রাগ কমানোর উপায়

রাগ কমানোর উপায়

মানুষের বিভিন্ন রকম আবেগ- অনূভুতি রয়েছে যেমনঃ ভালবাসা, মমতা, রাগ ইত্যাদি।। এইসব অনুভূতির মধ্যে রাগ অনেকটাই নেতিবাচক অনুভূতি। রাগ ছাড়া কোন মানুষ খুজেঁ পাওয়া খুব দুস্কর। রাগ করার যৌক্তিক কারনে মানুষ রাগ প্রকাশ করবে সেটাই স্বাভাবিক।

তবে সমস্যাটা হয় অতিরিক্ত রাগের বেলায়। কারন মাত্রাতিরিক্ত রাগের বশবর্তী হয়ে মানুষ অনেকসময়ই অনেক ভুল করে থাকে, যা মোটেই কাম্য নয়। তাই স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি রাগ করা কখনোই উচিত না। আর কারো এমন রাগ থাকলে তা নিয়ন্ত্রণ করা খুব জরুরি। রাগ কমানোর জন্য কিছু পরামর্শ দেয়া হল, এগুলোর নিয়মিত অনুশীলনে রাগের মাত্রা স্বাভাবিকে চলে আসবে আশা করি।

** রাগ হলে উল্টো করে গোনা শুরু করে দিন। এটা খুব কার্যকরী এক পদ্ধতি রাগ কমাবার। ১০, ৯, ৮, ৭, ৬……১ পর্যন্ত। এতে রাগের তীব্রতা অনেকটাই কমে যাবে।

** কিছু মানুষ আছেন এমন হুট করে রেগে যান, আবার তাদের রাগ খুব তাড়াতাড়ি পড়েও যায়। এমনটা হলে হুট করে রাগ হলেও রাগের প্রকাশ করে ফেলবেন না। একটু সময় নিন।

** যখন খুব রাগ উঠে যাবে তখন দাঁড়িয়ে থাকলে বসে পড়ুন, বসে থাকলে শুয়ে পড়ুন। রাগ অনেকটাই কমে যাবে।

** কারো সাথে রাগ হলে তারসাথে কিছুক্ষণ কথা বলা বা কোনো তর্ক করা থেকে বিরত থাকুন। এরফলে রাগ কমার পাশাপাশি অপ্রীতিকর অবস্থারও সৃস্টি হবে না।

** রাগ খুব মারাত্মক জিনিষ। রেগে গেলে মানুষের হুঁশ থাকে না। তখন মনের অজান্তেই অনেক অপ্রত্যাশিত আচরন বা কথা হয়ে থাকে। যা মানুষের স্বাভাবিক জীবন ও সম্পর্ককে ব্যাহত করে। এইসব পরিনতির কথা ভাবলে রাগ আপনা থেকেই কমে যাবে।

** নিয়মিত প্রার্থনা করুন এতে মনের জোর বৃদ্ধি পাবে। নিজের আবেগ অনুভূতিকে নিয়ন্ত্রন রাখার চেষ্টা করতে হবে।

মন্তব্যসমূহ

নিজের পরিচয় দিতে গেলে সবার আগে বলব, আমি একজন মা। তার সাথে একজন হোমমেকার, শিক্ষক ও ব্লগার। লিখতে ভালবাসি। তার চাইতে ভালবাসি পড়তে, জানতে। এইতো! ছোট এক জীবনে অনেক কিছু, আলহামদুলিল্লাহ!!

মন্তব্য করুন