকঃ চুল পরিষ্কারে এই প্যাক প্রাকৃতিক শ্যাম্পু হিসেবে কাজ করবে। এছারাও চুল পরা রোধে ও চুল ঝলমলে করতে সহায়ক এই প্যাকটি।

উপকরণঃ

  • ২ চা চামচ শিকাকাই গুঁড়ো
  • ৩ চা চামচ বেসন
  • ১ চামচ নারিকেল তেল।
  • নারিকেল দুধ প্রয়োজন মত(অপশনাল)

প্রনালী ও ব্যবহারঃ উপকরণ গুলো মিশিয়ে নিন এর সাথে কিছু পরিমাণে পানি বা নারকেল দুধ দিয়ে। এই প্যাকটি চুল এবং চুলের গোড়ায় ভাল করে লাগিয়ে নিন। ১ ঘন্টা পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। শ্যাম্পু করার প্রয়োজন নেই। কারণ বেসন এবং শিকাকাই প্রাকৃতিক শ্যাম্পু হিসেবে কাজ করে তা আমরা জানি।

আশাকরি প্যাক গুলো আপনাদের কাজে আসবে। প্রতিদিনকার ব্যস্ত রুটিনের মধ্যেও কিছুটা সময় নিয়ে পছন্দ মত যেকোনো একটি প্যাক নিয়মিত ব্যবহার করে দেখুন। ভাল ফল পাবেন।

মন্তব্যসমূহ

হ্যান্ডিক্রাফটের কাজের প্রতি অগাধ ভালবাসা।প্রচুর ক্রাফটিং করি। আর বিউটি নিয়েও একটু ঘাটাঘাটি করি তাই ক্রাফট এন্ড বিউটি নিয়েই টুকটাক লিখার চেষ্টা করি।

মন্তব্য করুন