All Posts By

মাহমুদুল হাসান

শরষে ফুলের মুখোরোচক ভর্তা রেসিপি।

সর্ষে ফুলের মুখোরোচক ভর্তা রেসিপি

ভরপুর সরিষার মৌসুমে এখন মাঠে মাঠে সরিষা ফুলের হলুদে রাঙা দিগন্ত জুড়ে। বাঙালীর রান্নায় সরিষা তো এক অনবদ্য উপকরণ। সরিষা দানা এবং সরিষা পাতা/শাকের নানানা পদের সাথে তো আমাদের নিত্য জানাশোনা হচ্ছে প্রতিদিনকার খাবার রুটিনে। কিন্তু আজ ভাবছি সরিষা সম্পর্কিত একটি অন্যরকম একটা রান্নার রেসিপি দিব যেটা ভিন্ন উপকরণে এবং ভিন্ন স্বাদের তো বটেই। সেটা হলো একটা ভর্তার রেসিপি। সর্ষে ফুলের ভর্তা সাথে আছে কাতল মাছ। চলুন তাহলে জিভে জল আনা পদটির প্রস্তুত প্রনালীতে চলে

ভিন্ন স্বাদের সর্ষে ফুল পাকোড়া

ভিন্ন স্বাদের সর্ষে ফুল পাকোড়া

ভরপুর সরিষার মৌসুম চলছে এখন। গ্রামে গ্রামে মাঠে মাঠে সরিষা ফুলের হলুদে রাঙা দিগন্ত জুড়ে। সরিষা দানা এবং সরিষা পাতা/শাকের নানানা পদের সাথে তো আমরা পরিচিত বহুল ভাবে। বাঙালীর রান্নায় সরিষা তো এক অনবদ্য উপকরণ। তাই আজ সেরকমই একটা রান্নার রেসিপি দিব। ভিন্ন উপকরণে এবং ভিন্ন স্বাদের। সেটি হলো সরিষা ফুল দিয়ে একটি পাকোড়া বা বড়া। বেশ মজাদার জিভে জল আনা একটি পদ। এবং পুষ্টিগুনে ভরপুর। তো চলুন দেখে নিই কি কি উপকরণ লাগছে মজাদার

রূপচর্চায় নারিকেল দুধের কিছু চমকপ্রদ ব্যবহার

রূপচর্চায় নারিকেল দুধের কিছু চমকপ্রদ ব্যবহার

নারিকেল আমাদের প্রিয় একটি ফল। রান্নার বিভিন্ন কাজে নারিকেলের ব্যবহারের কথা আমরা সবাই জানি। নারিকেল তেলের মাধ্যমের চুলের যত্ন নেয়ার কথাও সবার জানা। এবং আমরা কমবেশি সবাই জানি নারিকেলের দুধ কি। নারিকেল দুধ ত্বক ও চুলের বিভিন্ন সমস্যা দূর করার পাশাপাশি সৌন্দর্য রক্ষায়ও সমানভাবে কার্যকর। চুল ও ত্বকের নানা সমস্যা খুব সহজেই দূর করা সম্ভব শুধুমাত্র নারিকেলের দুধের ব্যবহারে। তবে চলুন জেনে নেয়া যাক নারিকেল তেলের এমনই দারুণ সব ব্যবহার সম্পর্কে। তো চলুন প্রথমেই জেনে

বড়দিনে আপনার পরিপাটি ঘর

বড়দিনে আপনার পরিপাটি ঘর

বছর ঘুড়ে চলে এলো সেই কাঙ্ক্ষিত দিন। খ্রিস্টধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উত্‍সব বড়দিন। অন্যান্য উৎসবের মত এদিনেও সবাই চায় নিজেদের সুন্দর ভাবে সাজানোর পাশাপাশি নিজেদের ঘরটাও সুন্দর, পরিপাটী ও নান্দনিক ভাবে সাজাতে-গুছাতে। পশ্চিমা দেশ গুলোর মতো জমকালোভাবে পালন না করা হলেও আমাদের দেশেও দিনটি উদযাপন করা হয় নানান আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে। নিজেদের পরিসরের মধ্যে সবাই চেষ্টা করে ভাল আয়োজনটি করতে। ক্রিসমাস ট্রি সাজানো হলো বড়দিনের অন্যতম আকর্ষন। ধর্ম-বর্ণ-নির্বিশেষে যে কোনো উত্‍সবে সবাই এক হয়ে যাওয়া বাঙালীর

