চিকেন কারি ইন কোকোনাট গ্রেভি

ভীষণ মজার ও ভিন্ন স্বাদের চিকেন কারি ইন কোকোনাট গ্রেভি

আমাদের দেশের মানুষের মধ্যে ফেভারিট খাবার নিয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে চিকেন কারি নামটি মনে হয় শুরুতেই চলে আসবে। আসলে চিকেন আমাদের সকলেরই খুব পছন্দের একটি খাবার। আর ছোট কিংবা বড় সকল বয়সের মানুশের মধ্যেই এই খাবারটি অনেক বেশি জনপ্রিয়তা পেয়ে থাকে। আমাদের মধ্যে আবার অনেকেই আছেন যারা স্বাস্থ্যগত কারণে গরুর মাংস কিংব ছাগলের মাংস খেতে পারেন না। তাদের ক্ষেত্রেও এই চিকেন খুব পছন্দের খাবার ইসেবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে। আর তাছাড়া মুরগির মাংস কিন্তু স্বাস্থ্যের জন্যও যথেষ্ঠ ভাল বলে বিবেচিত হয়ে আসছে প্রায় সকল পুষ্টি বিদের কাছেই। আমাদের দেহে যে প্রোটিনের চাহিদা রয়েছে সেটি মেটানোর জন্য মুরগির মাংস বেশ ভাল একটা ভূমিকা রাখতে পারে। আজ আমি তাই মুরগির মাংস দিয়ে বানানো যায় এমন একটি খুব মজাদার রেসিপি নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি। এই অত্যন্ত সহজ কিন্তু ভীষণ মজাদার রেসিপিটির নাম হচ্ছে চিকেন কারি ইন কোকোনাট গ্রেভি।

আসলে আমাদের দেশে যেই খাবার গুলো অনেক বেশি রান্না করা হয়ে থাকে তার মধ্যে চিকেন হচ্ছে অন্যতম। সব বাসাতেই চিকেন কারি রান্না করা হয়ে থাকে। এক এক রাধুনি এক এ ভাবে তাদের নিজস্ব নিয়ম অনুসরণ করে চিকেন কারি রান্না করে থাকেন। তবে সব সময় একই ভাবে চিকেন কারি রান্না করতে থাকলে এক সময় দেখা যায় এই রেসিপি গুলোর মধ্যে একটু একটু করে এক ঘেয়েমি চলে আসতে শুরু করে। তখন এই অনেক মজার চিকেন কারিও খেতে আর আত বেশি মজা লাগে না। এই সমস্যা সমাধাণ করার জয়ই আমার আজকের এই রেসিপি। এটি আপনার সাধারণ চিকেন কারি থেকে একেবারেই আলাদা ভাবে বানানো হয়ে থাকে। ফলে এই চিকেন কারি উইথ কোকোনাট গ্রেভির স্বাদ ও গন্ধও হয় সাধারণ চিকেন কারি থেকে একেবারেই আলাদা।

তাই রোজ রোজ একই আবে চিকেন কারি খেতে না চাইলে মাঝে মাঝে স্বাদ বদলের জন্য আমার আজকের এই রেসিপি ফলো করে দেখতে পারেন। অন্য রকম স্বাদের এই চিকেন কারি উইথ কোকোনাট কারি আপনাকে একেবারেই নিরাশ করবে না তা আমি হলফ করে বলে দিতে পারি।

চিকেন কারি উইথ কোকোনাট গ্রেভি বানাবার জন্য যে যে উপকরণ দরকার হবে

চিকেন কারি উইথ কোকোনাট গ্রেভি বানাবা জন্য আমাদের খুব বেশি কোন উপকরণ কিন্তু দরকার হবে না। আপনার হাতের কাছে থাকা সাধারণ যে উপকরণ গুলো ব্যবহার করে আপনি চিকেন কারি রান্না করেন, সেগুলোই আসলে এই রেসিপির মধ্যে ব্যবহার করা হবে। আর সেই উপকরণ গুলোর সাথেই বাড়তি হিসেবে হয়ত আরো একটি কিংবা দুইটি ভিন্ন ধরণের উপকরণ যোগ করা হতে পারে। কিন্তু এই সামান্য ভিন্ন উপকরণ গুলোই কিন্তু আপনার এই রান্নাটিকে একেবারে ভিন্ন রকম এর একটি মাত্রা এনে দেবে। আসুন দের না করে কি কি উপকরণ ব্যবহার করে এই ভিন্ন স্বাদের চিকেন কারি উইথ কোকোনাট গ্রেভি বানাতে হবে তা দেখে নেই। সেই সাথে এই উপকরণ গুলো আসলে কত টুকু পরিমাণে দরকার হবে তাও জেনে নেয়া যাক।

