মজাদার ও একদম ভিন্ন স্বাদের মেথি ইলিশ

মজাদার ও একদম ভিন্ন স্বাদের মেথি ইলিশ

মাছে ভাতে বাঙ্গালি কথাটা কিন্তু অনেক পুরোনো প্রচলিত একটা প্রবাদ। বাঙ্গালি মাত্রই মাছ ভালবাসে এই কথাটা বোধ হয় পৃথিবীর সকলেই কম বেশি জানেন। তবে এই মাছ প্রিয় বাঙ্গালির সব থেকে প্রিয় মাছ কি জিজ্ঞাসা করা হলে একটি মাছ এর নামই সবার আগে প্রায় সকলের মুখে মুখে শোনা যাবে। সেই নামটি হচ্ছে ইলিশ মাছ। ইলিশ মাছ পছন্দ করেন না এমন বাঙ্গালি মানুষ আপনি হারিকেন দিয়ে খুজলেও একজনও খুজে পাবেন না। পৃথিবীর যে কোন প্রান্তের যে কোন বাঙ্গালি মানুষকে আপনি এক বার জিজ্ঞাসা করে দেখুন না কেন, এক পিস ইলিশ মাছ দেওয়া হলে সে আর অন্য কোন কিছুই খেতে চাইবে না। আর ইলিশ মাছ এর এই জনপ্রিয়তাও কিন্তু এমনি এমনি হয়নি। এই মাছ আসলেই অনেক টেস্টি। আর সব থেকে বড় কথা অন্য যে কোন ধরণ এর মাছ থেকে এই ইলিশ মাছের টেস্ট কিন্তু একেবারেই ভিন্ন। আজ আমি এই ভিন্ন স্বাদ এর ইলিশ দিয়ে একটি ভিন্ন স্বাদ এর রেসিপি মেথি ইলিশ বানানো শেখাবো।

আসলে ইলিশ মাছ এমনি একটি খাবার যেটা আপনি যে কোন ভাবেই রান্না করেন না কেন খেতে অনেক টেস্টি হবেই হবে। ওনেক রকম ভাবেই কিন্তু আমরা বাঙ্গালিরা ইলিশ মাছ রান্না করে থাকি। কেউ কেউ ইলিশ মাছ খুব কম মশলা দিয়ে হালকা করে সাদা ঝোল করেন। অনেকেই আবার সরষে দিয়ে বেশ ভুনা ভুনা করে ইলিশ মাছ রান্না করতে পছন্দ করে থাকেন। ইলিশ মাছ আপনি সাধারণ ভাবে ভুনা করে খেতে যেমন ভাল লাগবে, তেমনি এটি দিয়ে ভাপা কিংবা পাতুরি রান্না করে খেতেও ভাল লাগবে। আর এখন তো ইলিশ মাছের সময়ে ঘরে ঘরে ইলিশ পোলাও কিংবা ইলিশ মাছ এর দম বিরিয়ানি খুব কমন একতা খাবার হয়ে দাড়িয়েছে। তবে আজ আমি এই কমন রেসিপি গুলোর মধ্যে কোন টাই আপনাদের সাথে শেয়ার করতে যাব না। আজ আমি এমন একটি ইলিশ মাছ এর রেসিপি আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চলেছি যেটি আপনি আগে খেয়ে দেখেননি। এই একদম অন্য ধরণের কিন্তু ভীষণ মজার রেসিপিটিই হচ্ছে মজার মেথি ইলিশ রেসিপি।

মেথি ইলিশ বানাবার জন্য যে যে উপকরণ দরকার হবে

মেথি ইলিশ খুবই আনকমন একটি রান্না। আমাদের দেশে রান্না করার সময় যে মশলা গুলো খুব জরুরি হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে তার মধ্যে অনেক গুলোই এই রান্না করার জন্য ব্যবহার করার দরকার হবে না। এই যেমন পেঁয়াজ ও রসুন ছাড়া আমরা বাংলাদেশি রাধুনীরা মাছ রান্না করার কথা চিন্তাও করতে পারিনা। তা সে পেঁয়াজ আর রসুন কুচি অবস্থায়ই হোক কিংবা বাটা অবস্থায়ই হোক, কিছুটা হলেও এই দুটো মশলা মাছ রান্না করার সময় আমরা ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু আজকের এই মেথি ইলিশ রান্না করার জন্য এই দুটো মশলার কোনটাই কিন্তু ব্যবহার করা হয়না। শুধু মাত্র কয়েকটি আস্ত মশলা আর কিছু গুড়ো মশলার সংমিশ্রণে এই রান্নাটি করা হয়ে থাকে। অথচ এই খাবারটির স্বাদ হয় অতুলনীয়।

আর অন্যান্য মাছ রান্না থেকে এই রান্না করার জন্য তেল এর ব্যবহার একটু বেশি করা হয়ে থাকে। আসলে এই রান্না করার জন্য যেহেতু কোন পেঁয়াজ, রসুন জাতীয় মশলা ব্যবহার করা হয় না। তাই ঝোলটা একটু তেল তেল হলে খেতে ভাল লাগে। আসুন যে কয়টি হাতে গোণা উপকরণ ব্যবহার করে এই মেথি ইলিশ রান্না করতে হবে তা এক এক করে জেনে নেয়া যাক। সেই সাথে এই উপকরণ গুলো ঠিক কত টুকু পরিমাণে ব্যবহার করতে হবে তাও জেনে নেই চলুন।

