All Posts By

ফাতেমা সানজিদা

রুপার গয়নার যত্নআত্তি

রুপার গয়নার যত্নআত্তি

গয়নাগাটিতে আমাদের মেয়েদের সৌন্দর্য যেনো ফুটে উঠে আরও বিস্ময়কর ভাবে। গয়না পছন্দ করে না এমন মেয়ে খুঁজে পাওয়া দুস্কর। অনেকে বড় আবার অনেকে ছোট ডিজাইনের গয়না পছন্দ করে থাকে। রুপার গয়নার প্রচলন ও আভিজাত্য আমাদের দেশে বহুদিন ধরেই প্রচলিত। আমাদের দেশের গ্রামের বালিকা বা নতুন বধুরা কানের রুপার দুল , পায়ে রুপার মল পরতেন। মাঝে রুপার চাহিদা কমে সোনার গয়নার প্রতি বেশি আকৃষ্ট হয় মানুষ। কিন্তু বর্তমানে সোনার গয়নার অনেক দামের কারনে আবার রুপার গয়নার

ভিলেজ স্টাইলে সাউথ ইন্ডিয়ান মাটন রেসিপি

ভিলেজ স্টাইলে সাউথ ইন্ডিয়ান মাটন রেসিপি

ভারতের একেক অঞ্চলের রান্নার স্বাদ ও রান্নার প্রক্রিয়া আলাদা। এর মধ্যে সাউথ ইন্ডিয়ান বা দক্ষিন ভারতের রান্নার জুড়ি মেলা ভার। ভারত তো বটেই অন্যান্য দেশের লোকজনও এই অঞ্চলের রান্না খেতে খুব আগ্রহী। দেশীয় মশলা ও স্থানীয় রান্নার কৌশল এই দুইয়ে মিলে এই অঞ্চলের রান্নাকে আরও সমৃদ্ধ করেছে। মাটনের বিভিন্ন রেসিপি ভারতের মানুষ খুব আয়েশ করে রান্না করে ও খেয়ে থাকে। গ্রামের দিকের মানুষের রান্নায় স্বাদ ও গন্ধটা একটু অন্যরকম। আজকে আপনাদের সাথে শেয়ার করবো দক্ষিন

ইতালিয়ান ডেজার্ট তিরামিসু রেসিপি

ইতালিয়ান ডেজার্ট তিরামিসু রেসিপি

তিরামিসু এক ইতালিয়ান ক্ল্যাসিক ডেজার্ট । যা দেখতে কেকের মত কিন্তু এটাতে কোন বেক করা লাগে না।এই তিরামিসু ডেজার্টে কয়েকটি লেয়ার দেয়া থাকে।একটিতে কফিতে ভেজানো লেডি ফিঙ্গার বিস্কুট আর অন্যটিতে ক্রিম চিজের মিশ্রণ। এভাবে আরও ২/৩ লেয়ার দিয়ে তিরামিসু তৈরি করা হয়। আমাদের দেশে ইতালিয়ান পাস্তা, পিজ্জা তো অনেকদিন ধরেই খুব জনপ্রিয়। এবার এই ইতালিয়ান্দের তৈরি করা ক্ল্যাসিক ডেজার্ট খেয়ে দেখুন, এর স্বাদ ও ফ্লেভার অসাধারন। অনেক রেস্টুরেন্টে এই ডেজার্ট পাওয়া যায়। তবে আমাদের সবসময়ের

গরুর মাংসের আচার

গরুর মাংসের আচার

গরুর মাংস আমরা অনেকভাবেই খেয়ে থাকি। তবে জানেন কি, এই গরুর মাংস দিয়ে আচারও তৈরি করা যায়? এবং খেতে খুব সুস্বাদু।মাঝে মাঝে এমন হয় যে রান্না করতে ইচ্ছে করছে নাহ বা ঘরে রান্না করার মত তেমন কিছু বাজার করা নেই। সেই সময়গুলোতে এই গরুর মাংসের আচার যে কি পরিমান কাজে আসবে সেটা ভাবতে পারেছন তো! সেইদিন ভাত, ডাল আর সাথে একটু আলুভর্তা করলেই কাজ শেষ। গরম ভাতের সাথে একটু এই ভিন্নধর্মী আচার খেয়ে দেখুন এর

