All Posts By

তামান্না নাদিরা

আমার বাচ্চা কিছুই খেতে চায় না:

আমার বাচ্চা কিছুই খেতে চায় না। সব মায়েদের একই কথা।  আজ বাচ্চার খাবারের বিষয়টা দু ভাগে  আলোচনা করব।১ম ভাগে আলোচনা করব,শিশু কেন খেতে চায় না?আর ২য় ভাগে  আলোচনা করব সেক্ষেত্রে আমরা মায়েরা কী করতে পারি।অথাৎ ২য় ভাগে রয়েছে শিশুদের খাওয়ানোর কৌশল।   বাচ্চা কেন খেতে চায় না? মায়েদের মুখে সবসময় যে কথা শুনা যায় তা হলো বাচ্চা কিছুই খেতে চায় না।আসলে এরজন্যে অবিভাবকরাই দায়ী। আসুন জানি বাচ্চার খাবারের প্রতি অনীহা কেন?   .আমরা সব মানুষরাই স্বাধীনচেতা।স্বাধীনভাবেই

নিজেই তৈরি করুন শাহী গরম মসলা:

রান্নার জন্মলগ্ন থেকেই গরম মসলার ব্যবহার হয়ে আসছে,আর হবেই বা না কেন?গরম মসলা যেমন রান্নার স্বাদ বাড়ায় তেমতি শরীরের জন্যে অনেক উপকারী।আমাদের বাঙালী রান্না বান্নায় পাওয়া যায় অনেক মসলার সমাহার।নিজ হাতে বানানো মসলা ব্যবহারে পাওয়া যায় অন্য রকম  প্রশান্তি।যদিও বাজারে রয়েছে বিভিন্ন রকমের গরম মসলা কিন্তু সেই স্বাদ ও ঘ্রাণ নেই।আসুন জেনে নেই ঘরে কিভাবে বানাবেন শাহী গরম মসলা।   যা যা লাগবে: জিরা-১টেবিল চামচ শাহী জিরা-১টেবিল চামচ ধনিয়া-১টেবিল চামচ মৌরি/ছফ-১ চা চামচ শুকনা মরিচ-৩টি

মসলাদার এক কাপ দুধ চা:

এক কাপ চা না হলে যেন সকাল টা জমেই না।সকালের মিষ্টি রোদে এক কাপ গরম চা হাতে নিউজ পেপার পড়ার মজাই যেন একটু অন্য রকম।আর তা যদি হয় একটু ভিন্ন স্বাদের সুস্বাদু চা তা হলে তো কথাই নেই।আজ আমি শেয়ার করব সুস্বাদু মসলাদার দুধ চা।এই চা আমাদের দেশের হোটেল বা রেস্তোরায় বেশী প্রচলিত না।এই মসলাদার দুধ চা ইন্ডিয়ায় বেশি প্রচলিত।   যা যা লাগবে: ফুল ক্রিম মিল্ক:হাফ কাপ পানি : হাফ কাপের একটু বেশি কারণ

মজাদার মুসুর ডালের কাবাব:

 মাছ,মাংস কিংবা সবজির অনেক কাবাব তো  খাওয়া হয়েছে কিন্তু কখনো কি খেয়েছেন শুধু মুসুর ডালের কাবাব?মনে হয় না।যদি না খেয়ে থাকেন,ঘরে মুসুর ডাল থাকলে তবে আজই বানিয়ে দেখুন।মাছ,মাংস বা সবজির চাইতে কোনো অংশে কম মজা লাগবে না।   যা যা লাগবে: মুসুর ডাল :১ কাপ পানি :২ কাপ পেয়াজ কুচি :বড় ১ টা রসুন বাটা :১ চা চা. সরিষার তেল :২ চা চা. হলুদ গুড়ো :হাফ চা চা. মরিচ গুড়ো :এক চিমটি কাবাব মসলা :১ চা চা.(না থাকলে চটপটি  মসলা দিলে হবে।)

ভ্যানের চালতার আচার:

স্কুল,কলেজের গেইট, রাস্তার মোড় কিংবা ভ্যানে আমরা চালতার এক ধরনের আচার দেখতে পাই যা দেখতে যেমন মুখরোচক খেতে তেমনি অসাধারণ।আজ সেই চালতার আচারের রেসিপিটি শেয়ার করছি,ইনশাআল্লাহ  ভাল লাগবে যা যা লাগবে: চালতা বড়:১/২ টি সরিষার তেল:হাফ কাপ সাদা ও লাল সরিষা একসাথে বাটা:১ টে.চা.(যেকোনো এক ধরনের সরিষা বাটা হলেও হবে) লবণ:স্বাদ মত চিনি:হাফ কাপ(স্বাদ অনু্যায়ী) তেজপাতা:১/২টি আস্ত পাঁচফোড়ন:আধা টে.চা. রসুন বাটা:আধা টে.চা. মরিচ গুড়ো :হাফ চা চা. হলুদ:১ চা চা.( সিদ্ধ করার জন্য) সিরকা:২টে.চা. গুঁড়ো