ইলিশ মাছ ৫ থেকে ৬ পিস

সরষের তেল ৪ তেবিল চামচ

আস্ত মেথি ১/২ চা চামচ

আস্ত শুকনা মরিচ ৩ থেকে ৪টি

লাল মরিচ গুড়া ১ চা চামচ

হলুদ গুড়া ১/২ চা চামচ

লবণ পরিমাণ মত

চিনি ১ চা চামচ

মাঝখান থেকে চিরে দু ভাগ করে নেয়া কাঁচা মরিচ ৫ থেকে ৬টি

আস্ত কাঁচা মরিচ ৪ থেকে ৫টি

পানি ১/২ কাপ

মেথি ইলিশ যে পদ্ধতিতে বানাতে হবে

মেথি ইলিশ বানাবার পদ্ধতি অত্যন্ত সহজ। এর পিছনে বেশ কয়েকটি কারণও আছে। প্রথম কারণ হিসেবে বলা যায় যে এই রান্নার উপকরণ এর ব্যবহার। আপনি উপকরণ এর লিস্ট দেখেই নিশ্চয় বুঝতে পারছেন যে এই মেথি ইলিশ মাছ রান্না করার জন্য কোন রকম কুচি কিংবা বাটা মশলা ব্যবহার করা হয় না। ফলে মশলা রেডি করার মত একটা বড় কাজ থেকে আপনি শুরুতেই বেচে যাচ্ছেন। শুধু মাত্র আস্ত মশলা ও গুড়া মশলা ব্যবহার করে এই মেথি ইলিশ রান্না করা হয়ে থাকে। ফলে মাত্র অল্প কিছু সময় ব্যয় করে চটপট এই রান্নাটি করে ফেলা যায়। বাসায় হটাত মেহমান এসে গেলে কিংবা হটাত করে ইলিশ মাছ খেতে ইচ্ছা করলে এই রেসিপি থেকে ভাল আর অন্য কিছু তাই হতেই পারে না। আসুন দেরি না করে এই মেথি ইলিশ রান্না করার পুরো পদ্ধতি ধাপে ধাপে জেনে নেয়া যাক।

১ম ধাপ

প্রথমে একটা ছোট্ট পাত্রে লাল মরিচ গুড়া ও হলুদ গুড়া নিয়ে নিতে হবে। পানি দিয়ে এই মশলা গুলো ভাল করে গুলে নিতে হবে। এই সময় একটা ব্যাপারে খেয়াল রাখয়ে হবে। লাল মরিচ গুড়া আর হলুদ গুড়া যেন ভাল ভাবে পানির সাথে গুলে যায়। কোন রকম লাম্পস থাকা যাবে না।

২য় ধাপ

এই বার একটা ফ্রাইং প্যান এর মধ্যে সরষের তেল গরম করতে দিতে হবে। সরষের তেল একটু গরম হয়ে গেলে এর মধ্যে আস্ত শুকনা মরিচ ও আস্ত মেথি যোগ করতে হবে। মেথি আর শুকনা মরিচ একটু ফুটে উঠলে এর মধ্যে মাঝ খান থেকে দুই ভাগ করে রাখা কাঁচা মরিচ গুলোও ফোড়ন দিয়ে দিতে হবে। হালকা ভেজে নিতে হবে এই মশলা গুলো। তবে খুব বেশি ভাজতে যাবেন না। তাহলে মেথি পুরে যেতে পারে। আর এথি পুড়ে গেলে খুব তিতকুটে একটা স্বাদ এসে যাবে যা পুরো ডিশতার স্বাদ নষ্ট করে দিতে পারে।

৩য় ধাপ

সরষের তেল থেকে ফোড়নের মশ গুলর সুন্দর একটা গন্ধ আসা শুরু করলে এর মধ্যে আগে থেকে গুলে রাখা লাল মরিচ গুড়া আর হলুদ গুড়ার মিশ্রণ যোগ করে দিতে হবে। সেই সাথে পরিমাণ মত লবন ও চিনি যোগ করে দিতে হবে। হালকা একটু কষিয়ে নিতে হবে। এই মশলার মিশ্রণ এর মধ্যে ইলিশ মাছ এর পরিস্কার করে রাখা পিস গুলো আস্তে আস্তে করে বসিয়ে দিতে হবে। চুলার আঁচ একদম কমিয়ে ঢাকনা দিয়ে ফ্রাইং প্যান ঢেকে দিতে হবে। চার মিনিট থেকে পাঁচ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। এর পরে ঢাকনা খুলে ইলিশ মাছ এর পিস গুলো এক এক করে উলটে দিতে হবে। তারপর আবারো ঢাকনা দিয়ে ঢেকে আরো দুই মিনিট থেকে চার মিনিট রান্না করতে হবে। এর পরে ঢাকনা খুলে আস্ত কাঁচা মরিচ ও আরো একটু কাঁচা সরষের তেল ছড়িয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। এই ভাবে অল্প আঁচে দুই মিনিট থেকে তিন মিনিট রান্না করতে হবে। তার পরে চুলা বন্ধ করে আরো দশ মিনিট ফ্রাইং প্যানে ঢাকনা দিয়ে দমে রাখতে হবে। ব্যাস রেডি অল্প সময়ের রান্না মেথি ইলিশ। গরম গরম ঝরঝরে সাদা ভাত এর সাথে এই রেসিপি হলে অন্য আর কিছুই দরকার হবে না।

মন্তব্যসমূহ

আমি সাদিয়া রিফাত ইসলাম। একজন মা , হোমমেকার এবং ব্লগার। ভালভাসি রান্না করতে, বই পড়তে এবং লেখালেখি করতে।

মন্তব্য করুন