শীতকালিন নবজাতকের যত্ন

শীতকালিন নবজাতকের যত্ন

চলে আসছে শীত। এই সময়ে আমাদের ছোট-বড় সবার ত্বকের যত্নে দরকার বাড়তি যত্ন। আর এই সময়ে যদি কোন নতুন শিশু মায়ের গর্ভ থেকে জন্ম নেয় তার জন্য তো বাড়তি সুরক্ষার ব্যবস্থা করতেই হবে।এইসময় যাতে নবজাতকের সর্দি না লাগে তার জন্য ব্যবস্থা করতে হবে।শীতকালিন নবজাতকের যত্ন নিয়ে সাজানো আমাদের আজকের লেখা। শীতকালিন নবজাতকের যত্ন ১. বার বার হাত ধোয়া বাচ্চার মা বা তার পরিচর্যাকারিকে বার বার হাত ধুয়ে নিতে হবে, এতে শিশুর শরীরে বাইরের জীবাণু প্রবেশ

চিকেন – ক্যাপসিকাম চাপলি কাবাব

চিকেনের তৈরি যেকোন খাবারই অনেক মজাদার স্বাদের হয়। বাচ্চা- বুড়ো সবার কাছেই অনেক গ্রহণযোগ্য এই চিকেন রেসিপি। চিকেনের সাথে ক্যাপসিকামের জুটি কিন্তু অনবদ্য। ক্যাপসিকামের একটু ঝাল ঝাল ফ্লেভার চিকেনকে করে তুলে আরো অসাধারণ। তাই আজ বিকেল বা সন্ধ্যার নাস্তার জন্য এই অসাধারণ চিকেন- ক্যাপসিকাম জুটির এক ভিন্ন কাবাব রেসিপি তুলে ধরা হল আপনাদের জন্য। উপকরণ চিকেন ( বুকের মাংস) – ১ টি পেঁয়াজ কুচি – ১/৪ কাপ  আদা – রসুন বাটা – ১/২ চা করে

ইলিশের মাথা ও লেজের ২ ঘরোয়া রেসিপি

ইলিশের মাথা ও লেজের ২ ঘরোয়া রেসিপি

এখন সময়টা ইলিশের। অন্য সব মাছ থেকে ইলিশ মাছের স্বাদ ও গন্ধ অতুলনীয়। ইলিশ মাছ যে কতভাবে খাওয়া যায়, সেটা এক গবেষণার বিষয়। ইলিশ ভাজা, ইলিশ পাতুরি, ইলিশ পোলাও ,সর্ষে ইলিশ ইত্যাদি নানা ভাবেই মাছের রাজাকে আমরা খেয়ে থাকি। তবে এই রান্না গুলোতে ইলিশের মাথা ও লেজ সাধারণত রান্না করা হয় না। আবার অনেকে ইলিশের মাথা ও লেজ খেতে পছন্দ করেন না, কারন এতে কাঁটা বেশি থাকে। এরফলে ইলিশের মাথা ও লেজের জায়গা হয় ফ্রিজেই।

জাপানিজ রামেন রান্নার সবচেয়ে সহজ রেসিপি

জাপানিজ রামেন রান্নার সবচেয়ে সহজ রেসিপি

জাপানিদের খাবার দাবার খুব সাধাসিধে। কিন্তু পুষ্টিতে একদম ভরপুর। বাঙ্গালিদের মত নানা রকম পদের খাবার ওরা একসাথে খায় না। তবে একবারের মিলে বা খাবারে কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন , ফ্যাট, সবজি  সবকিছুই খায় একটি বাটিতে। অর্থাৎ, জাপানিরা একটি বাটিতেই স্যুপ বা ভাত বা নুডুলস খেয়ে থাকে। একে বলে ওয়ান ডিশ মিল।এতে যেমন সময়ও বাঁচল আবার পুষ্টিও পুরোপুরি পাওয়া গেল। যারা একটু ঝোল ঝোল নুডুলস খেতে চায় তাদের জন্য পারফেক্ট। ইদানিংকালে জাপানের একটি জনপ্রিয় ডিশ খুব জনপ্রিয়তা পেয়েছে

কাঁচা আমের জেলি/জ্যাম

কাঁচা আমের জেলি ও জ্যাম রেসিপি

কাঁচা আম শরীরের জন্য খুব ভালো। কাঁচা আমের অনেক রকম স্বাস্থ্য উপকারিতা আছে। যা আমাদের শরীরের জন্য খুবই উপকারী। কাঁচা আম গ্রীষ্মের শুরুতেই পাওয়া যায়। এরপর আর কাঁচা আম খাবার কোনও সুযোগ নেই। কিন্তু কাঁচা আম সংরক্ষণ করা যায় বছর জুড়ে। সংরক্ষনের জন্য কাঁচা আম দিয়ে আচার, মোরব্বা করে রাখা যায়। কাঁচা আম জেলি বা জ্যাম দুইটাই বানানো যায়। সকালের নাস্তায় বা বাচ্চার টিফিনে পাউরুটির সাথে দারুন জমবে কাঁচা আমের জেলি/ জ্যাম। এই কাঁচা আমের