চিকেন ১/২ কেজি

টক দই ৩ টেবিল চামচ

টমেটো বাটা ২ চা চামচ

লেবুর রস ১ চা চামচ

সাদা তেল ২ টেবিল চামচ

ঘি কিংবা বাটার ২ টেবিল চামচ

মিহি করে কুচি করে রাখা পেঁয়াজ ১/৪ কাপ

পেঁয়াজ বাটা ১ চা চামচ

রসুন বাটা ১ চা চামচ

আদা বাটা ১ চা চামচ

হলুদ গুড়া ১ চা চামচ

লাল মরিচ গুড়া ২ চা চামচ

ভাজা জিরা গুড়া ১ চা চামচ

ভাজা ধনে গুড়া ১ চা চামচ

লবণ পরিমাণ মত

চিনি ১ চা চামচ

নারকেলের দুধ ১ কাপ

পানি পরিমাণ মত

যে কোন বাদাম বাটা ১ চা চামচ

কিশমিশ বাটা ১ চা চামচ

আস্ত ছোট এলাচ ২ থেকে ৩টি

আস্ত দারচিনি ১ টুকরা

আস্ত লবঙ্গ ৩ থেকে ৪টি

আস্ত তেজপাতা ১টি

আস্ত শুকনা মরিচ ৩ থেকে ৪টি

আস্ত কাঁচা মরিচ ৪ থেকে ৫টি

বেরেস্তা করা পেঁয়াজ ২ টেবিল চামচ

গোলাপ জল ১/৪ চা চামচ

কেওড়া জল ১/৪ চা চামচ

চিকেন কারি উইথ কোকোনাট গ্রেভি যে পদ্ধতিতে বানাতে হবে

চিকেন কারি উইথ কোকোনাট গ্রেভি একটু সময় সাপেক্ষ রান্না। বেশ ক্যেকটি ধাপ অনুসরণ করে এই রান্নাটি সম্পন্ন করতে হয়। তাই যেই দিন আপনি এই রান্নাটি করবেন সেই দিন আগে থেকে সব কিছু ধাপে ধাপে গুছিয়ে নিয়ে তবেই রান্নাটি শুরু করতে হবে। তাহলেই কোন রকম ঝামেলা ছাড়াই অপেক্ষাকৃত কম সময়ের মধ্যে আপনি এই রান্নাটি করে নিতে পারবেন। আমি আজ এই চিকেন কারি উইথ কোকোনাট গ্রেভি রান্না করার সকল ধাপ গুলো বিস্তারিত ভাবে আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চলেছি। আশা করি আপনারা এর পরে খুব সহজেই কোন রকম ঝামেলা ছাড়াই এই রসিপিটি তৈরী করে নিতে পারবেন। চলুন দেরি না করে এই রান্নার ধাপ গুলো একে একে দেখে নেয়া যাক।

১ম ধাপ

প্রথমেই চিকেন পিস গুলো মেরিনেট করে নিতে হবে। এই রানাটা করার জন্য আপনি যেই ভাবে ইচ্ছা চিকেন ব্যবহার করতে পারেন। আপনার ইচ্ছা হলে বোনলেস চিকেন ব্যবহার করতে পারেন। আবার চাইলে হাড় সহও চিকেন পিস ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে সব ক্ষেতেই রান্না শুরু করার আগে অন্তত আধা ঘন্ট থেকে ৪৫ মিনিট সময় পর্যন্ত কিছু উপকরণ দিয়ে চিকেন পিস গুলোমেরিনেট করে রাখতে হবে। এর জন্য প্রথমে একটি বাটিতে পরিস্কার করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখা চিকেন পিস গুলো নিয়ে নিতে হবে। এর সাথে টক দই, টমেটো বাটা ও লেবুর রস মিশিয়ে নিতে হবে। খুব ভাল করে এই তিওনটি উপকরণ চিকেনের সাথে মেখে নিতে হবে। এই অবস্থায় ফ্রিজে আধা ঘন্টা থেকে ৪৫ মিনিটের জন্য চিকেন রেখে দিতে হবে। আপনি ইচ্ছা হলে ফ্রিজের বাইরেও মেরিনেট করার জন্য মাখানো চিকেন রেখে দিতে পারেন। তবে যে কোন খাবারই মেরিনেট করে নরমাল ফ্রিজে রেখে দিলে মেরিনেশন প্রসেস বেশি ভাল হয়ে থাকে।

