পেঁয়াজ কাটার সময় চোখ জলা বন্ধ করতে কিছু কার্যকরি টিপস

পেঁয়াজ কাটার সময় চোখ জলা বন্ধ করতে কিছু কার্যকরি টিপস

আমাদের দেশের রান্না বান্না হচ্ছে মশলা সমৃদ্ধ রান্না। যে কোন রান্নার মধ্যেই প্রচুর পরিমাণে মশলার ব্যবহার বাঙ্গালিদের রান্নাকে অন্য দেশের রান্নার থেকে বেশ খানিকটা আলাদা করে রেখেছে। আর এই সব মশলার ভীড়ে সব থেকে বেশি ব্যবহার করা হয় যেই মশলাটা সেটির নাম হচ্ছে পেঁয়াজ। আপনি নিজেই একটু চিন্তা করে দেখুন না। এমন কোন বাঙ্গালি খাবার আপনি খুজে পাবেন কিনা যেটা পেঁয়াজ ছাড়া রান্না করা সম্ভব। আমি অবশ্যই কোন ডেজার্টের কথা বলছি না। ডেজার্ট ব্যাতীত যে কোন খাবার রান্না করতেই আর কোন মশলা লাগুক কিংবা না লাগুক পেঁয়াজ দরকার অবশ্যই হয়। তা সে পোলাও কিংবা বিরিয়ানি হোক, অথবা মাংস কিংবা সাধারণ তরকারি। কিংবা ঘরে তোইরী বিভিন্ন নাস্তা। যে কোন খাবারেই পেঁয়াজ আমাদের অবশ্যই লাগবে। আর অন্যান্য মশলা থেকে এই মশলার পরিমাণও আমাদের রান্নায় বেশি থাকে। আজ তাই এই পেঁয়াজ নিয়েই আপনাদের সাথে বেশ কিছু টিপস আমি শেয়ার করতে চলেছি। আশা করি আপনাদের কাজে লাগবে।

আসলে আমাদের রান্নার কাজে প্রচুর পরিমাণে পেঁইয়াজের ব্যবহার হয়। তাই আমাদেরকে প্রচুর পরিমাণে পেঁয়াজ কেটে রেডিও করতে হয় প্রায় প্রতি দিন। কিন্তু এই পেঁয়াজ কাটা কিন্তু অত বেশি সহজ কাজও না। এই কাজটা করতে যথেষ্ঠ কষ্ট হয়। এর প্রধাণ কারণ হচ্ছে পেঁয়াজ কাটার সময় এর থেকে বের হওয়া ঝাঝ। এই পেঁইয়াজের ঝাঝ এর কারনে এটি কাটা কিংবা বাটার সময় আমাদের চোখ থেকে অনবরত পানি পড়তে থাকে। সেই সাথে আমাদে চোখ জ্বালা করতে থাকে। আর এই চোখ থেকে সারাক্ষণ পানি পরার কারণে এই সাধারণ ও সহজ কাজটিই আমাদের জন্য অনেক কঠিন হয়ে পড়ে। আজ আমি তাই আপনাদের সাথে এমন কিছু টিপস শেয়ার করব যেগুলো ফলো করলে পেঁয়াজ কাটার সময় এর থেকে ঝাঝ বের হওয়া বেশ কিছুটা কমে যাবে। ফলে আপনাদের চোখ জ্বালা করা কিংবা চোখ থেকে পানি পরার সমস্যাও দূর হয়ে যাবে এক নিমিষের মধ্যেই। আর আপনার রোজকার এই কাজটি হয়ে উঠবে আপনার অন্যতম সহজ কাজ গুলোর মধ্যে একটি।

পেঁয়াজ কাটার টিপস সমূহ

পেঁয়াজ কাটার সময় খুব সহজ কিছু টিপস যদি আপনারা মনে রাখতে পারেন তাহলে পেঁয়াজ কাটার সময় আর চোখ জ্বালা করবে না। আর চোখ জ্বালা না করলে চোখ দিয়ে পানি পরার তো প্রশ্নই আসেনা। আসুন সহজ কিন্তু অত্যন্ত কার্যকরি এই টিপস গুলো সম্পর্কে কিছু কথা জেনে নেয়া যাক।

১ম টিপস

আমরা অনেকেই হয়ত একটা কথা জানি না। সেটা হচ্ছে পেঁইয়াজের মধ্যে সব থেকে বেশি এনজাইম থাকে কোন জায়গাটায়? সেটি হচ্ছে পেঁইয়াজের গোড়ার অংশ। এবং সেই সাথে পেঁইয়াজের প্রথম আস্তরেও অনেক বেশি এনজাইম থাকে। তাই পেঁয়াজ কাটার সময় যদি শুরুতেই পেঁয়াজ এর গোরার অংশটা ফেলে দেয়া যায় তাহলেই এর ঝাঝ অনেকটা কমে যাবে। আর সেই সাথে আপনি যদি পেঁয়াজ এর একদম উপরের আস্তরটা ফেলে দেন তাহলে আর ঝাঝ থাকবে না বললেই চলে