শীতে চুলের যত্ন ঘরোয়াভাবে

শীতে চুলের যত্ন ঘরোয়াভাবে

শীতকাল যেমন সবার কাছে প্রিয় একটু ঋতু, প্রকৃতি যেমন ভিন্নতর রূপে হাজির হয় এ সময় তেমনি রুক্ষতাও নিয়ে আসে সাথে করে। এসময় প্রকৃতির সাথে সাথে এ প্রভাব আমাদের উপর ও পরে। ত্বকের সাথে সাথে চুলেও আসে রুক্ষতা ও শুষ্কতার ছোঁয়া। চুলের যদ্রতা কমে গিয়ে চুল হয়ে উঠে নিষ্প্রান। তখন চুল পড়া বেড়ে যায়। এ কারণে চুলের আর্দ্রতা বজায় রাখার জন্য এ সময় চুলের বাড়তি যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। তাই এ লেখায় থাকছে শীতকালে চুলের যত্নে কয়েকটি

যত্নে থাকুক প্রিয় গহনাটি

নারীর অন্যতম একটি সাজ অনুষঙ্গ হলো গহনা। গহনার প্রতি নারীদের দুর্বলতা সবসময়ের। গহনা ছাড়া নারীর সৌন্দর্য্যের যেন অপূর্ণতা রয়ে যায়। সোনা, রূপা, হীরার গহনার সাথে সাথে বর্তমান সময়ের পার্ল, কাঠ, মাটি সহ বিশেষকরে জার্মান সিলভারের গহনার বেশ ভাল একটা ট্রেন্ড চলছে। শুধু গহনা পছন্দ আর সজ্জা করলেই তো চলবে না, জানতে হবে গহনার যত্নও। আর তাই ভাবছি, আজ কথা বলব জার্মান সিলভারের গহনার যত্ন-আত্নি নিয়ে। পছন্দের গহনা কিনে কিনে প্রায় সব নারীরই গহনার এক বড়সড় সংগ্রহ

সুরভিত ও সতেজ ঘর

সুরভিত ও সতেজ ঘর

ঘর সুরভিত বা সুগন্ধে সতেজ থাকুক তা আমরা কে না চাই! এলো শীত। শীতে বাহিরের অতিরিক্ত ঠান্ডা থেকে বাচিয়ে ঘরকে উষ্ণ রাখতে আমরা দিনের বেশিরভাগ সময়টাই দরজা জানালা বন্ধ করে ঘরে বাইরের আলো বাতাস চলাচল বন্ধ রাখি। এতে ঘরের ভেতরটায় এক গুমোট ব্যাপার বিরাজ করে। আর এতে সতেজ গন্ধটাও অনুভূত হয়না। অথচ আমরা চাই ঘর থাকুক উষ্ণ এবং সুরভিত। এছাড়াও বিভিন্ন কারণে আমাদের ঘরে দুর্গন্ধ অনুভূত হয়ে থাকে। ঘরের এই দুর্গন্ধ পরিবারের মানুষজনের জন্যে যেমন

প্রসঙ্গ যখন চন্দন

প্রসঙ্গ যখন চন্দন

চন্দন। খুবই পরিচিত একটি নাম এবং উপাদান। একটি অসাধারন প্রাকৃতিক উপাদান। যুগ যুগ ধরে সৌন্দর্যচর্চায় এটি ব্যবহারিত হয়ে আসছে।রূপচর্চার নানা ক্ষেত্রে এটি আপনি ব্যবহার করতে পারেন অনায়াসেই। আজকের এই আর্টিকেলে দেখানো হয়েছে কিভাবে আপনি ঘরে বসে প্রাকৃতিক উপায়ে চন্দন ব্যবহারে রুপচর্চা করবেন। এবং দেখানো হয়েছে চন্দনের উল্লেখযোগ্য উপকারিতান সমূহ। নিয়মিত চন্দন ব্যবহারে উপকারিতাঃ ✔রোদে পোড়া দাগ দূর করেঃরোদে পোড়া ভাব বা সানট্যান/সানবার্ণ দূর করতে চন্দন বেশ উপকারী। এজন্য একটা দারুন ফেসপ্যাকের রেসিপি দিচ্ছি। শসার রস,

ঝকঝকে স্টিলের থালাবাটি

ঝকঝকে স্টিলের থালাবাটি

স্টিলের থালাবাটি ঝকঝকে তকতকে রাখতে কে না চায়! ঘরে অতিথি এলে এখনকার সময়ে নতুন ট্রেন্ড হলো বাঙালীর গ্রামবাংলার আদলে মাটির এবং স্টিলের বাসনকোসনে খাবার সার্ভ করা। কিন্তু বেশীরভাগ সময়েই যে্টা হয়, স্টিলের থালাবাটি ঠিকভাবে পরিষ্কার করে না রাখাতে বা ঠিকভাবে সংরক্ষন না করার ফলে এর গ্লেজ নষ্ট হয়ে যায়। ঝকঝকে ভাবটা হারিয়ে যায়। যেটা নিজের কাছেও ভাল লাগেনা আর অতিথির সামনে তো আরো আগেই না(মাটির তৈজসপত্র নিয়ে পরবর্তী আর্টিকেলে লিখা হবে)। আবার দীর্ঘদিন ব্যবহার করার