২য় ধাপ

চিকেন মেরিনেট করা হয়ে রান্নাটার প্রবর্তি ধাপে যেতে হবে। এর জন্য প্রথমে একটা কড়াতে সাদা তেল ও ঘি এক সাথে গরম করতে হবে। আপই চাইলে ঘি এর বদলে বাটারও ব্যবহার করতে পারেন। সাদা তেল একটু গরম হতে শুরু করলে এর মধ্যে আস্ত ছোট এলাচ, দারচিনি, লবঙ্গ, তেজপাতা ও শুকনা মরিচ ফোড়ন দিতে হবে। মশলা গুলো ফুতে উঠে ঘি এর সাথে মিশে যখন খুব সুন্দর একটা গন্ধ বের হবে তখন এর মধ্যে মিহি করে কুচি ক্করে রাখা পেঁয়াজ যোগ করে দিতে হবে। পেঁয়াজ কুচি লাল লাল হয়ে যাওয়া পর্যন্ত ভাজতে হবে। পেঁয়াজ কুচি ভেজে গোল্ডেন ব্রাউন কালার হয়ে গেলে এর মধ্যে একে একে পেঁয়াজ বাটা, রসুন বাটা ও আদা বাটা যোগকরে দিতে হবে। খুব ভাল করে ভাজা ভাজা করে নিতে হবে যাতে করে এই বাটা মশলা গুলোর মধ্যে থেকে কাঁচা কাঁচা ভাবটা চলে যায়।

৩য় ধাপ

এই বার এই মশলার মধ্যে হলুদ গুড়া ও লাল মরি গুড়া যোগ করে দিতে হবে। সেই সাথে ভাজা জিরা গুড়া ও ভাজা ধনে গুড়াও যোগ করে দিতে হবে। বেশ ভাল করে কষিয়ে নিতে হবে। দরকার হলে অল্প অল্প করে অয়ানি যোগ করা যেতে পারে। মশলা কষে তেল উপরে উঠে আসলে এর মধ্যে আগে থেকে মেরিনেট করে রাখা চিকেন যোগ করে দিতে হবে মেরিনেশনের মশলা সহ। আর যোগ করতে হবে পরিমাণ মত লবণ ও চিনি। সেই সাথে যোগ করতে হবে বাদাম বাটা ও কিশমিশ বাটা। এই ক্ষেত্রে আপনি যে কোন বাদাম ব্যবহার করতে পারেন। আপনার কাছে অন্য কোন ধরণের বাদাম না থাকলে চিনা বাদাম বাটাও ব্যবহার করা যেতে পারে।

৪র্থ ধাপ

চিকেন অন্যান্য মশলার সাথে খুব ভাল মত কষিয়ে নিতে হবে। চিকেন খুব ভাল মত কষানো হয়ে গেলে এর মধ্যে নারকেলের দুধ যোগ করে দিতে হবে। যদি দরকার হয় তবে অল্প একটু পানিও যোগ করা যেতে পারে। চিকেন ফুতে উঠলে চুলার আঁচ একদম কমিয়ে দিতে হবে। এবগ ঢাকনা দিয়ে হাড়ি ঢেকে দিতে হবে। খুব কম আঁচে বেশ কিছু সময় রান্না করতে হবে।

৫ম ধাপ

চিকেন প্রায় রান্না হয়ে আসলে এবং ঝোল মাখা মাখা হয়ে আসলে রান্নাটির শেষ অঙ্গশটি করতে হবে। এর জন্য ঢাকনা খুলে উপর থেকে আস্ত কাঁচা মরিচ, বেরেস্তা করা পেঁয়াজ ছড়িয়ে দিতে হবে। সেই সাথে খুব সামান্য পরিমাণে কেওড়া জল ও গোলাপ জল ছড়িয়ে দিতে হবে। হালকা করে নেড়ে চেড়ে মিশিয়ে দিতে হবে। আবারো ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। আরো দুই মিনিট থেকে তিন মিনিট খুব কম আঁচে দমে রান্না করতে হবে। এতে করে শেষ মুহুর্তে যোগ করা মশলা গুলোর স্বাদ চিকেনের সাথে খুব ভাল ভাবে মিশে যেতে পারবে। এর পরে চুলা বন্ধ করে দিতে হবে। গরম গরম সার্ভ করতে হবে মজাদার চিকেন কারি উইথ কোকোনাট গ্রেভি। এই রেসিপিটি সাদা ভাত কিংবা পোলাও সব কিচুর সাথেই ভাল যায়। আবার আপনার ইচ্ছা হলে নান ইংবা পরোটার সাথেও এটি ভাল ভাবে সার্ভ করতে পারেন।

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

মন্তব্য করুন