২য় টিপস

পেঁয়াজ কাটার সময় আপনারা আর একটি সহজ কাজ করে দেখতে পারেন। যদিও এর জন্য একটু সময় লাগবে। সেটি হচ্ছে পেঁয়াজ এর খোসা ছাড়িয়ে সেগুলোকে একটা পাত্রে বেশি করে পানি দিয়ে ভিজিয়ে রাখতে হবে। খুব বেশি সময় ধরে ভিজিয়ে রাখার দরকার নেই। মোটামুটী ২০ মিনিট থেকে ২৫ মিনিট  ভিজিয়ে রাখলেই চলবে। এর ফলে পেঁয়াজ থেকে বের হওয়া এনজাইম পানিতে মিশে যাবে। এর পরে পেঁয়াজ গুলো হালকা করে ধুয়ে নিতে হবে। এই বার এই পেঁয়াজ গুলো কুচি কুচি করে কেটে দেখুন না। আপনার একদমই চোখ জ্বালা করবে না কিংবা চোখে থেকে পানি পড়বে না।

৩য় টিপস

পেঁয়াজ কুচি করার সময় এর থেকে ঝাঝ কমানোর আর একটি উপায় আছে। এটিও অনেক সহজ তবে একটু সময় নেবে। এই ক্ষেত্রে পেঁয়াজ গুলো থেকে আগে খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে। এর পরে এই পেঁয়াজ গুলো দুই ভাগ করে কেটে নিতে হবে। এবং এই পেঁয়াজ এর টুকরা গুলো একটা বাটিতে করে ফ্রিজে রেখে দিতে হবে। খুব বেশি সময় ধরে রাখার দরকার নেই। মোটামুটি ১৫ মিনিট থেকে ২০ মিনিট রাখলেই হবে। এর পরে এই ঠান্দা পেঁয়াজ গুলো আপনার ইচ্ছা মত কুচি কুচি করে কেটে নিতে পারেন। এর থেকে খুব বেশি ঝাঝ বের হবে না। এবং আপনার চোখও ঠিক থাকবে।

৪র্থ ধাপ

আপনি যেই বটি কিংবা চইং বোর্ডে পেঁয়াজ কাটবেন তার উপর আগে থেকে হালকা করে ভিনেগার এখে রাখুন। ভিনেগার পেঁয়াজ এর এনজাইম গুলোর কর্মক্ষমতা কিছুটা কমিয়ে দিতে পারে। ফলে পেঁইয়েজ কুচি করার সময় ঝাঝ কিছুটা কম লাগে। আর চোখ জ্বালা করার প্রবণতাও কমে যায়।

৫ম ধাপ

পেঁয়াজ কুচি করার সময় যতটা সম্ভব ধারলো ছুরি কিংবা বটি ব্যবহার করতে হবে। ধারলো ছুরি কিংবা বটি দিয়ে পেঁয়াজ কাটা হলে এর কোষ গুলো কম ক্ষতিগ্রস্ত হয়। আর এই কারণে পেঁয়াজ থেকে এনজাইম নিঃসরণও বেশ কিছুটা কমে যেতে থাকে। এই কারণে চোখ জ্বালা পোড়া করাও কমে যায়।

৬ষ্ঠ টিপস

আর একটি একদম পারফেক্ট টিপস আছে যাতে করে পেঁয়াজ কাটার সময় আপনার সামান্যতম চোখ জ্বালা করবে না কিংবা চোখ থেকে পানি পড়বে না। এই ক্ষেত্রে পেঁয়াজ গুলো কাটার আগে এর খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে। একতা পাত্রে বেশ খানিকটা প্নাই নিয়ে তাতে এক চা চামচ লবণ মিশিয়ে নিতে হবে। খোসা ছাড়ানো পেঁইয়াজ গুলো এই লবণ মেশানো পানির মধ্যে ১০ মিনিট থেকে ১৫ মিনিট ভিজিয়ে রাখতে হবে। তার পরে এই পেঁয়াজ গুলো আপনার ইচ্ছা মত কুচি কুচি করে কেতে নিতে হবে।

সংসারের কাজ কখনোই সহজ নয়। অনেক পরিসঝ্রম করেই আমরা সকলে আমাদের প্রত্যেও দিনের কাজ গুলো করে থাকি। কিন্তু সহজ কিছু ছোট ছোট টিপস আমাদের এই রোজকার পরিশ্রমকে অনেক ভাবেই কমিয়ে দিতে পারে। আমি আজ সেরকমই কিছু টিপস আপনাদের সাথে শেয়ার করেছি। আমিয়া শা করব এই সব গুলো টিপসই কোন না কোন ভাএ আপনাদের জীবনে কাজে আসবে। আর আপনার জীবনকে কিছুতা হলেও সহজ করে তুলতে সাহায্য করবে।

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

মন্তব্য করুন