অন্যান্য

চিকেন – ক্যাপসিকাম চাপলি কাবাব

চিকেনের তৈরি যেকোন খাবারই অনেক মজাদার স্বাদের হয়। বাচ্চা- বুড়ো সবার কাছেই অনেক গ্রহণযোগ্য এই চিকেন রেসিপি। চিকেনের সাথে ক্যাপসিকামের জুটি কিন্তু অনবদ্য। ক্যাপসিকামের একটু ঝাল ঝাল ফ্লেভার চিকেনকে করে তুলে আরো অসাধারণ। তাই আজ বিকেল বা সন্ধ্যার নাস্তার জন্য এই অসাধারণ চিকেন- ক্যাপসিকাম জুটির এক ভিন্ন কাবাব রেসিপি তুলে ধরা হল আপনাদের জন্য।

উপকরণ

চিকেন ( বুকের মাংস) – ১ টি

পেঁয়াজ কুচি – ১/৪ কাপ 

আদা – রসুন বাটা – ১/২ চা করে

কাঁচামরিচ কুচি – ১ চা চামচ

সয়া সস – ১ চা চামচ

লবন – সামান্য

টমেটো সস – ১ চা চামচ

সাদা গোলমরিচের গুঁড়া – ১/২ চা চামচ

জিরা ভাজা গুঁড়া – ১/২ চা চামচ

ডিম –  ১ টি

কর্নফ্লাওয়ার – ১ টেবিল চামচ 

ক্যাপসিকাম  – ১ টি ( মাঝারি) 

তেল – ২ টেবিল চামচ (ভাজার জন্য)

প্রনালী

  • চিকেনের সাথে আদা রসুন বাটা ও অল্প পানি দিয়ে সিদ্ধ করে নিন।  
  • চিকেন সিদ্ধ হলে ঠান্ডা করে, ছোট টুকরা করে নিন। 
  • একটা প্যানে পেঁয়াজ কুচি ও ক্যাপসিকাম কুচি হালকা ভেজে নিন। এই ভাজা তেল ছাড়াও করা যাবে। এতে পেঁয়াজ ও ক্যাপসিকাম থেকে একটু স্মোকি ফ্লেভার আসবে। পেঁয়াজ ও ক্যাপসিকাম ঠান্ডা করে নিতে হবে। 
  • এখন একটা বাটিতে ছোট টুকরা করা চিকেনের সাথে তেল বাদে সব মসলা মিশিয়ে নিন। তবে ডিম একবারে সব দেয়া যাবে না। অল্প অল্প দিয়ে মাখাতে হবে। 
  • চিকেনের মিশ্রনের সাথে সবশেষে পেঁয়াজ ও ক্যাপসিকাম দিয়ে হালকা হাতে মেশাতে হবে।
  • এখন সব মাখা হলে হাতে সামান্য তেল মাখিয়ে ক্যাপসিকাম – চিকেন  চাপলি কাবাব বানিয়ে নিন। 
  • এই কাবাব একটু পাতলা ও সাইজে বড় হয়ে থাকে। 
  • প্যানে তেল গরম করে অল্প আচেঁ চাপলি কাবাবের দুইপাশ ভেজে নিন।
  • বিকেলের নাস্তায় পুদিনার সস বা টমেটো সস দিয়ে দারুন লাগবে ভিন্ন স্বাদের এই চিকেন – ক্যাপসিকাম কাবাব। 

চিকেন – ক্যাপসিকাম চাপলি কাবাব দিয়ে বার্গার

এই কাবাব শুধুমাত্র কাবাব হিসেবে না, এটি বার্গারের পেটি হিসেবেও দারুন হবে ভিন্ন স্বাদের চিকেন – ক্যাপসিকাম চাপলি কাবাব। কাবাব ভেজে বার্গারের বান/রুটিতে সস / ম্যায়োনিজ লাগিয়ে তার উপর ভাজা কাবাব দিয়ে টমেটো স্লাইস ও লেটুস পাতা দিয়ে অন্য বান দিয়ে ঢেকে দিন। উপরে একটি টুথপিক লাগিয়ে নিতে পারেন। ব্যাস! তৈরি চিকেন – ক্যাপসিকাম চাপলি কাবাব দিয়ে বার্গার। টমেটো সস দিয়ে পরিবেশন করুন।

চিকেন – ক্যাপসিকাম চাপলি কাবাব ফ্রোজেন পদ্ধতি

প্রথমে চিকেন – ক্যাপসিকাম চাপলি কাবাব বানিয়ে নিন। এরপর শুকনো প্যানে হালকা দুই পাশে ভেজে নিন। তারপর একটা ট্রেতে করে ঠাণ্ডা করে নিন। তারপর এয়ার টাইট বক্সে করে ডিপ ফ্রিজে রেখে দিন। এভাবে প্রায় ১৫-২০ দিন এই কাবাব ভালো থাকবে।

অন্যভাবে, কাবাব না ভেজেও ফ্রোজেন করা যাবে। তার জন্য একটি প্লেটে সামান্য তেল মাখিয়ে নিন। তেল মাখানো প্লেটে বানানো কাবাব একটু ফাঁকা করে রেখে নিন। কাবাবসহ প্লেট ডিপ ফ্রিজে রেখে দিন ঘন্টাখানেক। কাবাব একটু শক্ত হলে প্লেট থেকে তুলে নিন। এবারে একটা এয়ার টাইট বক্স বা জিপলক ব্যাগে ভরে সংরক্ষণ করুন। পরবর্তীতে ভাজার জন্য, কাবাব ভাজার ৫ মিনিট আগে ফ্রিজ থেকে বের করে নিন। ভাজার তেল অল্প গরম করে কাবাব দিয়ে নিন। এইসময় কোন নাড়াচাড়া করা যাবে না। কাবাবের একপাশ হয়ে গেলে সাবধানে অন্য পাশ ভেজে নিন।

মন্তব্যসমূহ

নিজের পরিচয় দিতে গেলে সবার আগে বলব, আমি একজন মা। তার সাথে একজন হোমমেকার, শিক্ষক ও ব্লগার। লিখতে ভালবাসি। তার চাইতে ভালবাসি পড়তে, জানতে। এইতো! ছোট এক জীবনে অনেক কিছু, আলহামদুলিল্লাহ!!

মন্তব্য করুন