শুষ্ক ত্বকের হোম মেইড ফেইস প্রাইমার

শুষ্ক ত্বকের হোম মেইড ফেইস প্রাইমার

আমরা অনেকেই আসলে জানি না প্রাইমার ( ফেইস প্রাইমার ) কি? বিশ্ব জুড়ে নারীরা শখে কিংবা প্রয়োজনে মেকআপ করেন। প্রাইমার আপনার শখের বা প্রয়োজনের মেকআপ কে নিখুত ও মসৃণ  করে, মেকআপ ভালভাবে সেট করে, মেকআপ কে অনেকক্ষণ  স্থায়ী রাখে, বিশেষ করে আমার মত  শুস্ক ত্বকের অধিকারীদের মেকআপ ফেটে যাবার  ভয় থাকে না প্রাইমার ব্যবহারে। শুষ্ক ত্বকের জন্য উপকারী ফেইস প্রাইমার যা যা লাগবে: আ্যালোভেরা জেল ১ টে.চা. ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম ১  টে.চা. ভিটামিন-ই ক্যাপসুল ১/২ টি। আমন্ড

ঘরোয়া টিপস

ঘরোয়া কিছু সাধারণ টিপস, যা অসাধারণ কাজের

প্রতিদিন রাধুনীর রান্নাঘরে থাকে ওটা সেটা কত ঝামেলা।আসুন জেনে নেই এমন কিছু ঘরোয়া সাধারণ টিপস যার মাধ্যমে রাধুনীরা এসব সমস্যা থেকে রেহাই পেতে পারেন অসাধারণ ভাবে। ঘরোয়া টিপস ১। তরকারিতে হলুদ বেশি হয়ে গেলে আটা মাখিয়ে দিয়ে দিন। ভয় নেই ওটা গলবে না,আস্তে আস্তে শক্ত হয়ে যাবে এবং বারতি হলুদ কমিয়ে ফেলবে। ২। শুকনো মরিচ, বিস্কুট, চানাচুর ফ্রিজে রেখে দিলে মচমচে থাকবে। ৩। পেঁয়াজ কাটতে গেলে চৌখ তো জ্বালাতন করবেই এ সমস্যার সমাধান হলো পেঁয়াজ খোসা

ভিন্ন স্বাদে মুগডাল রেসিপি 

ভিন্ন স্বাদে মুগডাল রেসিপি

মুগডাল আমরা প্রায়ই রান্না করি। একই রান্না একটু টেকনিক অবলম্বন করলে স্বাদে আসে ভিন্নতা। চলুন দেখে নেই ভিন্ন স্বাদে মুগডাল রেসিপি মুগডাল রেসিপি মুগডাল রেসিপি – যা যা লাগবে: মুগডাল –  ২৫০ গ্রাম কাঁচামরিচ – ৫/৬ টি ধনেপাতা কুচি – এক চিমটি মেরিনেটের জন্য যা যা লাগবে: মুরগির মাংস – ৫০০ গ্রাম ( দেশি মুরগি ) আদা বাটা – ১ টে.চা. রসুন বাটা – ১ টে.চা. পেয়াজ বাটা – ৪ টে.চা. হলুদ গুড়ো – হাফ চা চা. মরিচ

ঘরেই তৈরি করুন ভার্জিন নারিকেল তেল

ঘরেই তৈরি করুন ভার্জিন নারিকেল তেল

ত্বকের হারানো উজ্বলতা ফিরিয়ে আনতে নারিকেল তেল ম্যাজিক হিসেবে কাজ করে, কিন্ত ুএই ভেজালের দিনে খাঁটি নারিকেল তেল পাওয়া আর সোনার হরিণ পাওয়া একই কথা। অথচ আমরা ঘরে বসে খুবই সহজে খাঁটি ভার্জিন নারিকেল তেল তৈরি করতে পারি। ভার্জিন নারিকেল তেল ভার্জিন নারিকেল তেল তৈরি করতে  যা যা লাগবে নারিকেল ২ টি ছুড়ি নারিকেল কোড়ানি ব্লেন্ডা রান্নার প্যান ছাঁকনি এই তেল বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করতে পারবেন। একটি কথা না বললেই নয় বাজারে ১০০মি.লি. তেল আমরা  খুব সস্তায়